আনজুমানে আল বাইয়্যিনাত ও মাহফিল সংবাদ

সংখ্যা: ২৭৮তম সংখ্যা | বিভাগ:

আল বাইয়্যিনাত শরীফ প্রতিবেদন : যামানার লক্ষ্যস্থল ওলীআল্লাহ, যামানার ইমাম ও মুজতাহিদ, ইমামুল আইম্মাহ, মুহ্ইউস সুন্নাহ, কুতুবুল আলম, মুজাদ্দিদে আ’যম, ক্বইয়ূমুয যামান, জাব্বারিউল আউওয়াল, ক্বউইয়্যুল আউওয়াল, সুলত্বানুন নাছীর, হাবীবুল্লাহ, জামিউল আলক্বাব, আওলাদে রসূল, মাওলানা সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুল উমাম আলাইহিস সালাম তিনি বলেন, পবিত্র কুরআন শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে, মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, আমি তোমাদেরকে নির্দেশ মুবারক দিচ্ছি খালিছভাবে আমার (সন্তুষ্টি মুবারক লাভের উদ্দেশ্যে) ইবাদত করো।

প্রত্যেক মুসলমান পুরুষ-মহিলা, জ্বীন-ইনসান সকলের জন্যই ইখলাছ অর্জন করা ফরয। সুবহানাল্লাহ! কারণ ইখলাছ ব্যতীত কোন ইবাদত মহান আল্লাহ পাক উনার নিকট কবুল হয় না। আর ইখলাছ হাছিল করতে হলে অবশ্যই একজন কামিল শায়েখ বা মুর্শিদ ক্বিবলা উনার নিকট বাইয়াত গ্রহণ করে ইলমে তাছাউফ অর্জন করতে হবে। নচেৎ কস্মিনকালেও ইখলাছ অর্জিত হবে না।

তাই সম্মানিত শরীয়ত উনার ফতওয়া হলো- ইখলাছ অর্জন করা ফরয, ইলমে তাছাউফ অর্জন করা ফরয এবং একজন কামিল শায়েখ বা মুর্শিদ ক্বিবলা উনার নিকট বাইয়াত গ্রহণ করাও ফরয। সুবহানাল্লাহ!

মুজাদ্দিদে আ’যম, সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুল উমাম আলাইহিস সালাম তিনি বলেন, মহান আল্লাহ পাক উনার সন্তুষ্টি মুবারক হাছিলের উদ্দেশ্যে ইবাদত বা আমল করার নাম মুবারক হলো, ইখলাছ মুবারক। অর্থাৎ প্রত্যেক পুরুষ ও মহিলাকে ইখলাছ অর্জন করতে হবে। অন্যথায় আমল করে ফায়দা বা মর্যাদা হাছিল করা তো দূরের কথা নাজাত লাভ করাটাই কঠিন হবে। যার উদাহরণ মহান আল্লাহ পাক তিনি ‘পবিত্র সূরা মাঊন শরীফ’ উনার মধ্যে উল্লেখ করেছেন যে, নামায আদায়কারীদের জন্য আফসুস তথা জাহান্নাম। নাউযুবিল্লাহ!

মুজাদ্দিদে আ’যম, সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুল উমাম আলাইহিস সালাম তিনি বলেন, পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে, “সমস্ত মানুষ ধ্বংস মু’মিনগণ ব্যতীত এবং মু’মিনগণও ধ্বংস আলিমগণ ব্যতীত এবং আলিমগণও ধ্বংস আমলকারীগণ ব্যতীত এবং আমলকারীগণও ধ্বংস ইখলাছ অর্জনকারীগণ ব্যতীত।”

মুজাদ্দিদে আ’যম, সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুল উমাম আলাইহিস সালাম তিনি বলেন, নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক করেন, যা মুসলিম শরীফ উনার মধ্যে বর্ণিত রয়েছে, মহান আল্লাহ পাক উনার সন্তুষ্টি মুবারক হাছিলের উদ্দেশ্যে ইখলাসের সাথে আমল না করার কারণে জিহাদকারী জিহাদ করা সত্ত্বেও, ক্বারী সাহেব পবিত্র কুরআন শরীফ শিক্ষা দেয়া সত্ত্বেও এবং আলিম সাহেব ইলম উনার প্রচার প্রসার করা সত্ত্বেও এবং দানশীল দানের সমস্ত রাস্তায় দান করা সত্ত্বেও তাদের সকলকে উপুড় করে জাহান্নামে নিক্ষেপ করা হবে। নাউযুবিল্লাহ!

