ঈমানদীপ্ত সম্মানিত মহিলা: সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খতামুন্নাবিয়্যীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার প্রতি বেমেছাল মুহব্বত মুবারক

সংখ্যা: ২৯০তম সংখ্যা | বিভাগ:

উহুদের জিহাদ সংগঠিত হলো। ইবলিস মিথ্যা কথা ছড়িয়ে দিল যে, সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খতামুন্নাবিয়্যীন, নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি শাহাদাতী শান মুবারক প্রকাশ করেছেন। নাউযুবিল্লাহ।

তখন সমস্ত হযরত ছাহাবায়ে কিরাম রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুম উনারা চিন্তিত হলেন। যেহেতু উহুদের ময়দান পবিত্র মদীনা শরীফ থেকে ৩ মাইল দূরবর্তী ছিল তখন। যারা পুরুষ ছাহাবী রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুম উনারা অবশ্যই জিহাদের দিকে ধাবিত হলেন, প্রানপন দিয়ে জিহাদ করতে থাকলেন। আর হযরত মহিলা ছাহাবীয়া রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুন্না যারা ছিলেন, উনারাও সেই উহুদের ময়দানের দিকে ধাবিত হলেন। বিষয়টি তাহক্বীক্ব করার জন্য। উনাদের মধ্যে একজন বিশিষ্ট মহিলা ছাহাবীয়া রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহা তিনি খুব দ্রুত গতিতে যাচ্ছিলেন, তিনি যখন যাচ্ছিলেন, তখন হযরত ছাহাবায়ে কিরাম রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুম উনারা জিহাদ প্রায় শেষ করে কেউ কেউ প্রত্যাবর্তন করতেছিলেন। আর কাফিররা তো পালিয়েছে। সেই অবস্থায় সেই হযরত ছাহাবীয়া রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহা তিনি যাচ্ছিলেন দ্রুত গতিতে।

যখন কিছু হযরত ছাহাবায়ে কিরাম রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুম উনাদের সাথে সাক্ষাত হলো তখন তিনি জানতে চাইলেন, মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র হাবীব, মাহবুব নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহু হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি কোথায় আছেন, কেমন আছেন। তখন সেই ছাহাবায়ে কিরাম রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুম উনাদের জানা ছিল না। উনারা বললেন, হে মহিলা ছাহাবীয়া রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহা, আপনার যিনি পিতা তিনি তো জিহাদে শহীদ হয়ে গেছেন। তিনি বললেন, আমি তো আমার পিতা সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করিনি। আমি জানতে চেয়েছি, মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র হাবীব মাহবূব নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি কোথায় আছেন, কেমন আছেন। তখন উনারা বললেন, আপনি সামনে দিকে অগ্রসর হোন জানতে পারবেন। তিনি আরো দ্রুত গতিতে অগ্রসর হলেন।

তিনি কিছু দূর যাওয়ার পরে আরো কিছু ছাহাবায়ে কিরাম রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুম উনাদের সাথে সাক্ষাত হলো। তিনি একই প্রশ্ন করলেন। যে মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র হাবীব, মাহবূব নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি কোথায় আছেন, কেমন আছেন। উনারা জবাবে বললেন, আপনার যিনি ভাই তিনি জিহাদে শহীদ হয়েছেন। তিনি বললেন, আমি তো আমার ভাই সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করিনি। আমি জানতে চেয়েছি, মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র হাবীব, মাহবূব নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি কোথায় আছেন, কেমন আছেন। উনারা বললেন, আপনি সামনে অগ্রসর হোন।

