তাফসীরুল কুরআন: সুমহান সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ পালনই সর্বশ্রেষ্ঠ আমল

সংখ্যা: ২৭১তম সংখ্যা | বিভাগ:

يَا اَيُّهَا النَّاسُ قَدْ جَاءَتْكُمْ مَّوْعِظَةٌ مِّنْ رَّبِّكُمْ وَشِفَاءٌ لِّمَا فِىْ الصُّدُوْرِ. وَهُدًى وَّرَحْمَةٌ لِّلْمُؤْمِنِيْنَ. قُلْ بِفَضْلِ اللهِ وَبِرَحْمَتِهٖ فَبِذٰلِكَ فَلْيَفْرَحُوْا هُوَ خَيْرٌ مِّـمَّا يَجْمَعُوْنَ

তরজমা: “হে মানুষেরা! তোমাদের রব তায়ালা উনার তরফ থেকে তোমাদের নিকট এসেছেন মহান নছীহতকারী, অন্তরের মহান আরোগ্য দানকারী, মহান হিদায়েত দানকারী এবং মু’মিনদের জন্য মহান রহমত দানকারী। (অতএব, আমার হাবীব ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম!) আপনি (উম্মতদেরকে) বলে দিন, মহান আল্লাহ পাক উনার সম্মানিত ফদ্বল ও সম্মানিত রহমতসরূপ আপনাকে যে তারা পেয়েছে, সেজন্য তাদের প্রতি কর্তব্য তথা ফরয হচ্ছে খুশি প্রকাশ করা। এই খুশি প্রকাশের ইবাদত হবে তাদের সমস্ত ইবাদত বা আমল অপেক্ষা উত্তম বা শ্রেষ্ঠ।” (পবিত্র সূরা ইউনুস শরীফ: পবিত্র আয়াত শরীফ ৫৭, ৫৮)

তাফসীর: উক্ত পবিত্র আয়াত শরীফ উনার মধ্যে প্রথমতঃ হায়াতুন নবী, শাহিদুন নবী, মুত্তালা’ আলাল গইব, হাযির ও নাযির, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার যমীনে তাশরীফ মুবারক গ্রহণ তথা পবিত্র বিলাদতী শান মুবারক প্রকাশের আলোচনা করা হয়েছে। আর দ্বিতীয়তঃ নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাকে মহান আল্লাহ পাক উনার সর্বশ্রেষ্ঠ মুবারক নিয়ামত ও রহমত স্বরূপ উল্লেখ করা হয়েছে এবং সেই মহান নিয়ামত ও রহমত প্রাপ্তির কারণে শুকরিয়া আদায় স্বরূপ খুশি প্রকাশ করার জন্য আদেশ মুবারক করা হয়েছে।

নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার যমীনে তাশরীফ মুবারক গ্রহণ তথা বিলাদতী শান মুবারক প্রকাশের ব্যাপারে মহান আল্লাহ পাক তিনি অনেক পবিত্র আয়াত শরীফ নাযিল করেছেন। যেমন পবিত্র সূরা আলে ইমরান শরীফ উনার ৮১ নং পবিত্র  আয়াত শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুাবরক হয়েছে-

وَإِذْ أَخَذَ اللهُ مِيثَاقَ النَّبِيِّيْنَ لَمَا اٰتَيْتُكُم مِّنْ كِتَابٍ وَحِكْمَةٍ ثُمَّ جَاءَكُمْ رَسُولٌ مُّصَدِّقٌ لِّمَا مَعَكُمْ لَتُؤْمِنُنَّ بِهٖ وَلَتَنْصُرُنَّهُ ۚ قَالَ أَأَقْرَرْتُمْ وَأَخَذْتُمْ عَلٰى ذٰلِكُمْ إِصْرِي ۖ قَالُوْا أَقْرَرْنَا ۚ قَالَ فَاشْهَدُوْا وَأَنَا مَعَكُم مِّنَ الشَّاهِدِيْنَ

