ছাহিবাতু সাইয়্যিদি সাইয়্যিদিল আ’ইয়াদ শরীফ, সাইয়্যিদাতু নিসায়িল আলামীন, হাবীবাতুল্লাহ, ছাহিবায়ে নেয়ামত, ক্বায়িম মাক্বামে হযরত উম্মাহাতুল মু’মিনীন আলাইহিন্নাস সালাম,সাইয়্যিদাতুনা হযরত উম্মুল উমাম আলাইহাস সালাম উনার মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র ই’জায শরীফ

সংখ্যা: ২৯১তম সংখ্যা | বিভাগ:

খলিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক উনার বিষয়গুলো মহাপবিত্র কুদরত মুবারক উনার অন্তার্ভূক্ত। সাইয়্যিদুল মুরসালীন ইমামুল মুরসালীন  নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ  হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সংশ্লিষ্ট প্রতিটি বিষয় হচ্ছেন মহাপবিত্র মহাসম্মানিত মু’যিযা শরীফ। মু’যিযা শরীফ ব্যতীত তো সৃষ্টি জগৎ অক্ষম। আর মহাসম্মানিত মহাপবিত্র হযরত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের বিষয়গুলি ‘পবিত্র ইজায শরীফ’।

হযরত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের দয়া দান ইহসান মুবারক অর্থাৎ উনাদের মহাপবিত্র ইজায শরীফ’ উনার মাধ্যমেই আসমান-জমিন নিরাপত্তা লাভ করছে, রহমত-বরকত-সাকিনা লাভ করছে। মহাপবিত্র ই’জায শরীফ’ ব্যতীত এক মুহুর্তও কায়িনাত স্থায়ী হবে না।

মহাসম্মানিত সাইয়্যিদাতুনা হযরত উম্মুল উমাম আলাইহাস সালাম তিনি মহাপবিত্র মহাসম্মানিত হযরত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের অন্যতম। তিনি মহান আল্লাহ পাক উনার এবং উনার হাবীব ও মাহবুব সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন  নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ  হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার হাক্বীক্বী ক্বায়িম-মাক্বাম। উনারই আখাছছুল খাছ বিশেষ শান মুবারক সম্পর্কে ধারাবাহিকভাবে আলোচনা করা হবে। ইনশাআল্লাহ!

(৫) একজন পীরবোন জানান, উনার বিয়ের প্রায় ছয় বছর হয়ে যায় তবুও তিনি মা হতে পারছিলেন না। এ অবস্থায় তিনি ডাক্তার দেখান। ডাক্তার উনাকে বলে, “আপনার এমন সমস্যা রয়েছে যার কারণে আপনাকে অপারেশন করাতে হবে।” ডাক্তার আরো বলে, “অপারেশন করার পর আপনি মা হতেও পারেন আবার নাও হতে পারেন।” অর্থাৎ অপারেশন করার পর যে সন্তান হবে এ ব্যাপারে তারা কোন নিশ্চয়তা দিতে পারেনি। তখন উক্ত পীরবোন তিনি সাইয়্যিদাতুনা হযরত উম্মুল উমাম আলাইহাস সালাম উনার নিকট এসে কান্নাকাটি করে বিষয়টি জানান এবং দোয়া মুবারক আরজু করেন।

সাইয়্যিদাতুনা হযরত উম্মুল উমাম আলাইহাস সালাম তিনি উনাকে দোয়া মুবারক দান করেন এবং তেল, পানি, কালোজিরা ব্যবহার করতে বলেন। তিনি পবিত্র সাইয়্যিদু সাইয়্যিদিল আ’ইয়াদ শরীফ উনার খিদমতের নিয়ত করতে বলেন। দেখা গেল, এর কিছুদিন পরে কোন প্রকার চিকিৎসা ব্যতীতই তিনি হামেলাহ হন (সন্তান ধারণ করেন) এবং পরবতীর্তে উক্ত পীরবোন উনার খুবই সুন্দর ফুটফুটে একজন ছেলে সন্তান জন্ম গ্রহণ করে। সুবহানাল্লাহ!

মহান আল্লাহ পাক তিনি পবিত্র সূরা আলে-ইমরান শরীফ উনার ৪৭ নং পবিত্র আয়াত শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক করেন,

اِذَا قَضٰٓى اَمْرًا فَاِنَّمَا يَـقُوْلُ لَهٗ كُنْ فَـيَكُوْنُ

অর্থ: “আর যখন তিনি কোন কিছুর ইচ্ছা মুবারক পোষণ করেন তখন তাকে বলেন, কুন অর্থাৎ হও অতঃপর তা হয়ে যায়।”

সাইয়্যিদাতুনা হযরত উম্মুল উমাম আলাইহাস সালাম তিনি উক্ত পবিত্র আয়াত শরীফ উনার পরিপূর্ণ মিছদাক্ব। তিনিও ছহিবায়ে কুন-ফায়াকুন। তিনি কোন কিছুর ইচ্ছা মুবারক করলে তা কুদরতিভাবে হয়ে যায়। ডাক্তাররা পর্যন্ত উক্ত পীরবোনকে নিশ্চিত করে কিছু বলতে পারেনি অর্থাৎ পীরবোনকে কোন আশা দিতে পারেনি, সেখানে সাইয়্যিদাতুনা হযরত উম্মুল উমাম আলাইহাস সালাম উনার দয়া-ইহসান মুবারকে মহান আল্লাহ পাক তিনি উক্ত পীরবোনকে একজন ছেলে সন্তান হাদিয়া করেছেন। তাই যখন কেউ উক্ত পীরবোনের কাছে সাইয়্যিদাতুনা হযরত উম্মুল উমাম আলাইহাস সালাম উনার ই’জায মুবারক সম্পর্কে জানতে চান, তিনি সর্বদাই উনার ছেলেকে দেখিয়ে বলেন, “আমার এই ছেলে সাইয়্যিদাতুনা হযরত উম্মুল উমাম আলাইাহস সালাম উনার সবচেয়ে বড় ই’জায মুবারক।” সুবহানাল্লাহ!

মহান আল্লাহ পাক তিনি যেন আমাদেরকে সাইয়্যিদাতুনা হযরত উম্মুল উমাম আলাইহাস সালাম উনার পবিত্র ক্বদম মুবারকে দায়েমীভাবে ইস্তিক্বামত থাকার মাধ্যমে নিয়ামত মুবারক হাছিল করার তাওফীক্ব দান করেন। আমীন!

-আহমদ ত্বলায়াল বুশরা

প্রচলিত হারাম রছম করুন বর্জন, পবিত্র দ্বীন পালনেই কামিয়াবী অর্জন

ঈমানদীপ্ত সম্মানিত মহিলা হযরত আসমা বিনতে ইয়াযীদ রদ্বিয়াল্লাহু তা’য়ালা আনহা

পিতা-মাতার দায়িত্ব সন্তানের সুন্দর শরীয়ত সম্মত নাম রাখা

ঈমানদীপ্ত সম্মানিত মহিলা: হযরত উম্মে সুলাইম রদ্বিয়াল্লাহু তা’য়ালা আনহা উনার দাওয়াতে আহালের দ্বীন ইসলাম গ্রহণ

ঈমানদীপ্ত সম্মানিত মহিলা: সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খতামুন নাবিয়্যীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার প্রতি বেমেছাল মুহব্বত  ও খিদমত