আনজুমানে আল বাইয়্যনিাত ও মাহফলি সংবাদ

সংখ্যা: ২৭৯তম সংখ্যা | বিভাগ:

আল বাইয়্যিনাত শরীফ প্রতিবেদন : যামানার লক্ষ্যস্থল ওলীআল্লাহ, যামানার ইমাম ও মুজতাহিদ, ইমামুল আইম্মাহ, মুহ্ইউস সুন্নাহ, কুতুবুল আলম, মুজাদ্দিদে আ’যম, ক্বইয়ূমুয যামান, জাব্বারিউল আউওয়াল, ক্বউইয়্যূল আউওয়াল, সুলত্বানুন নাছীর, হাবীবুল্লাহ, জামিউল আলক্বাব, আওলাদে রসূল, মাওলানা সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুল উমাম আলাইহিস সালাম তিনি বলেন, সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খাতামুন নাবিইয়ীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার পবিত্র বিলাদতী শান মুবারক প্রকাশ উপলক্ষে খুশি প্রকাশ করার মাঝেই মাখলুকাতের কামিয়াবী নিহিত।

এ প্রসঙ্গে মহান আল্লাহ পাক তিনি ‘পবিত্র সূরা ইউনুস শরীফ’ উনার ৫৮ নম্বর পবিত্র আয়াত শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক করেন, “হে আমার হাবীব ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম! আপনি উম্মাহকে জানিয়ে দিন, মহান আল্লাহ পাক তিনি ফযল-করম এবং রহমত হিসেবে উনার প্রিয়তম হাবীব ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাকে হাদিয়াস্বরূপ দিয়েছেন- সেজন্য তারা যেন খুশি প্রকাশ করে।” মূলত দুনিয়ার যমীনে হযরত নবী-রসূল আলাইহিমুস সালাম উনাদের মুবারক আগমন ও বিদায় এবং বিশেষ ঘটনা সংঘটিত হওয়ার দিন তথা মাস উম্মাহর জন্য পবিত্র ঈদ বা খুশির অন্তর্ভুক্ত। সুবহানাল্লাহ!

মুজাদ্দিদে আ’যম, ইমাম রাজারবাগ শরীফ উনার মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম তিনি বলেন, “সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খাতামুন নাবিয়্যীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ, হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সালাম উনার পবিত্র বিলাদতী শান মুবারক প্রকাশ হস্তি বাহিনী বর্ষের মহাসম্মানিত ১২ই রবীউল আউওয়াল শরীফ ইয়াওমুল ইছনাইনিল আযীম শরীফ হয়েছিল।” সুবহানাল্লাহ!

মুজাদ্দিদে আ’যম, ইমাম রাজারবাগ শরীফ উনার মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম তিনি বলেন, আখিরী রসূল, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি যমীনে তাশরীফ মুবারক আনেন শাহর বা মাস হিসেবে- সাইয়্যিদু সাইয়্যিদিল আসইয়াদ শরীফ; সাইয়্যিদু সাইয়্যিদিশ শুহুরিল আ’যম শরীফ, মহাপবিত্র রবীউল আউওয়াল শরীফে। ইয়াওম বা বার হিসেবে- সাইয়্যিদু সাইয়্যিদিল আ’ইয়্যাম ইয়াওমুল ইছনাইনিল আযীম শরীফে। আর আ’দাদ বা তারিখ হিসেবে মহাসম্মানিত সাইয়্যিদু সাইয়্যিদিল আ’দাদ শরীফ অর্থাৎ মহাপবিত্রতম ১২ই শরীফে। সুবহানাল্লাহ!

মুজাদ্দিদে আ’যম, ইমাম রাজারবাগ শরীফ উনার মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম তিনি বলেন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি মুবারক তাশরীফ আনার কারণেই ১২ই রবীউল আউওয়াল শরীফ মহাপবিত্র, মহাসম্মানিত ও মহাফযীলতপূর্ণ দিন হিসেবে কায়িনাতে সাব্যস্ত। যা পালন করা মুসলমান তো অবশ্যই জিন-ইনসানসহ সমস্ত কায়িনাতের জন্য ফরয এবং নাজাতের কারণ।

