আনজুমানে আল বাইয়্যিনাত শরীফ ও মাহফিল সংবাদ

সংখ্যা: ২৮৫তম সংখ্যা | বিভাগ:

আল বাইয়্যিনাত শরীফ প্রতিবেদন:  খলীফাতুল্লাহ, খলীফাতু রসূলিল্লাহ, ছাহিবু সাইয়্যিদিল আ’ইয়াদ শরীফ, কুতুবুল আলম, গাউছুল আ’যম, ক্বইউমুজ জামান, ইমামুল আইম্মাহ্, আস সাফফাহ, আল জাব্বারিউল আউওয়াল, আল ক্বউইউল আউওয়াল, হাবীবুল্লাহ, মুত্বহ্হার, মুত্বহ্হির, আছ ছমাদ, আহলু বাইতি রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, ক্বায়িম মাক্বামে হাবীবুল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, মাওলানা মামদূহ মুর্শিদ ক্বিবলা সাইয়্যিদুনা হযরত সুলত্বানুন নাছীর ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি বলেন, খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “তোমরা মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র হাবীব, নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার খিদমত মুবারক করো, উনাকে তা’যীম-তাকরীম মুবারক করো এবং উনার ছানা-ছিফত মুবারক বা প্রশংসা মুবারক বর্ণনা করো সকাল-সন্ধ্যা।” অর্থাৎ দায়িমীভাবে সদা-সর্বদা অনন্তকাল ধরে। সুবহানাল্লাহ! তাই কুল-কায়িনাতের সকলের জন্য ফরয হচ্ছে- সাইয়্যিদু সাইয়্যিদিশ শুহুরিল আ’যম, পবিত্র রবীউল আউওয়াল শরীফ মাসেতো অবশ্যই, বরং অনন্তকালব্যাপী দায়িমীভাবে খিদমত মুবারক উনার আঞ্জাম দেয়া। কারণ অনন্তকালব্যাপী জারীকৃত মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ উনার সুমহান সম্মানার্থে খিদমত মুবারক উনার আঞ্জাম দেয়া অশেষ ফযীলত এবং ইহ-পরকালে কামিয়াবী ও নাজাত লাভ করার সর্বোত্তম উসীলা মুবারক।”

আহলু বাইতি রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, সাইয়্যিদুনা হযরত সুলত্বানুন নাছীর ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি বলেন, “মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র হাদীছে কুদসী শরীফ উনার মধ্যে মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, আমি পুশিদা অর্থাৎ অপরিচিত ছিলাম। অতঃপর আমার মুহব্বত বা ইচ্ছা হলো যে, আমি পরিচিত হই তখন পরিচয় লাভের উদ্দেশ্যে আমি সৃষ্টির যিনি মূল (আমার মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র হাবীব, মাহবূব ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) উনাকে সৃষ্টি করলাম। সুবহানাল্লাহ! খ্বালিক্ব মালিক রব হিসেবে মহান আল্লাহ পাক তিনি যেরূপ এক ও একক। তদ্রুপ মালিক ও হাবীব হিসেবে নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনিও এক ও একক। সুবহানাল্লাহ! তাই, মহান আল্লাহ পাক উনার মুহব্বত মুবারক হাছিল করতে হলে বা পেতে হলে উনার মনোনীত হাবীব সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খাতামুন নাবিয়্যীন, রহমতুল্লিল আলামীন, নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাকে নিজের জানের চেয়েও বেশি মুহব্বত করতে হবে। জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে সূক্ষ্মাতিসূক্ষ্মভাবে উনাকে অনুসরণ ও অনুকরণ করতে হবে। উনার জন্যই প্রতিটি মূহুর্ত ব্যয় করতে হবে। উনার মুবারক গোলামীর আঞ্জামে সময় ব্যয় করতে হবে, মেধা খাটাতে হবে, শ্রম দিতে হবে। উনার জন্য খুশি প্রকাশ করে নিজের সমস্ত কিছু উজাড় করে খরচ করতে হবে। যা কামিয়াবী হাছিলের সবচেয়ে সহজ পন্থা।”

মাহফিল সংবাদ, অনন্তকালব্যাপী মাহফিল

আহলু বাইতি রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, সাইয়্যিদুনা হযরত সুলত্বানুন নাছীর ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মুবারক পৃষ্ঠপোষকতায় রাজারবাগ শরীফে মহাসমারোহে ও ব্যাপক শান শওকতে কুল-কায়িনাতের সর্বশ্রেষ্ঠ ইবাদত মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ উপলক্ষে অনন্তকালব্যাপী জারীকৃত আযীমুশশান মাহফিল প্রতিদিন বা’দ মাগরিব অনুষ্ঠিত হচ্ছে। সুবহানাল্লাহ! প্রতিদিনই আযীমুশশান তাবারুক বিতরণ করা হচ্ছে। সুবহানাল্লাহ।

একইভাবে ছহিবাতু সাইয়্যিদিল আ’ইয়াদ শরীফ, সাইয়্যিদাতুন নিসায়ি আলাল আলামীন, আছ ছমাদ, আহলু বাইতি রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, ক্বায়িম মাক্বামে হযরত উম্মাহাতুল মু’মিনীন আলাইহিন্নাস সালাম, সাইয়্যিদাতুনা হযরত উম্মুল উমাম আলাইহাস সালাম উনার মুবারক পৃষ্ঠপোষকতা রাজারবাগ শরীফ মুহম্মদিয়া জামিয়া শরীফ বালিকা মাদরাসায় শুধুমাত্র মহিলাদের জন্য “ফাল ইয়াফরাহু মাহফিল” প্রতিদিন বা’দ যুহর অনুষ্ঠিত হয়। সুবহানাল্লাহ!

