আনজুমানে আল বাইয়্যিনাত ও মাহফিল সংবাদ

সংখ্যা: ২৩০তম সংখ্যা | বিভাগ:

আল বাইয়্যিনাত শরীফ প্রতিবেদন : যামানার খাছ লক্ষ্যস্থল ওলীআল্লাহ, যামানার ইমাম ও মুজতাহিদ, খলীফাতুল্লাহ, খলীফাতু রসূলিল্লাহ, ইমামুল আইম্মাহ, মুহইস সুন্নাহ, কুতুবুল আলম, আওলাদে রসূল, মুজাদ্দিদে আ’যম, সাইয়্যিদুনা ইমাম রাজারবাগ শরীফ উনার মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম তিনি বলেন, মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “(হে আমার হাবীব ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম!) আপনি বলুন, মহান আল্লাহ পাক উনার ফযল ও রহমত অর্থাৎ আমাকে পাওয়ার কারণে তোমাদের উচিত ঈদ বা খুশি প্রকাশ করা।’

অর্থাৎ পবিত্র ঈদে মীলাদুন নবী ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম পালন করা; যা পবিত্র সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ। অর্থাৎ যেদিন আখিরী রসূল, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি যমীনে তাশরীফ মুবারক আনেন- সেদিন মহাসম্মানিত, মহামর্যাদাবান, সুমহান, অশেষ বরকতময় ও বেমেছাল ফযীলতপূর্ণ পবিত্র ১২ই রবীউল আউওয়াল শরীফ। আর সেদিনই হচ্ছেন পবিত্র সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ উনার দিন। আর এ কারণেই পবিত্র রবীউল আউওয়াল শরীফই হচ্ছেন- সাইয়্যিদুল আসইয়াদ, সাইয়্যিদুশ শুহুর, শাহরুল আ’যম।

মুজাদ্দিদে আ’যম, সাইয়্যিদুনা ইমাম রাজারবাগ শরীফ উনার মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম তিনি পবিত্র সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ উনার বেমেছাল শান-মান, মর্যাদা-মর্তবা ও ফাযায়িল-ফযীলত মুবারক ফযীলত সম্পর্কে এক ক্বওল শরীফ উনার মধ্যে এসব কথা বলেন।

মুজাদ্দিদে আ’যম, সাইয়্যিদুনা ইমাম রাজারবাগ শরীফ উনার মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম তিনি বলেন, পবিত্র ১২ই রবীউল আউওয়াল শরীফই হচ্ছেন কুল-কায়িনাতের সর্বশ্রেষ্ঠ ঈদ উনার দিন; যা সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ, সাইয়্যিদে ঈদে আ’যম, সাইয়্যিদে ঈদে আকবর পবিত্র ঈদে মীলাদুন নবী ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম। আর সেদিন পালন করা মুসলমান তো অবশ্যই, এমনকি জিন-ইনসানসহ সমস্ত কায়িনাতের জন্য ফরয এবং নাজাত লাভের কারণ।

মুজাদ্দিদে আ’যম, সাইয়্যিদুনা ইমাম রাজারবাগ শরীফ উনার মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম তিনি বলেন, মহান আল্লাহ পাক উনার যমীনে এমন একটি মহান ও সম্মানিত আমল রয়েছে সেই মহাসম্মানিত পবিত্র আমলটি হলো আখিরী রসূল, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার পবিত্র বিলাদত শরীফ উপলক্ষে খুশি প্রকাশ করা।

মুজাদ্দিদে আ’যম, সাইয়্যিদুনা ইমাম রাজারবাগ শরীফ উনার মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম তিনি বলেন, সেই মহান আমল উনার যে কত ফযীলত রয়েছে সে সম্পর্কে উৎকৃষ্ট উদাহরণ হলো- আবু লাহাব। আবু লাহাব কাট্টা কাফির ও চির জাহান্নামী। যে সারাজীবন পবিত্র দ্বীন ইসলাম উনার এবং মহান আল্লাহ পাক উনার রসূল, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার কঠিন বিরোধিতা করার পরও আবু লাহাব নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি দুনিয়ার যমীনে তাশরীফ মুবারক নেয়ার সংবাদটি শুনতে পেয়ে তার বাঁদী হযরত ছুয়াইবাহ আলাইহাস সালাম উনাকে আযাদ করে খুশি প্রকাশ করেছিল। যেখানে জাহান্নামীদের জন্য পবিত্র জান্নাত উনার নিয়ামত হারাম; সেখানে এ খুশি প্রকাশ কারণে কাট্টা কাফির চির জাহান্নামী আবু লাহাবকে প্রতি ইয়াওমুল ইছনাইনিল আযীমি বা সোমবার শরীফ বিশেষ ব্যবস্থায় শীতল পানি পান করানো হয়। এই শীতল পানি পান করার কারণে তার বিগত এক সপ্তাহের সমস্ত আযাব-গযব তার নিকট অনুভূত হয় না।