মুজাদ্দিদে আ’যম, সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুল উমাম আলাইহিস সালাম তিনি বলেন, ইলমে ফিক্বাহ অর্থাৎ ওযূ, গোসল, ইস্তিঞ্জা, নামায-কালাম, মুয়ামালাত, মুয়াশারাত ইত্যাদি শিক্ষার জন্য ওস্তাদ গ্রহণ করা যেমন ফরয; সেটা মাদরাসায় গিয়েই হোক অথবা ব্যক্তিগতভাবে কোনো ওস্তাদের নিকট থেকেই হোক তা শিক্ষা করা ফরয। তদ্রুপ ইলমে তাছাওউফ উনার জন্যও ওস্তাদ গ্রহণ করা ফরয। আর এ ওস্তাদ উনাকেই আরবীতে ‘শায়েখ’ বা ‘মুর্শিদ’ বলা হয়। কাজেই, আনজুমান আমীলসহ প্রত্যেক মুসলমান পুরুষ-মহিলা, জিন-ইনসান সকলের জন্যই একজন কামিল শায়েখ বা মুর্শিদ ক্বিবলা উনার নিকট বাইয়াত হওয়া ফরয। অর্থাৎ একজন কামিল শায়েখ বা মুর্শিদ ক্বিবলা উনার নিকট বাইয়াত গ্রহণ করে, ছোহবত ইখতিয়ার করে, সবক্ব আদায়ের মাধ্যমে অন্তর পরিশুদ্ধ করে ইখলাছ হাছিল করতে হবে। এটাই সম্মানিত শরীয়ত উনার ফায়ছালা।

 

 

মাহফিল সংবাদ

 

পৃথিবীর ইতিহাসে নজীরবিহীন অনন্তকালব্যাপী জারীকৃত পবিত্র সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ মাহফিল চলমান

খ্বলীফাতুল্লাহ, খ্বলীফাতু রসূলিল্লাহ, ইমামুল আইম্মাহ, মুহইউস সুন্নাহ, কুতুবুল আলম, সাইয়্যিদে মুজাদ্দিদে আ’যম, আওলাদে রসূল সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুল উমাম আলাইহিস সালাম উনার কর্তৃক জারীকৃত পৃথিবীর ইতিহাসে নজীরবিহীন অনন্তকালব্যাপী পবিত্র সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ মাহফিল প্রতিদিন বাদ মাগরিব হতে রাজারবাগ শরীফ পবিত্র সুন্নতী জামে মসজিদে অনুষ্ঠিত হচ্ছেন।

মহাসম্মানিত সাইয়্যিদু সাইয়্যিদিল আ’দাদ শরীফ তথা১২ই শরীফসহ অন্যান্য আইয়্যামুল্লাহ

শরীফ পালিত

রাজারবাগ শরীফ সুন্নতি মসজিদে মহাসম্মানিত মহাপবিত্র সাইয়্যিদু সাইয়্যিদিল আ’দাদ শরীফ তথা ১২ই শরীফ উপলক্ষে বিগত মাসসমূহের প্রতি ১২ই শরীফে আজিমুশ্বান মাহফিল এবং কোটি কোটি কণ্ঠে পবিত্র মীলাদ শরীফ অনুষ্ঠিত হয়।

