আ’লামু বিত্ ত্বিব, আ’লামু বিল ফারায়িদ্ব, আ’লামু বিসুনানি রসূলিল্লাহ, হুল্লাতুল ইসলাম, আশাদ্দু হিজাবান, ইমামুল আইম্মাহ, মুহ্ইস সুন্নাহ, কুতুবুল আলম, মুজাদ্দিদে আ’যম, হাবীবুল্লাহ, আওলাদে রসূল, সাইয়্যিদুনা ইমাম-রাজারবাগ শরীফ উনার মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম  উনার নাম মুবারক উনার পূর্বে ব্যবহৃত “মুহইউস সুন্নাহ” লক্বব মুবারক বা উপাধির তাত্ত্বিক ব্যাখ্যা বিশ্লেষণ-১৫১

সংখ্যা: ২৫৭তম সংখ্যা | বিভাগ:

-আল্লামা মুফতী মুহম্মদ কাওছার আহমদ

খাবারের শুরুতে এবং শেষে

লবণ খাওয়া সুন্নত (৪)

“তানযিয়াতুশ্ শরীয়াতিল মারফুয়াহ” কিতাবে উল্লেখ আছে-

عن حضرت على عليه السلام ان النبى صلى الله عليه وسلم قال له يا على عليه السلام عليك بالـملح فانه شفاء من سبعين داء اقلها الجذام والبرص والجنون.

অর্থ: হযরত কাররামাল্লাহু ওয়াজহাহূ আলাইহিস সালাম তিনি বর্ণনা করেন- একদা নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “হে কাররামাল্লাহু ওয়াজহাহূ আলাইহিস সালাম! আপনার জন্য লবণ খাওয়া আবশ্যক। কেননা, লবণে সত্তর প্রকার রোগের শিফা (রোগমুক্ত) রয়েছে। তার মধ্যে সবচেয়ে ছোট রোগটি হচ্ছে-কুষ্ট রোগ, শ্বেত কুষ্ট, মস্তিস্ক বিকৃত বা পাগলামী।”

উক্ত কিতাবে আরো বর্ণিত আছে-

عن حضرت سعد بن معاذ رضى الله تعالى عنه استفتحوا طعامكم بالـملح فوالذى نفسى بيده انه ليرد ثلاثا و سبعين من البلاء.

অর্থ: “হযরত সা’দ ইবনে মায়াজ রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু তিনি বর্ণনা করেন- তোমরা লবণ দ্বারা খাওয়া শুরু করবে। কেননা, ঐ পবিত্র সত্তা মহান আল্লাহ পাক উনার কসম, যার কুদরতী হাত মুবারকে আমার প্রাণ! যে ব্যক্তি লবন দ্বারা খাবার শুরু করবেন মহান আল্লাহ পাক তিনি অবশ্যই সে ব্যক্তির ৭৩ প্রকার রোগ দূর করে দিবেন।” সুবহানাল্লাহ!

আরো অনেক কিতাবে পবিত্র হাদীছ শরীফখানা উল্লেখ রয়েছে।  কোন কিতাবেই উক্ত পবিত্র হাদীছ শরীফ খানাকে মওজু বলা হয়নি। তবে কেউ কেউ উক্ত পবিত্র হাদীছ শরীফখানাকে যয়ীফ বলেছেন।

আর ইমাম, মুজতাহিদ, মুহাদ্দিছ ও আউলিয়ায়ে কিরাম রহমতুল্লাহি আলাইহিম সকলেই একমত যে, মুস্তাহাব-সুন্নত প্রমাণ করার ক্ষেত্রে যয়ীফ হাদীছ শরীফই যথেষ্ট।

পবিত্র হাদীছ শরীফখানা যদি ছহীহ হাদীছ শরীফ কিংবা হাসান হাদীছ শরীফ হতো তাহলে খাবারের পূর্বে ও পরে লবণ খাওয়া ফরয-ওয়াজিব ছাবিত (সাব্যস্ত) হতো।

নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি স্বয়ং নিজেই লবণ দ্বারা অনেক রোগের চিকিৎসা করেছেন

সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খাতামুন নাবিয়্যীন, নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি স্বয়ং নিজেই লবণ দ্বারা অনেক রোগের চিকিৎসা করেছেন। আল্লামা হযরত আবু নাঈম ইস্পাহানী রহমতুল্লাহি আলাইহি তিনি উনার বিশ্বখ্যাত ও সমাদৃত কিতাব “তিব্বু নববী ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম” উনার মধ্যে উল্লেখ করেছেন, একদা একটি হতভাগা বিচ্ছু নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাকে দংশন করলো। নাউযুবিল্লাহ! নাউযুবিল্লাহ! নাউযুবিল্লাহ! তখন তিনি পানিতে লবণ মিশিয়ে সেই পানি দংশিত স্থানে লাগালেন।