মহান আল্লাহ পাক উনার আদেশ মুবারক পালনার্থে খুশী প্রকাশের লক্ষ্যে ৯৮ ভাগ মুসলমান অধ্যুষিত ও রাষ্ট্রদ্বীন ইসলাম উনার দেশের সরকারের জন্য ফরয হচ্ছে- রাষ্ট্রের সকল স্তরে পবিত্র সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ জারী করা এবং ব্যাপকভাবে পালনের কার্যকর উদ্যোগ নেয়া। এ লক্ষ্যে আসন্ন পবিত্র সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ অর্থাৎ সাইয়্যিদু সাইয়্যিদিশ শুহূরিল আ’যম পবিত্র রবীউল আউওয়াল শরীফ এবং সাইয়্যিদু সাইয়্যিদিল আ’দাদ শরীফ পবিত্র ১২ই শরীফ উপলক্ষে বিশ্বের সকল দেশের প্রত্যেক সরকারের জন্য দায়িত্ব ও কর্তব্য হলো ১২টি বিষয় পালন করা ও জারী করা

 

১. সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খতামুন নাবিয়্যীন, রহমতুল্লিল আলামীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মুবারক শানে প্রত্যক্ষভাবেই হোক আর পরোক্ষভাবেই হোক অর্থাৎ যেভাবেই হোকনা কেন; যেই মানহানীকর বিষয় প্রচার, প্রসার করবে অথবা প্রকাশ করবে তাদেরকে এবং তাদের সংশ্লিষ্ট সকলের শাস্তিই মৃত্যুদণ্ড দিতে হবে। এটাই সম্মানিত ও পবিত্র শরীয়ত উনার হুকুম। তাই জারি করতে হবে।

২. সাইয়্যিদে ঈদে আ’যম, সাইয়্যিদে ঈদে আকবর পবিত্র ঈদে মীলাদে হাবীবুল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তথা সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ ব্যাপকভাবে পালনে সরকারীভাবে সর্বোচ্চ বাজেট বরাদ্দ করতে হবে।

৩. সাইয়্যিদু সাইয়্যিদিশ শুহুরিল আ’যম, মহাপবিত্র রবিউল আউওয়াল শরীফ মাসে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ সরকারী-বেসরকারী সকল প্রতিষ্ঠানে মাসব্যাপী ছুটি ঘোষণা করতে হবে। একই সাথে সাইয়্যিদু সাইয়্যিদিল আ’দাদ শরীফ মহাপবিত্র ১২ই রবীউল আউওয়াল শরীফ দিবসকে বিশ্ব ছুটির দিবস হিসেবে ঘোষণা করতে হবে।

৪. সাইয়্যিদু সাইয়্যিদিশ শুহুরিল আ’যম, মহাপবিত্র রবিউল আউওয়াল শরীফ মাসে সরকারী পৃষ্ঠপোষকতায় ব্যাপকভাবে মাসব্যাপী বিশেষ মাহফিলের আয়োজন করতে হবে।

৫. সাইয়্যিদু সাইয়্যিদিল আ’দাদ শরীফ মহাপবিত্র ১২ই রবীউল আউওয়াল শরীফ উনার সম্মানার্থে সর্বপ্রকার অশ্লীল ও অশালীন কাজ বন্ধ করতে হবে।

৬. সব শ্রেণীর পাঠ্যপুস্তকে নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার এবং হযরত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের সুমহান জীবনী মুবারক বাধ্যতামূলক করতে হবে।

৭. সরকারী-বেসরকারী সকল প্রতিষ্ঠান ও মসজিদণ্ডমাদরাসায় সাইয়্যিদু সাইয়্যিদিল আ’দাদ শরীফ মহাপবিত্র ১২ই রবীউল আউওয়াল শরীফ দিবসে বিশেষ এন্তেজামে বিশেষভাবে মীলাদ শরীফ মাহফিল ও বিশেষ তাবারুকের আয়োজন করতে হবে।

৮. সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ ব্যাপকভাবে পালনে সকল মন্ত্রণালয় ও বিভাগে সরকারীভাবে আবশ্যিক নির্দেশনা জারী করা, সরকারী-বেসরকারী স্থাপনাসমূহ মনোরম সাজে সজ্জিত করা, প্রধানমন্ত্রী ও রাষ্ট্রপতি এবং নিজ নিজ এলাকায় মন্ত্রী-এমপি কর্তৃক সর্বস্তরের জনগণের সাথে শুভেচ্ছা বিনিময় করা, বছরব্যাপী ইসলামী অনুষ্ঠানসূচী ঘোষণা করা, বই প্রদর্শনী, সামরিক প্রদর্শনী, পতাকা উত্তোলন, অস্বচ্ছল ও বেকারদের চাকুরী এবং গৃহহীনদের গৃহ দেয়ার ঘোষণা দেয়াসহ বিভিন্ন শরঈ কর্মসূচী বাস্তবায়িত করতে হবে।