মুজাদ্দিদে আ’যম, সাইয়্যিদুনা ইমাম রাজারবাগ শরীফ উনার মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম তিনি বলেন, যদি আখিরী রসূল, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার পবিত্র বিলাদত শরীফ উনার রাত্রিতে আনন্দিত হয়ে খুশি প্রকাশ করার কারণে জাহান্নামেও তার পুরস্কার দেয়া হয়ে থাকে; তবে আখিরী রসূল, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার উম্মতের কোনো মুসলমান তথা আনজুমান উনার আমিলগণ যদি সাইয়্যিদে ঈদে আ’যম, সাইয়্যিদে ঈদে আকবর পবিত্র ঈদে মীলাদুন নবী ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তথা পবিত্র সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ উপলক্ষে খুশি প্রকাশ করে তার সাধ্যানুযায়ী টাকা-পয়সা ইত্যাদি খরচ করে, তাহলে তাদের অবস্থা কিরূপ হবে? নিশ্চয়ই খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ তায়ালা তিনি উনার ফযল ও করমে অবশ্যই অবশ্যই তাকে নিয়ামতপূর্ণ জান্নাতে প্রবেশ করাবেন। সুবহানাল্লাহ!

উল্লেখ্য পবিত্র সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ উনার সম্মানার্থে আনজুমানে আল বাইয়্যিনাত উনার উদ্যোগে হযরত ‘ইমামুল উমাম আলাইহিস সালাম’ এবং ‘হযরত উম্মুল উমাম আলাইহাস সালাম’ উনাদের শান মুবারকে দুটি রেসালা শরীফ বের হয়েছে। তাছাড়া দেশব্যাপী বিতরণের জন্য পোস্টার, ব্যানার, ফেস্টুন, স্টিকার, লিফলেট, চকলেট, কলম, চাবির রিং, পেপারওয়েট, দাওয়াতপত্র, বিশেষ দিবস কার্ড, থার্মোমিটার ইত্যাদি বের করা হয়েছে।

মাহফিল সংবাদ

পবিত্র মাহে ছফর শরীফ উনার শেষ বুধবার ছিল পবিত্র আখেরী চাহার শোম্বাহ শরীফ। এছাড়া ২৮শে মাহে ছফর শরীফ ছিল সাইয়্যিদু শাবাবি আহলিল জান্নাহ, ইমামুছ ছানী মিন আহলি বাইতি রসূলিল্লাহ হযরত ইমাম হাসান আলাইহিস সালাম এবং ক্বাইয়ুমে আউওয়াল হযরত মুজাদ্দিদে আলফে ছানী রহমতুল্লাহি উনাদের মহিমান্বিত ও মহাপবিত্র রহমত-বরকতপূর্ণ পবিত্রতম বিছাল শরীফ দিবস।

এসব সুমহান দিবস মুবারক উপলক্ষে পবিত্র রাজারবাগ শরীফ সুন্নতী জামে মসজিদে ৩ দিন ব্যাপী বিশেষ ওয়াজ মাহফিল, পবিত্র মীলাদ শরীফ, পবিত্র ক্বিয়াম শরীফ, সামা শরীফ ও বিশেষ মুনাজাত শরীফ উনার মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

আনজুমানে আল বাইয়্যিনাত ও মাহফিল সংবাদ

আনজুমানে আল বাইয়্যিনাত ও মাহফিল সংবাদ

আনজুমানে আল বাইয়্যিনাত ও মাহফিল সংবাদ

আনজুমানে আল বাইয়্যিনাত ও মাহফিল সংবাদ

আনজুমানে আল বাইয়্যিনাত ও মাহফিল সংবাদ