“আওয়ারিফুল মায়ারিফ” কিতাবে উল্লেখ রয়েছে, সাইয়্যিদাতু নিসায়িল আলামীন, সাইয়্যিদাতুনা হযরত ছিদ্দীক্বা আলাইহাস সালাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, একদা নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার বাম পা মুবারকের বৃদ্ধা অঙ্গুলী মুবারকে একটি হতভাগা বিচ্ছু দংশন করলো। নাউযুবিল্লাহ! নাউযুবিল্লাহ! নাউযুবিল্লাহ! যার কারণে উক্ত স্থান মুবারকটি সাদা বর্ণ মুবারক ধারণ করলো। তিনি লবণ এনে উনার হাত মুবারক উনার তালু মুবারকে রেখে তা উনার দংশিত মুবারক স্থানে লাগালেন। পরে ছিহ্হাতি শান মুবারক যাহির হলো।

ছাহিবুর রিদ্বওয়ান, আয়ায্যু উম্মাতিন নাবিয়্যি, আ’দালু উম্মাতিন নাবিয়্যি, ছাহিবুত্ তাক্বওয়া, মাহবুবুল্লাহ, ইমামুল আইম্মাহ, মুহ্ইস সুন্নাহ, কুতুবুল আলম, মুজাদ্দিদে আ’যম, হাবীবুল্লাহ, আওলাদে রসূল, সাইয়্যিদুনা ইমাম- রাজারবাগ শরীফ-এর মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা মুদ্দা জিল্লুহুল আলী-এর নাম মুবারকের পূর্বে ব্যবহৃত লক্বব বা উপাধির তাত্ত্বিক ব্যাখ্যা বিশ্লেষণ-৭৬

ছাহিবুর রিদ্বওয়ান, আয়ায্যু উম্মাতিন নাবিয়্যি, আ’দালু উম্মাতিন নাবিয়্যি, ছাহিবুত্ তাক্বওয়া, মাহবুবুল্লাহ, ইমামুল আইম্মাহ, মুহ্ইস সুন্নাহ, কুতুবুল আলম, মুজাদ্দিদে আ’যম, হাবীবুল্লাহ, আওলাদে রসূল, সাইয়্যিদুনা ইমাম- রাজারবাগ শরীফ-এর মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা মুদ্দা জিল্লুহুল আলী-এর নাম মুবারকের পূর্বে ব্যবহৃত লক্বব বা উপাধির তাত্ত্বিক ব্যাখ্যা বিশ্লেষণ-৭৭

ছাহিবুর রিদ্বওয়ান, আয়ায্যু উম্মাতিন নাবিয়্যি, আ’দালু উম্মাতিন নাবিয়্যি, ছাহিবুত্ তাক্বওয়া, মাহবুবুল্লাহ, ইমামুল আইম্মাহ, মুহ্ইস সুন্নাহ, কুতুবুল আলম, মুজাদ্দিদে আ’যম, হাবীবুল্লাহ, আওলাদে রসূল, সাইয়্যিদুনা ইমাম- রাজারবাগ শরীফ-এর মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা মুদ্দা জিল্লুহুল আলী-এর নাম মুবারকের পূর্বে ব্যবহৃত লক্বব বা উপাধির তাত্ত্বিক ব্যাখ্যা বিশ্লেষণ-৭৮

ছাহিবুর রিদ্বওয়ান, আয়ায্যু উম্মাতিন নাবিয়্যি, আ’দালু উম্মাতিন নাবিয়্যি, ছাহিবুত্ তাক্বওয়া, মাহবুবুল্লাহ, ইমামুল আইম্মাহ, মুহ্ইস সুন্নাহ, কুতুবুল আলম, মুজাদ্দিদে আ’যম, হাবীবুল্লাহ, আওলাদে রসূল, সাইয়্যিদুনা ইমাম- রাজারবাগ শরীফ-এর মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা মুদ্দা জিল্লুহুল আলী-এর নাম মুবারকের পূর্বে ব্যবহৃত লক্বব বা উপাধির তাত্ত্বিক ব্যাখ্যা বিশ্লেষণ-৭৯

ছাহিবুর রিদ্বওয়ান, আয়ায্যু উম্মাতিন নাবিয়্যি, আ’দালু উম্মাতিন নাবিয়্যি, ছাহিবুত্ তাক্বওয়া, মাহবুবুল্লাহ, ইমামুল আইম্মাহ, মুহ্ইস সুন্নাহ, কুতুবুল আলম, মুজাদ্দিদে আ’যম, হাবীবুল্লাহ, আওলাদে রসূল, সাইয়্যিদুনা ইমাম- রাজারবাগ শরীফ-এর মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা মুদ্দা জিল্লুহুল আলী-এর নাম মুবারকের পূর্বে ব্যবহৃত লক্বব বা উপাধির তাত্ত্বিক ব্যাখ্যা বিশ্লেষণ-৮০