আনজুমানে আল বাইয়্যিনাত ও মাহফিল সংবাদ

সংখ্যা: ১৮৮তম সংখ্যা | বিভাগ:

আল বাইয়্যিনাত প্রতিবেদন: নূরে মুজাস্সাম, হাবীবুল্লাহ, নবীদের নবী, রসূলদের রসূল হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম-এর প্রতি যিনি যত বেশী মুহব্বত, হুসনে যন পোষণ ও জান-মাল দিয়ে খিদমত করতে পারবেন তিনি ততবেশী মর্যাদার অধিকারী। খলীফাতু রসূলিল্লাহ হযরত আবূ বকর ছিদ্দীক রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু  এসব গুণাবলীর অধিকারী ছিলেন বলেই তিনি আফযালুন্ নাস বা’দাল আম্বিয়া তথা নবী রসূলগণের পরে সর্বশ্রেষ্ঠ মানুষ  হয়েছেন। যা উনার  চূড়ান্ত মর্যাদা ও শ্রেষ্ঠত্বের বহিঃপ্রকাশ। পক্ষান্তরে আবূ জাহিল, আবূ লাহাব প্রমুখেরা তার বিপরীতটা করায় তারা সৃষ্টির সর্ব নিকৃষ্ট জীবে পরিণত হয়েছে।

যামানার লক্ষ্যস্থল ওলী আল্লাহ, যামানার ইমাম ও মুজতাহিদ, মুজাদ্দিদে আ’যম, ইমামুল আইম্মাহ, কুতুবুল আলম, আওলাদে রসূল, সাইয়্যিদুনা ইমাম রাজারবাগ শরীফ-এর মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা মুদ্দা জিল্লুহুল আলী  বিশেষ আলোচনা মজলিসে একথা বলেন।

আফযালুন্ নাস বা’দাল আম্বিয়া, খলীফাতু রসূলিল্লাহ হযরত ছিদ্দীকে আকবর রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু মুহব্বত, হুসনে যন ও  আত্মত্যাগের যে বেমেছাল নজীর স্থাপন করেন তা সৃষ্টির মাঝে বিরল। সে কারণে নবীদের নবী, রসুলদের রসূল, নূরে মুজাস্সাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, আল্লাহ পাক  আমাকে যা হাদীয়া করেছেন আমি তার সবটুকু হযরত ছিদ্দীকে আকবর রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু-এর অন্তরে নিক্ষেপ করেছি।

ইমামে আ’যম রাজারবাগ শরীফ-এর মুযাদ্দিদে আ’যম মুদ্দা জিল্লুহুল আলী  রজবের পহেলা রাত্রি সম্পর্কে বলেন, হাদীছ শরীফ-এ  নিশ্চিতভাবে দোয়া কবুলের পাঁচটি রাত্রি রয়েছে, তš§ধ্যে রজবের পহেলা রাত্রি একটি। এ রাত্রিতে বান্দার উচিত সারা রাত জাগ্রত থেকে মীলাদ শরীফ পাঠ, দোয়া-খায়ের, তওবা-ইস্তিগফার, যিকির-আযকার  ও ইবাদত বন্দেগীর মাধ্যমে অতিবাহিত করা। পৃথিবীর সমস্ত দেশের সরকারের উচিত পহেলা রজব উপলক্ষে ছুটি  ঘোষণা করা।

লাইলাতুর রগায়িব প্রসঙ্গে তিনি বলেন, লাইলাতুল রগায়িব অর্থাৎ রজব মাসের পহেলা জুমুয়ার রাত তথা বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতটি দোয়া কবুলের সবিশেষ রাত। এ রাতের ফযীলত শবে বরাত, শবে ক্বদরের চেয়েও বেশী, কেননা এ সুমহান রাতেই নবীদের নবী, রসূলদের রসূল, নূরে মুজাস্সাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মহান আম্মাজীর নূরী রেহেম শরীফ-এ তাশরীফ রাখেন। হাম্বলী মাযহাবের ইমাম, ইমাম আহমদ ইবনে হাম্বল রহমতুল্লাহি আলাইহি বলেন, এ সুমহান রাত্রি না হলে কোন মর্যাদাপূর্ণ রাতই অস্তিত্বে আসতো না। এ রাতটিও দোয়া-খায়ের ও ইবাদত বন্দেগীর মাধ্যমে অতিবাহিত করা বান্দার জন্য অবশ্য কর্তব্য এবং সকল দেশের সরকারের জন্য ছুটি প্রদান করা দায়িত্ব ও কর্তব্য।