৯. মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ, সাইয়্যিদে ঈদে আ’যম, সাইয়্যিদে ঈদে আকবর পবিত্র ঈদে মীলাদে হাবীবুল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উপলক্ষে সকল সরকারী প্রতিষ্ঠানে ছাড় দিতে হবে এবং বিশেষ পণ্য সামগ্রী তৈরী করতে হবে।

১০. সর্বস্তরে পবিত্র সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ, সাইয়্যিদে ঈদে আ’যম, সাইয়্যিদে ঈদে আকবর পবিত্র ঈদে মীলাদে হাবীবুল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাকে জারী করতে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মতো স্বতন্ত্র শক্তিশালী গবেষণা কেন্দ্র এবং পৃথক মন্ত্রণালয় প্রতিষ্ঠা করতে হবে।

১১. মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ উনার সম্মানার্থে ‘পবিত্র না’তু উম্মি রসূলিনা ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম’ উনাকে জাতীয় না’ত শরীফ হিসেবে ঘোষনা করতে হবে। দেশের সরকারী-বেসরকারী সকল প্রতিষ্ঠান ও মসজিদণ্ডমাদরাসায় তা প্রতিদিন পাঠের আয়োজন করতে হবে।

১২. দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ, সাইয়্যিদে ঈদে আ’যম, সাইয়্যিদে ঈদে আকবর পবিত্র ঈদে মীলাদে হাবীবুল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উপলক্ষে ইসলামী তাহযীব-তামাদ্দুন নিয়ে মাসব্যাপী বিশেষ প্রতিযোগীতার আয়োজন করতে হবে।

অনন্তকাল ব্যাপী জারীকৃত মহাপবিত্র সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ মাহফিল উনার বিশেষ শান মুবারক ৬৩ দিনব্যাপী মাহফিল উদ্ভোধন

যামানার লক্ষ্যস্থল ওলীআল্লাহ, যামানার ইমাম ও মুজতাহিদ, ইমামুল আইম্মাহ, মুহ্ইউস সুন্নাহ, কুতুবুল আলম, খ¦লীফাতুল্লাহ, খ¦লীফাতু রসূলিল্লাহ, মুজাদ্দিদে আ’যম, সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুল উমাম আলাইহিস সালাম, তিনি আসন্ন সাইয়্যিদু সাইয়্যিদিল আসইয়াদ শরীফ, সাইয়্যিদু সাইয়্যিদিশ শুহুরিল আ’যম, মহাপবিত্র রবীউল আউওয়াল শরীফ মাসে মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র সাইয়্যিদু সাইয়্যিদিল আ’দাদ শরীফ তথা ঈদে মীলাদে হাবীবুল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম মহাসমারোহে ও ব্যাপক শান শওকতে পালনের লক্ষ্যে ২৮শে সফর শরীফ ১৪৪২ হিজরী রাজারবাগ শরীফে ৬৩ দিন ব্যাপী মাহফিলের উদ্ভোধন ঘোষণা করেন।

রাজারবাগ শরীফ সুন্নতী জামে মসজিদে প্রতিদিন বা’দ মাগরিব হতে বা’দ ইশা পর্যন্ত এবং প্রতিদিন সকাল ১০টা হতে যুহর পর্যন্ত এ ‘ফাস্তাবিকুল খইরাত” প্রতিযোগিতা মাহফিল অনুষ্ঠিত হচ্ছে। যা ইন্টারনেট ভয়েস ‘আল হিকমাহ’তে নিয়মিত সম্প্রচার করা হয়। একইভাবে রাজারবাগ শরীফে অবস্থিত মুহম্মদিয়া জামিয়া শরীফ বালিকা মাদরাসায় প্রতিদিন দুপুর ১২:৪০ মিনিট হতে নিয়মিত এ মুবারক মাহফিল মহিলাদের জন্য অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

মাহফিলের ৩০ দিন ‘ফাস্তাবিকুল খাইরাত’ প্রতিযোগীতা মাহফিল, ৩০ দিন বিষয়ভিত্তিক ওয়াজ শরীফ মাহফিল এবং শেষে ৩ দিন পবিত্র সামা শরীফ মাহফিল অনুষ্ঠিত হবে।

বরকতময় এবং নজীরবিহীন সুমহান উদ্ভোধনী মাহফিলে প্রধান অতিথি হিসেবে তাশরীফ মুবারক নেন, খ¦লীফাতুল্লাহ, খ¦লীফাতু রসূলিল্লাহ, ইমামুল আইম্মাহ, মুহইউস সুন্নাহ, কুতুবুল আলম, আওলাদে রসূল, আহলু বাইতি রসূলিল্লাহ, সাইয়্যিদে মুজাদ্দিদে আ’যম, সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুল উমাম আলাইহিস সালাম তিনি। সুবহানাল্লাহ!