আজিমুশ্বান এই মাহফিলে কুতুবুল আলম, আওলাদে রসূল নকশায়ে হায়দার, বাহরুল ইলম ওয়াল হিকাম সাইয়্যিদুনা হযরত শাফিউল উমাম আলাইহিস সালাম এবং আওলাদে রসূল, নকশায়ে গণি, বাহরুল ইলম ওয়াল হিকাম, সাইয়্যিদুনা হযরত হাদিউল উমাম আলাইহিস সালাম উনারা মুবারক নছীহত করেন এবং সকল জেলা ও ঢাকাস্থ আনজুমানের ১২টি বিষয়ের অগ্রগতি প্রতিবেদন দেখেন।

আজিমুশ্বান মাহফিলের অংশ হিসেবে বাদ ফজর পবিত্র কোটি কোটি কণ্ঠে মীলাদ শরীফ অনুষ্ঠিত হয়। এতে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে অনলাইনে আশিকীন, মুহিব্বীন, মুরিদীন ও ভক্তবৃন্দ অংশগ্রহণ করেন। কোটি কোটি কণ্ঠে পবিত্র মীলাদ শরীফ পাঠ শেষে ঢাকা মহানগরের বিভিন্ন এলাকায় পবিত্র মীলাদ শরীফ পাঠ এবং তবারুক বিতরণ করা হয়। বাদ যোহর নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মুবারক শানে আক্বীকা মুবারক করা হয়। যা পৃথিবীর ইতিহাসে নজীরবিহীন।

উল্লেখ্য সকল আইয়্যামুল্লাহ শরীফ উপলক্ষে আজীমুশ্বান নছীহত মুবারক, সামা শরীফ, মীলাদ শরীফ, ক্বিয়াম শরীফ, বিশেষ মক্ববুল দোয়া-মুনাজাত শরীফ অনুষ্ঠিত হয় এবং দৈনিক আল ইহসান শরীফ উনার বিশেষ সংখ্যা, বিশেষ রেসালা শরীফ প্রকাশ করা হয়।

মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র ‘ফালইয়াফরাহু শরীফ’ মাহফিল চলমান

রাজারবাগ শরীফ মুহম্মদিয়া জামিয়া শরীফ বালিকা মাদরাসায় প্রতিদিন দুপুর ১২:৪০ মি. থেকে এবং আইয়্যামুল্লাহ শরীফসমূহে ‘ফাল ইয়াফরাহু’ মাহফিলসহ অন্যান্য সমস্ত মাহফিল অনুষ্ঠিত হচ্ছেন। সুবহানাল্লাহ!

মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র মাহফিল সমূহে প্রধান অতিথি হিসেবে তাশরীফ মুবারক নেন, সাইয়্যিদাতুন নিসা, আফযালুন নিসা, ইমামাতুছ ছিদ্দীক্বা, উম্মুল উম্মাহাত, আফদ্বালুন নিসা বা’দা ওয়া উম্মাহাতিল মু’মিনীন আলাইহিন্নাস সালাম, কায়িম মাক্বামে উম্মাহাতুল মু’মিনীন, নুরে জাহান, আল মাবরুরা, আল মাহযুবা, আল ক্বারীবা ওয়াল মুক্বাররিবা, হাবীবাতুল্লাহ, আখাছছুল খাছ আহলু বাইতি রসূলিল্লাহি ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, উম্মুল উমাম সাইয়্যিদাতুনা হযরত আম্মা হূযুর ক্বিবলা আলাইহাস সালাম তিনি।

উল্লেখ্য উনার মুবারক পৃষ্ঠপোষকতায় উক্ত মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র ‘ফালইয়াফরাহু শরীফ  মাহফিল’ প্রতিদিনই চলমান রয়েছে।

আনজুমানে আল বাইয়্যিনাত ও মাহফিল সংবাদ

আনজুমানে আল বাইয়্যিনাত সংবাদ

আনজুমানে আল বাইয়্যিনাত ও মাহফিল সংবাদ

আনজুমানে আল বাইয়্যিনাত ও মাহফিল সংবাদ

আনজুমানে আল বাইয়্যিনাত ও মাহফিল সংবাদ