সময়কে আগ-পিছ করাটা জাহিলি যুগের কাফির-মুশরিকদের লক্ষণ। এ দেশে সময়কে এক ঘণ্টা এগোনো মূলতঃ ইহুদী-খ্রীষ্টান চক্রের কূট ষড়যন্ত্রেরই  অংশমাত্র। তারা সৌদী আরবে মাসকে আগ পিছ করে মুসলমানদের হজ্ব, কুরবানী, রোযা ইত্যাদি নষ্ট করে যাচ্ছে। বাংলাদেশেও সময়কে এগোনোর দ্বারা মুসলমানদের নামায, রোযা ইত্যাদি ইবাদত-বন্দেগী নষ্ট করার ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছে। এর দ্বারা একদিকে সাধারণ মুসলমান- ইবাদত-বন্দেগীর ক্ষেত্রে বিভ্রান্তিতে পড়বে অন্যদিকে দেশে ফিৎনার বিস্তার ঘটবে যা দ্বারা যুদ্ধাপরাধীরা একদিকে সরকার পতনের আন্দোলনের সুযোগ পাবে, অন্যদিকে দেশ গৃহযুদ্ধের দিকে এগিয়ে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

ইমামে আ’যম, মুজাদ্দিদে আ’যম মুদ্দা জিল্লুহুল আলী বলেন, সৌদি আরবে প্রকাশ্যে সিনেমা দেখা ও তা প্রচার করার অনুমতি দিয়ে ইহুদী মদদপুষ্ট ওহাবী সরকার তাদের ধর্মহীনতা ও ইহুদী তোষণের পরিচয় দিয়েছে। এদ্বারা মূলতঃ তারা চূড়ান্ত অধঃপতনের দিকে এগুচ্ছে। এসবের ফলে অচিরেই সেখানে চরম বেপর্দা ও বেহায়াপনার  বিস্তার ঘটবে। অবাধ গণতন্ত্রের ব্যাপক চর্চা শুরু হবে যা পতনকে ত্বরান্বিত করবে। সৌদি ওহাবী সরকার বিগত বছরগুলোর ন্যায় এ বছরও ইহুদী ইঙ্গিতে রজব মাসকে আগ-পিছ করার ষড়যন্ত্রে মেতে উঠেছে। চাঁদ না  দেখেই মাস গণনা শুরু করেছে। সে কারণে এবছরেও প্রায় দু’কোটি হাজীর হজ্ব, কুরবানীসহ হজ্বের  যাবতীয় আহকাম পালনই ব্যর্থ হবে।  মুসলিম বিশ্বের উচিত এ গুমরাহ ওহাবী সরকারের উপর চাপ প্রয়োগ করে সঠিক পথে চলতে বাধ্য করা।

উল্লেখ্য, গত ৬ জুমাদাল উখরা, ২জুন-০৯, সোমবার নওগাঁ, ১১ জুমাদাল উখরা, ৭জুন-০৯, শনিবার, বগুড়া ও ১৩ জুমাদাল উখরা ঝিনাইদহ জেলার বারো বাজার  শাখা- ছাত্র-যুব-সাধারণ ও উলামা আঞ্জুমানে আল বাইয়্যিনাত-এর প্রথম সম্মিলনী মজলিস অনুষ্ঠিত হয়। এসব মজলিসে, ইমামে আ’যম মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা মুদ্দা জিল্লুহুল আলী নছীহত ও দোয়া মুনাজাত করেন।

স্মর্তব্য, গত ১৯ জুমাদাল উখরা রবিবার রাজারবাগ দরবার শরীফ-এ খলীফাতু রসূলিল্লাহ, আফজালুন্ নাস বা’দাল আম্বিয়া হযরত ছিদ্দীকে আকবর রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু-এর মুবারক বিছাল শরীফ উপলক্ষে মীলাদ মাহফিল ও দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। গত ১ রজব, ২৪ জুন’০৯, বুধবার দিবাগত বাদ ইশা ইমামে আ’যম মুদ্দাজিল্লুহুল আলী রাজারবাগ দরবার শরীফ-এ পবিত্র ১লা রজব উপলক্ষে বিশেষ দোয়া ও মুনাজাত করেন। এছাড়া গত ২রা রজব পবিত্র লাইলাতুর রগায়িব উপলক্ষেও বিশেষ  দোয়া ও মুনাজাত করেন। গত ৪ঠা রজব খাঁজায়ে খাঁজেগা, হযরত মুঈনুদ্দীন হাসান চিশতী, আজমিরী  সানজিরী রহমতুল্লাহি আলাইহি-এর পবিত্র বিছাল শরীফ উপলক্ষে রাজারবাগ দরবার শরীফ-এ  উনার সাওয়ানেহ উমরী মুবারক আলোচনা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। এতে মুযাদ্দিদে আ’যম মুদ্দাজিল্লুহুল আলী প্রধান অতিথির বয়ান পেশ করেন।

আনজুমানে আল বাইয়্যিনাত ও মাহফিল সংবাদ

আনজুমানে আল বাইয়্যিনাত ও মাহফিল সংবাদ

আনজুমানে আল বাইয়্যিনাত ও মাহফিল সংবাদ

আনজুমানে আল বাইয়্যিনাত সংবাদ

আনজুমানে আল বাইয়্যিনাত সংবাদ