হযরত আহলে বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের মকবুলে মাসিক আল বাইয়্যিনাত শরীফ রহেন উজ্জ্বলে-১৬৩

সংখ্যা: ২৮০তম সংখ্যা | বিভাগ:

বা’দাল ইলাহী হাবীবী শান,

উনার নূরেই সৃষ্টি তামাম শুনো হে জ্বিন ইনসান।

উনিই আউওয়াল উনিই আখির হাযির নাযির সবিস্থান,

উনাতে প্রকাশ স্বয়ং স্রষ্টা কুদরতে রহমান।

সেই সে রসূল সৃষ্টির মূল উনার খুশিতে খুশি খোদা,

উনার ছলাত সালাম পড়েন রব্বী যে সর্বদা।

সেই পাক হাবীবী শানে গৌরবে ছলাত পড়িতে রব,

সর্বশেষ করেন আদেশ সৃষ্টিকুলেরে সব।

বলেন, জগতে উনার আগমন দিন সর্বশ্রেষ্ঠ ঈদ,

রহেন খালিক্ব ও খল্ক্ব সেই ঈদে ঠিক হরদমে তাহমিদ।

তারিখে আ’যম বারই শরীফ, হেথা নেই ক্বীল ও ক্বাল,

তমিজে আমূল আশিকে রসূল দেন ধ্বণি তলায়াল।

পুরো কায়িনাত করেন ইত্বায়াত ওই ঈদে বিলকুল,

তাই সমঝদারেরা ইশকে ক্বদর ঝাঁকে ঝাঁকে মশগুল।

ওই আরশ কুরসী লওহো কলম গোটা কায়িনাত মাঝে,

রহেন সাইয়্যিদুশ শুহূর রবীউল আউওয়ালে রকমারি নও সাজে।

সাইয়্যিদু সাইয়্যিদিল আ’দাদ শরীফ করতে পালন সবে

রহেন গরকে ব্যস্ততে মূল শরাফতি বেহিসাবে।

শামসু ক্বমার কোয়াছারসহ তামাম গ্লাক্সি জুড়ে,

সাড়া পড়ে যায় সাজ সাজ ধ্বণি নূরী হিল্লোলী ভীরে।

সুমহান রব খ্বলিক্ব মালিক আপন  কালাম পাকে,

দেন সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ করতে পালন নির্দেশ সৃষ্টিকে।

তাই ফালইয়াফরহূ, খুশির রুহু, কুরআন হাদীছে ফরয

করি সেই খুশি পেতে রব্বি দুয়ারে, মাখলুকাতের আরজ।

হায় হিন্দু বৌদ্ধ ইহুদী নাছারা নাস্তিক বেঈমান,

ওহাবী খারিজী তাবলীগসহ মুরতাদ শয়তান।

তারা কুটকৌশলে আবল তাবল তোহমত জুড়ে কহে,

সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ বিদয়াত শিরক প্রচার করতে চাহে।

সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, পাক হাবীবী শানে,

আহা, কালিমা লেপনে হুমড়ে পড়ে তাগুতী শরাব পানে।

ব্যঙ্গ ছবি ও কটুক্তি  করে ছেপে হায় পুস্তকে,

অনলাইনসহ সব মাধ্যমে প্রচারে বিশ্ব বুকে।

ওই কুখ্যাত কাফির দুশমনে দ্বীন, ফ্রান্সের সরকার,

হেরি, হাবীবী ব্যঙ্গ কার্টুন ছেপে দিচ্ছেই হুংকার।

তামাম তাগুত এক হয়ে আজ মুসলিম মেরে যায়,

আহা, করে উল্লাস, বকছে বেফাস বিজ্ঞানী আঙ্গিনায়।

ফের উলামায়ে ‘সূ’রা মদদ দেয় তারা, কাফির গোষ্ঠীদেরে,

তারা করতে বরবাদ সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ কুফরী গ্রহণ করে।