পবিত্র আইয়্যামুল্লাহ শরীফ

আহলু বাইতি রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, সাইয়্যিদুনা হযরত সুলত্বানুন নাছীর ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মুবারক পৃষ্ঠপোষকতায় এবং ক্বায়িম মাক্বামে হযরত উম্মাহাতুল মু’মিনীন আলাইহিন্নাস সালাম, সাইয়্যিদাতুনা হযরত উম্মুল উমাম আলাইহাস সালাম উনার মুবারক পৃষ্ঠপোষকতা প্রতি মাসের প্রতি পবিত্র আইয়্যামুল্লাহ শরীফ বিভিন্ন কার্যক্রমের মাধ্যমে অত্যন্ত শান-শওকতের সাথে পালিত হচ্ছে। সুবহানাল্লাহ।

৬৩দিনব্যাপী বিশেষ মাহফিল

কুল-কায়িনাতের সর্বশ্রেষ্ঠ ইবাদত অনন্তকালব্যাপী জারীকৃত মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ মাহফিল উনার মধ্যে পবিত্র সাইয়্যিদু সাইয়্যিদিল আ’দাদ শরীফ মহাপবিত্র ১২ই শরীফ এবং পবিত্র সাইয়্যিদু সাইয়্যিদিশ শুহূরিল আ’যম শরীফ মহাপবিত্র রবীউল আঊওয়াল শরীফ ১৪৪৩ হিজরী উপলক্ষে আখাছছুল খাছ বিষয় সম্পর্কে বিশেষ এন্তেজামে ইতিহাসে নযীরবিহীন আযীমুশশান ৬৩ দিন ব্যাপী বিশেষ মাহফিল পবিত্র ২৯ মুহররমুল হারাম শরীফ হতে পবিত্র ৪ রবীউছ ছানী শরীফ পর্যন্ত অত্যন্ত ভাবগাম্ভীর্যতার সুসম্পন্ন হয়েছে। সুবহানাল্লাহ!

ইতিহাসে নযীরবিহীন আযীমুশশান ৬৩ দিন ব্যাপী মাহফিলে দেশ-বিদেশের হাজার হাজার আশিক্বীন মুহিব্বীন ফাস্তাবিকুল খইরাত প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেন। দেশ-বিদেশ হতে লক্ষ লক্ষ আনজুমান আমিল ওয়াজ শরীফ ও পবিত্র সামা’ শরীফ মাহফিলে উপস্থিত হয়ে দোজাহানের কামিয়াবী হাছিল করেছেন। সুবহানাল্লাহ।

সাইয়্যিদু সাইয়্যিদিশ শুহূরিল আ’যম শরীফ উনার সাইয়্যিদু সাইয়্যিদিল আ’দাদ শরীফ অর্থাৎ মহাসম্মানিত মহাপবিত্র

১২ই রবীউল আউওয়াল শরীফ

সাইয়্যিদু সাইয়্যিদিশ শুহূরিল আ’যম শরীফ উনার সাইয়্যিদু সাইয়্যিদিল আ’দাদ শরীফ অর্থাৎ মহাসম্মানিত মহাপবিত্র ১২ই রবীউল আউওয়াল শরীফ সীমাহীন রহমত, বরকত, জৌলুশ, শান-শওকতের সাথে বেমেছাল বেনযীর ফালইয়াফরহূর সাথে পালিত হয়েছেন। সুবহানাল্লাহ!

সাইয়্যিদু সাইয়্যিদিশ শুহূরিল আ’যম শরীফ উনার সাইয়্যিদু সাইয়্যিদিল আ’দাদ শরীফ অর্থাৎ মহাসম্মানিত মহাপবিত্র ১২ই রবীউল আউওয়াল শরীফ উপলক্ষে রাজারবাগ শরীফ হতে বহুমুখী কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হয়েছে।

রাজারবাগ শরীফ সুন্নতি মসজিদে রাতব্যাপী ওয়াজ শরীফ মাহফিল, যুহরের সময় কোটি কোটি কণ্ঠে পবিত্র মীলাদ শরীফ মাহফিল, সারা দিনব্যাপী সহষ্রাধিক গাড়ীর বহর নিয়ে পুরো রাজধানী প্রদক্ষিণ করত  রাজধানীর প্রতি ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে পবিত্র মীলাদ শরীফ পাঠ এবং লক্ষাধিক তাবারুক প্যাকেট বিতরণ করা হয়েছে।

