আনজুমানে আল বাইয়্যিনাত ও মাহফিল সংবাদ

সংখ্যা: ২১৩তম সংখ্যা | বিভাগ:

 

আল বাইয়্যিনাত শরীফ প্রতিবেদন: প্রত্যেক উম্মতের জন্য ফরয হচ্ছে হযরত আহলে বাইত ও আওলাদে রসূল আলাইহিমুস সালাম উনাদের প্রতি সুধারণা পোষণ করা, উনাদেরকে মুহব্বত করা, উনাদের খিদমত করা এবং উনাদেরকে অনুসরণ-অনুকরণ করা। আর নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার আহলে বাইত- আওলাদ আলাইহিমুস সালাম উনারাই হচ্ছেন উনার ঘনিষ্ঠ বা আপনজনের অন্তর্ভুক্ত।

খলীফাতুল্লাহ, খলীফাতু রসূলিল্লাহ, ইমামে আযম, গাওছুল আযম, মুজাদ্দিদে আযম, আওলাদে রসূল, সাইয়্যিদুনা ইমাম রাজারবাগ শরীফ-এর মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম তিনি রাজারবাগ শরীফ-এ বিশেষ মজলিসে আলোচনাকালে এসব কথা বলেন।

মুজাদ্দিদে আযম, ইমাম রাজারবাগ শরীফ-এর মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম তিনি কালামুল্লাহ শরীফ-এর আয়াতে কারীমা উল্লেখ করে বলেন, মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ করেন- æহে আমার হাবীব ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম! আপনি (উম্মতদেরকে) বলুন, আমি তোমাদের নিকট কোনো প্রতিদান বা বিনিময় চাই না। তবে আমার ঘনিষ্ঠ বা আপনজন উনাদের প্রতি তোমরা সদ্ব্যবহার করবে।

মুজাদ্দিদে আযম, ইমাম রাজারবাগ শরীফ-এর মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম তিনি আরো বলেন, মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ করেন- æআপনার আহলে বাইত উনাদেরকে আমি পবিত্র থেকে পবিত্রতম করে সৃষ্টি করেছি।

মুজাদ্দিদে আযম, ইমাম রাজারবাগ শরীফ-এর মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম তিনি বলেন, মহান আল্লাহ পাক ও উনার হাবীব হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাদের সন্তুষ্টি লাভ করতে হলে প্রত্যেক উম্মতের জন্য দায়িত্ব-কর্তব্য তথা ফরয হলো, হযরত আহলে বাইত ও আওলাদে রসূল আলাইহিমুস সালাম উনাদের প্রতি সুধারণা পোষণ করা, উনাদেরকে মুহব্বত করা, উনাদেরকে তাযীম-তাকরীম করা, উনাদের ছানা-ছিফত করা, উনাদের খিদমত করা এবং উনাদের অনুসরণ-অনুকরণ করা।

এখানে বিশেষভাবে উল্লেখ্য যে, মুজাদ্দিদে আযম, ইমাম রাজারবাগ শরীফ-এর মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম তিনি এবং উনার আহাল ও ইয়ালগণ উনারা কালামুল্লাহ শরীফ-এর উপরোক্ত আয়াত শরীফ-এর পূর্ণ মিছদাক।

মূলত, যামানার মুজাদ্দিদ, মুজাদ্দিদে আযম, ইমাম রাজারবাগ শরীফ-এর মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম তিনি এবং উনার আহলে বাইতগণ উনাদের যমীনে উপস্থিতি ও উনাদের জীবন মুবারক-এ ঘটে যাওয়া বিভিন্ন ঘটনার কারণ মূলত সেই সময়ের যমীনবাসীকে নিয়ামত, রহমত, বরকত, সাকীনা, ইলম-আমল, সমঝ দানে ধন্য করা।

 ঈদে বিলাদতে হযরত নিবরাসাতুল উমাম আলাইহাস সালাম :

 উল্লেখ্য, গত ১৯শে রবিউছ ছানী শরীফ (১৪ আশির ১৩৭৯ শামসী) ছিলো লখতে জিগারে মুজাদ্দিদে আযম, ক্বায়িম-মাক্বামে যাহরা আলাইহাস সালাম, সাইয়্যিদাতুন নিসা, নিবরাসাতুল উমাম, আওলাদে রসূল, সাইয়্যিদাতুনা হযরত শাহযাদী ছানী হুযূর ক্বিবলা আলাইহাস সালাম উনার বেমেছাল মহিমান্বিত, রহমত-বরকত, ফযীলতপূর্ণ, সাকীনাযুক্ত, মুবারক বিলাদত শরীফ দিবস।

এ উপলক্ষে রাজারবাগ শরীফ-এ আজিমুশ শান আলোচনা মজলিশ, সামা শরীফ-এর মাহফিল, সম্মিলিত বিশেষ কবিতা রচনা ও পাঠ, মুবারক সুন্নতি লটারী ইত্যাদি নানা আয়োজন এবং বিশেষ মক্ববুল দোয়া-মুনাজাত অনুষ্ঠিত হয় ও বিশেষ তাবারুকের ব্যবস্থা করা হয়।

এছাড়া গত ১১ই রবীউছ ছানী শরীফ (৬ আশির ১৩৭৯ শামসী) ছিলো গাউছুল আযম, সাইয়্যিদুল আউলিয়া, আওলাদে রসূল সাইয়্যিদুনা হযরত বড়পীর ছাহেব রহমতুল্লাহি আলাইহি উনার বিছাল শরীফ দিবস তথা পবিত্র ফাতেহায়ে ইয়াযদাহম। এ উপলক্ষেও রাজারবাগ শরীফ-এ আজিমুশ শান ওয়াজ শরীফ, মক্ববুল দোয়া-মুনাজাত শরীফ মাহফিল ও বিশেষ তাবারুকের ব্যবস্থা করা হয়।

আরো উল্লেখ্য, সাইয়্যিদুল আইয়াদ শরীফ ১৪৩৪ হিজরী উপলক্ষে প্রতি সোমবার শরীফ রাজারবাগ শরীফ-এ প্রস্তুতিমূলক আলোচনা মজলিশ অব্যাহত রয়েছে।

আনজুমানে আল বাইয়্যিনাত ও মাহফিল সংবাদ

আনজুমানে আল বাইয়্যিনাত ও মাহফিল সংবাদ

আনজুমানে আল বাইয়্যিনাত ও মাহফিল সংবাদ

আনজুমানে আল বাইয়্যিনাত ও মাহফিল সংবাদ

আনজুমানে আল বাইয়্যিনাত ও মাহফিল সংবাদ