একইভাবে অনন্তকাল ব্যাপী জারীকৃত মহাপবিত্র সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ মাহফিল উনার বিশেষ শান মুবারক ‘৬৩ দিন ব্যাপী মাহফিল’ মহাসমারোহে ও মহাআয়োজনে পালনের লক্ষ্যে সাইয়্যিদাতুন নিসা, আফযালুন নিসা, ইমামাতুছ ছিদ্দীক্বা, উম্মুল উম্মাহাত, আফদ্বালুন নিসা বা’দাল আম্বিয়ায়ি ওয়া উম্মাহাতিল মু’মিনীন আলাইহিন্নাস সালাম, কায়িম মাক্বামে উম্মুল মু’মিনীন, নুরে জাহান, আল মাবরুরা, আল মাহযুবা, আল ক্বারীবা ওয়াল মুক্বাররিবা, হাবীবাতুল্লাহ, আওলাদে রসূল, আহলু বাইতি রসূলিল্লাহ, উম্মুল উমাম ‘সাইয়্যিদাতুনা হযরত আম্মা হূযুর ক্বিবলা আলাইহাস সালাম’ উনার মুবারক পৃষ্ঠপোষকতা ও তত্ত্বাবধানে সারাদেশ থেকে আগত পীরবোন, মুহিব্বীন মহিলাদের উদ্দেশ্যে মুবারক নছীহত ও মুবারক তালীমী ‘ফালইয়াফরাহু মাহফিল’, ‘ফাস্তাবিকুল খাইরাত’ প্রতিযোগীতা মাহফিলসহ আরো অনেক বিষয়ের আয়োজন করা হয়েছে।

পাশাপাশি মাহফিলে শাহদামাদে মুজাদ্দিদে আ’যম, কুতুবুল আলম, আওলাদে রসূল নকশায়ে হায়দার, বাহরুল ইলম ওয়াল হিকাম সাইয়্যিদুনা হযরত শাফিউল উমাম আলাইহিস সালাম এবং আওলাদে রসূল, নকশায়ে গণি, বাহরুল ইলম ওয়াল হিকাম, সাইয়্যিদুনা হযরত হাদিউল উমাম আলাইহিস সালাম উনারাও মুবারক তাশরীফ রাখেন।

আসন্ন মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ উনার সম্মানার্থে রাজারবাগ শরীফ উনার পক্ষ থেকে নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার ছানা-ছিফত মুবারক কুল কায়িনাতে ছড়িয়ে দেওয়ার লক্ষ্যে সারাদেশে লক্ষ লক্ষ পোষ্টার, ব্যানার, লিফলেট, দেয়াল লিখন, অনলাইনের মাধ্যমে সারাবিশ্বে ব্যাপক প্রচার প্রসার উদ্যোগ মুবারক গ্রহণ করা হয়েছে।

পাশাপাশি সংবাদ সমে¥লন এবং স্মারকলিপিও অন্যান্য মাধ্যমে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী এবং মন্ত্রী পরিষদের মাধ্যমে দেশের সকল সিটি করপোরেশন, জেলা প্রশাসন, জেলা পরিষদ, উপজেলা পরিষদসহ অর্থাৎ প্রশাসনের সর্বস্তরে যাতে ব্যাপকভাবে মহাসমারোহে সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ উদযাপন করা হয় এবং ১২টি বিষয় জারী করা হয় সেই উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে।

পবিত্র মুহররমুল হারাম শরীফ মাসে কোটি কোটি কন্ঠে পবিত্র মীলাদ শরীফ মাহফিল, পবিত্র আশুরা মিনাল মুহররমুল হারাম শরীফ এবং অন্যান্য সকল আইয়্যামুল্লাহ শরীফ পালিত হয়েছে।

আনজুমানে আল বাইয়্যিনাত সংবাদ

আনজুমানে আল বাইয়্যিনাত সংবাদ

আনজুমানে আল বাইয়্যিনাত ও মাহফিল সংবাদ

আনজুমানে আল বাইয়্যিনাত ও মাহফিল সংবাদ

আনজুমানে আল বাইয়্যিনাত ও মাহফিল সংবাদ