খতমে নুবুওওয়াত অস্বীকারকারীরা কাফির

সংখ্যা: ২০০তম সংখ্যা | বিভাগ:

কাদিয়ানী রদ!

(ষষ্ঠ ভাগ)

(কুতুবুল ইরশাদ, মুবাহিছে আয’ম, বাহরুল উলূম, ফখরুল ফুক্বাহা, রঈসুল মুহাদ্দিছীন, তাজুল মুফাস্সিরীন, হাফিযুল হাদীছ, মুফতিউল আ’যম, পীরে কামিল, মুর্শিদে মুকাম্মিল হযরতুল আল্লামা মাওলানা শাহ্ ছূফী শায়খ মুহম্মদ রুহুল আমীন রহমতুল্লাহি আলাইহি কর্তৃক প্রণীত “কাদিয়ানী রদ” কিতাবখানা (৬ষ্ঠ খ-ে সমাপ্ত) আমরা মাসিক আল বাইয়্যিনাত পত্রিকায় ধারাবাহিকভাবে প্রকাশ করছি। যাতে কাদিয়ানীদের সম্পর্কে সঠিক ধারণাসহ সমস্ত বাতিল ফিরক্বা থেকে আহ্লে সুন্নত ওয়াল জামায়াতের অনুসারীদের ঈমান-আক্বীদার হিফাযত হয়। আল্লাহ্ পাক আমাদের প্রচেষ্টায় কামিয়াবী দান করুন (আমীন)। এক্ষেত্রে তাঁর কিতাব থেকে হুবহু উদ্ধৃত করা হলো, তবে তখনকার ভাষার সাথে বর্তমানে প্রচলিত ভাষার কিছুটা পার্থক্য লক্ষণীয়)।

(ধারাবাহিক)

ছাওয়ায়েকা-মোহরাকা, ৯৮ পৃষ্ঠা-

قال ابراهيم ابن ميسرة لطاؤس عمر بن عبد العزيز المهدى قال لا ازلم يستكمل العدل كله اى فهو من جملة المهدين وليس الموعود به اخر الزمان وقد حرم احمد وغيره بانه من المهديين المذكورين فى قوله صلى الله عليه وسلم عليكم بسنتى وسنة الخلفاء الراشدين المهدين

এবরাহিম বেনে মাইছারা, তাউছকে বলিয়াছিলেন, ওমার বেনে আব্দুল-আজিজ মাহদী, তিনি সম্পূর্ণরূপে ন্যায় বিচার করিতে পারেন নাই, তিনিও হেদাএত প্রাপ্তদিগের অন্তর্গত ছিলেন, তিনি শেষ জামানার প্রতিশ্রুত মছিহ নহেন। আহমদ প্রভৃতি বলিয়াছেন যে, ওমার  বেনে আব্দুল আজিজ খোলাফায়ে-রাশেদীন-সংক্রান্ত হাদিছ উল্লিখিত হেদাএত প্রাপ্তদিগের অন্তর্গত।

ইহাতে বুঝা যায় যে, আভিধানিক অর্থের হিসাবে তাঁহাদিগকে মাহদী বলা সঙ্গত, কিন্তু প্রকাশ্য নাম হিসাবে তাঁহারা মাহদী নহেন। উক্ত কেতাবের ৯৯ পৃষ্টায় আছে-

“খেলাফায়ে-আব্বাছিয়া তৃতীয় খলিফা মাহদী নামে ছিলেন, তিনি উমাইয়া বংশের ওমার বেনে আব্দুল আজিজের তুল্য ন্যায়-বিচারক ছিলেন, তাঁহার নাম মোহাম্মদ ও তাঁহার পিতার নাম আব্দুল্লাহ্ ছিল, ইহাকে (আভিধানিক অর্থের হিসাবে) মাহদী বলা যাইতে পারে, কিন্তু পূর্ব্ব উল্লিখিত ছহিহ হাদিছগুলিতে হযরত ফাতেমাতুয যাহরা আলাইহাস সালাম-উনার বংশধর যে মাহদীর কথা আছে, তিনি পৃথক, তিনি শেষ জামানার প্রতিশ্রুত মাহদী, (হজরত) ঈছা আলাইহিস্ সালাম তাঁহার পশ্চাতে নামাজ পড়িবেন।

মূল কথা, আব্বাছিয়া খলিফার মাহদী মদিনাতে পয়দা হন নাই, তিনি হযরত ফাতেমাতুয যাহরা আলাইহাস সালাম উনার বংশধর নহেন, কনস্টান্টিনোপল জয় করেন নাই, ছুফইয়ানি দল তাঁহার সময়ে ভূগর্তে ধসিয়া যায় নাই, আরও বহু আলামত তাঁহার মধ্যে পাওয়া যায় নাই।

তৎপরে তিনি যে নফছে-জাকিয়ার কথা বলিয়াছেন, তিনি তো আরব ও আজমের বাদশাহি পান নাই। দুনইয়াতে ন্যায় বিচারে পূর্ণ করেন নাই ইত্যাদি বহু আলামত তাহার মধ্যে নাই। মাহদীর একটী চিহ্নও তাহার মধ্যে পাওয়া যায় নাই।

হযরত উসমান যুন নূরাইন রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু উনার আমলে কনস্টান্টিনোপল জয় হইয়াছিল। ইহা মাজমায়োল বেহারের ৩/১৪৩ পৃষ্ঠা হইতে উল্লেখ করিয়াছি। কাজেই মোহাম্মদ বেনে আব্দুল্লাহ নামক কোন বাদশাহ উহা জয় করেন নাই। এই কনস্টান্টিনোপল মুছলমানদের অধিকার হইতে বাহির হইয়া খ্রিস্টান রাজাভুক্ত হইবে, পরে শেষ জামানাতে উহা যে এমাম জয় করিবেন, তাহার নাম মাহদী ও মোহাম্মদ হইবে।

মির্জা ছাহেবের অর্থ পরিবর্তন (তাহরিক) করার আলোচনা

কোরআন ও হাদিছের স্পষ্ট অর্থ (হকিকত অর্থ) বাদ দিয়া অপ্রকৃত ও অস্পষ্ট অর্থ গ্রহণ কোন সময় জায়িয হইতে পারে?

তওজিহ, ৮৭ পৃষ্ঠা-

لا بد للمجاز من قرينة يمنع ارادة الحقيقة عقلا او حسا او عادة او شرعا

“মাজাজের জন্য এরূপ একটী আলামত হওয়া জরুরি যাহা বিবেক, বাহ্য ইন্দ্রিয়, স্বভাব ও শরিয়ত অনুসারে হকিকি (স্পষ্ট) অর্থ গ্রহণে বাধা জন্মাইতে পারে।”
(চলবে)

খতমে নুবুওওয়াত অস্বীকারকারীরা কাফির

খতমে নুবুওওয়াত অস্বীকারকারীরা কাফির

খতমে নুবুওওয়াত অস্বীকারকারীরা কাফির

খতমে নুবুওওয়াত অস্বীকারকারীরা কাফির

খতমে নুবুওওয়াত অস্বীকারকারীরা কাফির