তাই খারিজী জামাত কাদিয়ানী সহ তামাম তাগুতী জাত,

ব্যস্ত, হাবীব শান করতে বিরান, কুটচালে দিবা-রাত।

রে মুসলমান হও সাবধান, থেকনারে আর ঘুমে,

তাগুতী তপ্ত বারুদের মুখে রবেনারে আর দমে।

দ্বিধা ও দ্বন্দ্বে থেকনা মু’মিন সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদে উঠো জেগে,

হাক্বীক্বী উম্মত হতে হলে সবে এসো হে রাজারবাগে।

এখানে আছেন নায়িবে নবী মুক্তির রবি ইকরামি গাফফার,

আছেন আহলে বাইত শীর্ষ বীর সাইয়্যিদী আত্হার।

আছেন সাইয়্যিদুনা সাইয়্যিদ আকবরি নাজ রব্বানী ইহসান,

আছেন পাক হাবীবী নূরী শমসীর, রহমানী রাইহান।

তিনি আহলে বাইতি রসূল হয়েই জগতে তাশরীফান,

করেন খলীফায়ে আসসাফফাহ হয়েই তাগুতকে খান খান।

তিনি ইমামুল উমাম রহমে আওয়াম শুনো হে মুসলিমীন,

তিনি মাহিউল বিদয়াতী তখতে বসেই নাশেন মুজরিমীন।

তিনি চৌদ্দশত বিয়াল্লিশ হিজরী তেষট্টি দিন ধরে,

ঈদে হাবীবী করেন পালন পুরো কায়িনাত জুড়ে।

কেবল তিনিই দেখান বেমিছাল ঈদে রবীউল আউওয়ালে,

বিরল চমকে চমকান তিনি গর্বিত উজ্জ¦লে।

তিনি পাঁচ শতাধিক পশু কুরবানী করলেন এই ঈদে,

দেন একশত গরু ও চারশ খাসি ইখলাছি গদ গদে।

ফের বিরল ইতিহাস তিনিই গড়েন অনন্তকাল ব্যাপী,

সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ করে জারি সকল বাধারে ছাপি।

বলেন, করতে পালন সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ ওরে ও মুসলমান,

শহর গ্রাম জেলা থানাসহ সকল প্রতিষ্ঠান।

সব করো সজ্জিত নূরে আপ্লুত বিশ্ববাসীরে ডেকে,

জমায়েত করে দাওরে বুঝিয়ে, নন্দিত আখলাকে।

তিনি হাজার হাজার বাহন সাজিয়ে প্রচারেন দেশময়,

সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদী শ্রেষ্ঠ ঈদ নেই এতে সংশয়।

কোটি কোটি টাকার খাদ্য খাওয়ান তবারুকী নন্দিতে,

রাখেন ছহীহ হাদীছি আমল জারি অধুনা ধরিত্রীতে।

মোরা মুসলিম আশিকে রসূল শপথ লইছি সবে,

সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদী দুশমনদেরে ধ্বংস করবো ভবে।

হাবীবী দুশমন, রবে যতক্ষণ জীবিত ধরার  বুকে,

মোদের অভিযান, রহে ত্যাজিয়ান পৃথিবীর চৌদিকে।

ওরে ও তাগুতী পোষ্যের দল শুনে রাখ কান খুলে,

মুজাদ্দিদে আ’যম ইমামুল উমাম তোদেরে দিলেন বলে।

হক্বটা জারি করতেই মোরা নূয়ে না পড়বো কহি,

আমরা হামিশা করছি জিহাদ সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ গ্রহি।

-বিশ্বকবি মুহম্মদ মুফাজ্জলুর রহমান।

আল বাইয়্যিনাত উনার দলীলের বলে, নাস্তিকদের হাক্বীক্বত গেল খুলে-১১৫

আল বাইয়্যিনাত উনার দলীলের বলে, মুনাফিক রহে পদতলে-১১৬

আল বাইয়্যিনাত উনার দলীলের বলে, মুনাফিক রহে পদতলে-১১৭

আল বাইয়্যিনাত উনার দলীলের বলে, আউলিয়াগণ রহেন উজ্জ্বলে-১১৮

আল বাইয়্যিনাত উনার দলীলের বলে, তাগুতীরা রহে পদতলে-১১৯