তিনি আরো দ্রুত গতিতে ধাবিত হলেন। আরো কিছুদুর যাওয়ার পরে আরো কিছু ছাহাবায়ে কিরাম রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুম উনাদের সাথে সাক্ষাত হলো। উনি আবার জানতে চাইলেন, মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র হাবীব, মাহবূব নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি কোথায় আছেন, কেমন আছেন। উনারা জবাব দিলেন, আপনার যিনি ছেলে তিনি জিহাদে শহীদ হয়েছেন। তিনি জবাব দিলেন, আমি তো আমার ছেলে সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করিনি। আমি জানতে চেয়েছি, মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র হাবীব, মাহবূব নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি কোথায় আছেন, কেমন আছেন। উনারা বললেন, আপনি আরো সামনে অগ্রসর হোন। তিনি আরো কিছুটা অগ্রসর হলেন। আরো কয়েকজন ছাহাবায়ে কিরাম রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুম উনাদের সাথে সাক্ষাত হলো। তিনি উনাদেরকে জিজ্ঞাসা করলেন, যে মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র হাবীব, মাহবূব নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি কেমন আছেন, কোথায় আছেন। উনারা বললেন, আপনার যিনি স্বামী-আহাল তিনিতো জিহাদে শহীদ হয়েছেন। সেই মহিলা ছাহাবীয়া রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহা বললেন, আমি তো আপনাদেরকে আমার আহাল সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করিনি। আমি জানতে চেয়েছি, যে মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র হাবীব, মাহবূব নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি কোথায় আছেন, কেমন আছেন। উনারা বললেন, আপনি সামনে অগ্রসর হোন, জানতে পারেবেন। সত্যিই তিনি যখন আরো সামনে গেলেন, এক স্থানে দেখতে পেলেন, কিছু ছাহাবায়ে কিরাম রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুম উনারা জমা হয়ে ঘেড়াও করে আছেন। সেখানে মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র হাবীব, মাহবূব নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি অত্যন্ত ইতমিনানের সাথে অবস্থান মুবারক করতেছিলেন।

সেই মহিলা ছাহাবীয়া রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহা তিনি সেখানে গেলেন, দেখলেন, দেখে তিনি বললেন,

كُلُّ مُصِيْبَةٍ بَعْدَكَ جَلَلَ يَارَسُوْلَ اللهِ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ

অর্থ: ইয়া রসূলাল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম! আপনাকে দেখার পর আমার সমস্ত মুছীবত  দূর হয়ে গিয়েছে। সুবহানাল্লাহ!

এটা বলে তিনি সামনে জমীনের মধ্যে বসে গেলেন। তিনি বললেন, “কুল্লু মুছীবাতিন বা’দাকা জালাল ইয়া রসূলাল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম।” তিনি বললেন, আমার পরিবারের মধ্যে ৪ জন জিহাদ করতে এসেছিলেন। পিতা, ভাই, ছেলে, আহাল। এই ৪ জন এসেছিলেন ওহুদের জিহাদে জিহাদ করার জন্য।

উনারা ৪ জনই শাহাদাতী শান মুবারক প্রকাশ করেছেন। এই সংবাদ আমাকে দেয়া হয়েছে। অবশ্যই এটা একজন মহিলার জন্য অত্যন্ত কষ্টের কারণ। কিন্তু তার পরেও ইয়া রসূলাল্লাহ ইয়া হাবীবাল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, কুল্লু মুছীবাতিন বা’দাকা জালাল, আপনাকে পরিপূর্ণ ইতমিনাম এই হাল মুবারক দেখার কারণে আমার সমস্ত মুছীবতগুলি দূর হয়ে গেছে। সুবহানাল্লাহ।

আপনাকে দেখার পরে আমার সমস্ত কষ্টগুলি মুছীবতগুলি আপনার মুহব্বত মুবারকে দূর হয়ে গেছে। সুবহানাল্লাহ!

মহান আল্লাহ পাক তিনি সবাইকে হযরত ছাহাবায়ে কিরাম রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুম উনাদের অনুসরণে মুহব্বত করার তাওফীক্ব দান করুন।

-তাসনীম আহমদ খান

প্রচলিত হারাম রছম করুন বর্জন, পবিত্র দ্বীন পালনেই কামিয়াবী অর্জন

ঈমানদীপ্ত সম্মানিত মহিলা হযরত আসমা বিনতে ইয়াযীদ রদ্বিয়াল্লাহু তা’য়ালা আনহা

পিতা-মাতার দায়িত্ব সন্তানের সুন্দর শরীয়ত সম্মত নাম রাখা

ঈমানদীপ্ত সম্মানিত মহিলা: হযরত উম্মে সুলাইম রদ্বিয়াল্লাহু তা’য়ালা আনহা উনার দাওয়াতে আহালের দ্বীন ইসলাম গ্রহণ

ঈমানদীপ্ত সম্মানিত মহিলা: সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খতামুন নাবিয়্যীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার প্রতি বেমেছাল মুহব্বত  ও খিদমত