অর্থ: মহান আল্লাহ পাক তিনি হযরত নবী- মহাসম্মানিত রসূল আলাইহিমুস সালাম উনাদের কাছ থেকে এই মর্মে ওয়াদা নিলেন যে, আমি আপনাদেরকে কিতাব ও হিকমত দান করবো। অতঃপর আপনাদেরকে প্রদত্ব কিতাবসমূহের সত্যায়নকারী হিসেবে একজন রসূল অর্থাৎ যিনি আখিরী রসূল, সাইয়্যিদুল আম্বিয়া ওয়াল মুরসালীন, রহমাতুল্লিল আলামীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি তাশরীফ আনবেন। আপনারা অবশ্যই উনার প্রতি ঈমান আনবেন এবং উনার মুবারক গোলামীর আঞ্জাম দিবেন। মহান আল্লাহ পাক তিনি বললেন, আপনারা কি আপনাদের প্রতি আমার এ ওয়াদা স্বীকার করলেন এবং গ্রহণ করলেন? উনারা বললেন, হ্যাঁ, আমরা স্বীকার করে নিলাম। তখন মহান আল্লাহ পাক তিনি বললেন, তাহলে আপনারা সাক্ষী থাকুন এবং আমিও আপনাদের সাথে সাক্ষী রইলাম।

অত্র পবিত্র আয়াত শরীফ উনার মধ্যে স্বয়ং খ¦ালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক তিনি উনার শ্রেষ্ঠতম রসূল, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার যমীনে তাশরীফ মুবারক গ্রহণ তথা বিলাদতী শান মুবারক প্রকাশের সুসংবাদ সকল হযরত নবী-রসূল আলাইহিমুস সালাম উনাদের নিকট প্রকাশ করেছেন। তাই নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সুমহান বিলাদতী শান মুবারক প্রকাশের বিষয় আলোচনা করা সুন্নাতুল্লাহ মুবারক উনার অন্তর্ভুক্ত। সুবহানাল্লাহ!

পবিত্র সূরা আছছফ শরীফ উনার ৬নং পবিত্র আয়াত শরীফ উনার মধ্যে মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন-

وَإِذْ قَالَ عِيسَى ابْنُ مَرْيَمَ يَا بَنِيْ إِسْرَائِيْلَ إِنِّـيْ رَسُوْلُ اللهِ إِلَيْكُمْ مُّصَدِّقًا لِّمَا بَيْنَ يَدَيَّ مِنَ التَّوْرَاةِ وَمُبَشِّرًا بِرَسُوْلٍ يَّأْتِـيْ مِنْ بَعْدِيْ اِسْمُه أَحْمَدُ

অর্থ: আর স্মরণ করুন সেই সময়ের কথা যখন হযরত ঈসা রূহুল্লাহ আলাইহিস সালাম তিনি বললেন, হে বনী ইসরাইল! আমি তোমাদের প্রতি মহান আল্লাহ পাক উনার রসূল হিসেবে প্রেরিত হয়েছি। তোমাদের নিকট পূর্ববর্তী তাওরাত শরীফ কিতাবের আমি সত্যায়নকারী এবং আমি এমন একজন মহাসম্মানিত রসূল ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সুসংবাদ মুবারক প্রদানকারী যিনি আমার পরে মুবারক তাশরীফ আনবেন, উনার নাম মুবারক হবেন মহাসম্মানিত আহমদ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম।

 

তাফসীরুল কুরআন- সুমহান সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ পালনই সর্বশ্রেষ্ঠ আমল

তাফসীরুল কুরআন: সুমহান সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ পালনই সর্বশ্রেষ্ঠ আমল

তাফসীরুল কুরআন- সুমহান সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ পালনই সর্বশ্রেষ্ঠ আমল

তাফসীরুল কুরআন সুমহান সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ পালনই সর্বশ্রেষ্ঠ আমল

তাফসীরুল কুরআন: সুমহান সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ পালনই সর্বশ্রেষ্ঠ আমল