একইভাবে রাজারবাগ শরীফ উনার মুবারক পৃষ্ঠপোষকতায় পবিত্র মক্কা শরীফ, পবিত্র মদীনা শরীফসহ বহিবিশ্বের বহু শহর ও দেশে এবং বাংলাদেশের প্রতি জেলায় বেমেছাল ফালইয়াফরহূর সাথে পবিত্র মীলাদ শরীফ পাঠ ও তাবারুক বিতরণের মাধ্যমে মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ পালিত হয়েছে। সুবহানাল্লাহ।

তাছাড়াও সাইয়্যিদু সাইয়্যিদিশ শুহূরিল আ’যম শরীফ উনার সাইয়্যিদু সাইয়্যিদিল আ’দাদ শরীফ অর্থাৎ মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র ১২ই রবীউল আউওয়াল শরীফ উপলক্ষে রাজারবাগ দরবার শরীফ এবং উনার আশপাশের এলাকা পতাকা, তোরণ এবং রঙ্গিন বাতি দ্বারা অত্যন্ত দৃষ্টি নন্দন মনোমুগ্ধকর বর্ণিল সাজে সুসজ্জিত করা হয়। সুবহানাল্লাহ।

উল্লেখ যে, নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মুবারক আক্বীক্বাহ মুবারক উপলক্ষে রাজারবাগ শরীফে সাইয়্যিদু সাইয়্যিদিশ শুহূরিল আ’যম শরীফ উনার সাইয়্যিদু সাইয়্যিদিল আ’দাদ শরীফ অর্থাৎ মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র ১২ই রবীউল আউওয়াল শরীফ দুপুর হতে কয়েকদিনব্যাপী পশু জবাই অনুষ্ঠিত হয়। বিশ্বের সবচেয়ে বড় ৩টি গরুসহ শতাধিক গরু, বিশ্বের সবচেয়ে বড় ৩টি মহিষ এবং বিশ্বের সবচেয়ে বড় ৩টি খাসীসহ প্রায় অর্ধ সহ¯্র খাসী জবেহ করা হয়। সুবহানাল্লাহ।

আরো উল্লেখ যে, সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খ্বাতামুন নাবিয়্যীন, নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার জন্য আহলু বাইতি রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, সাইয়্যিদুনা হযরত সুলত্বানুন নাছীর আলাইহিস সালাম তিনি সাইয়্যিদু সাইয়্যিদিশ শুহূরিল আ’যম শরীফ উনার ৫ তারিখ, ১৯ তারিখ এবং ২৭ তারিখ এ ৩ দিন ১২ পদ বিশেষ বিশেষ খাবারের মাধ্যমে হাজার হাজার লোকের মেহমানদারীর বিশেষ ইন্তিজাম মুবারক করেন। সুবহানাল্লাহ।

বলাবাহুল্য যে, আহলু বাইতি রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, সাইয়্যিদুনা হযরত সুলত্বানুন নাছীর আলাইহিস সালাম তিনি বলেন,   আমি তো (সাইয়্যিদু সাইয়্যিদিশ শুহূরিল আ’যম শরীফ উনার সাইয়্যিদু সাইয়্যিদিল আ’দাদ শরীফ অর্থাৎ মহাসম্মানিত ও  মহাপবিত্র ১২ই রবীউল আউওয়াল শরীফ) সারা দিন অপেক্ষায় ছিলাম, দেখি নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনি কি বলেন। উনি তো কিছু বলেন না। যখন ছলাতুল মাগরিব উনার পবিত্র আযান মুবারক হলো, তখন নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনি বললেন- ‘আমি খুশী হয়েছি।’ (সুবহানা মামদূহ মুর্শিদ ক্বিবলা ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম!) যখন দিন শেষ হয়ে গেলো, আযান হলো, তখন আমি জিজ্ঞাসা করেছিলাম,  উনি বলেছেন- ‘হ্যাঁ; খুশী হয়েছি।’ আমি বললাম- ‘আমি কি এটা বলে দিবো?’ উনি বললেন- ‘হ্যাঁ; বলে দেন।’ নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনি বললেন- ‘আরো করলে, আরো বেশী খুশী হবো।’ সুবহানাল্লাহ। ভোর রাত্রে দেখলাম, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনি অনেক খুশী। উনি বললেন যে, ‘আমি অনেক খুশী হয়েছি।’ সুবহানাল্লাহ। কাজেই, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার জন্য আরো বেশি বেশি খুশি প্রকাশ করতে হবে।

আনজুমানে আল বাইয়্যিনাত ও মাহফিল সংবাদ

আনজুমানে আল বাইয়্যিনাত ও মাহফিল সংবাদ

আনজুমানে আল বাইয়্যনিাত ও মাহফলি সংবাদ

আনজুমানে আল বাইয়্যিনাত ও মাহফিল সংবাদ

আনজুমানে আল বাইয়্যিনাত ও মাহফিল সংবাদ