ইমামুল মুসলিমীন, মুজাদ্দিদে মিল্লাত ওয়াদ দ্বীন, হাকিমুল হাদীছ, ইমামুল আইম্মাহ, মুহ্ইউস সুন্নাহ ইমামে আ’যম সাইয়্যিদুনা হযরত ইমাম আবূ হানীফা রহমতুল্লাহি আলাইহি-৭৪ (বিলাদাত শরীফ- ৮০ হিজরী, বিছাল শরীফ- ১৫০ হিজরী)

সংখ্যা: ২৮৮তম সংখ্যা | বিভাগ:

সম্মানিত কারামত মুবারক (১)

আক্বাঈদের কিতাবে উল্লেখ আছে-

كَرَامَاتُ الْاَوْلِيَاءِ حَقٌّ

অর্থ: “আউলিয়ায়ে কিরাম রহমতুল্লাহি আলাইহিম উনাদের কারামত মুবারক সত্য।” ওলীআল্লাহ হওয়ার জন্য কারামত মুবারক প্রকাশিত হওয়া শর্ত নয়। তবে প্রত্যেক ওলীআল্লাহ উনাদেরই প্রত্যেকেরই কিছু না কিছু কারামত মুবারক রয়েছে।

ইমামুল মুসলিমীন, মুজাদ্দিদে মিল্লাত ওয়াদ দ্বীন, হাকিমুল হাদীছ, ইমামুল মুহাদ্দিছীন সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামে আ’যম রহমতুল্লাহি আলাইহি উনার ক্ষেত্রেও ব্যতিক্রম হয়নি। উনার সত্তর বছর হায়াত মুবারকে অসংখ্য-অগণিত কারামত মুবারক প্রকাশিত হয়েছে। মূলত উনার পুরো যিন্দেগী মুবারকই কারামত মুবারক উনার অন্তর্ভুক্ত। সুবহানাল্লাহ! আলোচ্য শিরোনামে আমরা উনার কিছু কারামত মুবারক উল্লেখ করবো। মহান মালিকে আযম আলাইহিস সালাম তিনি কবুল করুন। আমীন!

হাফিয ইমাম যাহাবী রহমতুল্লাহি আলাইহি তিনি সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামে আ’যম রহমতুল্লাহি আলাইহি উনার সহপাঠী হযরত মিসওয়ার ইবনে কুদাম রহমতুল্লাহি আলাইহি উনার থেকে বর্ণনা করেন-

رَأَيْتُ الْاِمَامَ اَبَا حَنِيْفَةَ رَحْمَهُ اللهِ عَلَيْهِ قَرَأَ الْقُرْاٰنَ فِىْ رَكْعَةٍ

অর্থ: আমি সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামে আ’যম রহমতুল্লাহি আলাইহি উনাকে দেখেছি যে, তিনি এক রাকায়াতে পূর্ণ মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র কুরআন শরীফ খতম করেছেন। (সুবহানাল্লাহ!) (সিয়ারু আলামীন নুবালা)

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য যে, হযরত খারিজা ইবনে মুসয়াব রহমতুল্লাহি আলাইহি তিনি বলেন, চারজন সম্মানিত ইমাম ছিলেন। উনারা প্রত্যেকে এক রাকায়াতে সম্পূর্ণ মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র কুরআন শরীফ খতম করেছেন।

১.         খলীফাতুল মুসলিমীন, আমীরুল মু’মিনীন সাইয়্যিদুনা হযরত যিন নূরাইন আলাইহিস সালাম।

২.         ছহিবে রসূলিল্লাহ সাইয়্যিদুনা হযরত তামীমদারী রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু।

৩.         সাইয়্যিদুনা হযরত সাঈদ ইবনে যুবাইর রহমতুল্লাহি আলাইহি।

৪.         ইমামুল মুসলিমীন, মুজাদ্দিদে মিল্লাত ওয়াদ দ্বীন, সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামে আ’যম রহমাতুল্লাহি আলাইহি।

আরো উল্লেখ আছে যে, তিনি প্রতি রমাদ্বান শরীফ মাসে ৬১ বার মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র কুরআন শরীফ খতম করেতেন।

দিনে এক খতম রাতে এক খতম এবং মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র তারাবীহ উনার নামাযে এক খতম। সুবহানাল্লাহ! (তাহযীবুল কামাল-২৯/৪৩৪ আত তাবাকাতুস সুন্নিয়্যাহ ফী তারাজিমিল হানাফিয়্যাহ-১/৩২, তারীখে বাগদাদ- ১৩/৩৫৬)

সাইয়্যিদুনা হযরত আসাদ ইবনে আমর রহমতুল্লাহি আলাইহি তিনি বর্ণনা করেন- ইমামুল মুসলিমীন, মুজাদ্দিদে মিল্লাত ওয়াদ দ্বীন, সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামে আ’যম রহমাতুল্লাহি আলাইহি তিনি রাতের বেলা তাহাজ্জুদ নামায আদায় করতেন। তিনি প্রতি রাতে এক খতম মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র কুরআন শরীফ পড়তেন। আর এত বেশী  কাঁদতেন যে, তাতে প্রতিবেশীর দয়া  হতো। তিনি চল্লিশ বছর পর্যন্ত ইশার নামাযের ওযূ দ্বারা ফজরের নামায আদায় করেছেন। তিনি যে স্থানে পবিত্র বিছালী শান মুবারক প্রকাশ করেছেন সেখানে সত্তর হাজার বার মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র কুরআন শরীফ খতম করেছেন। সুবহানাল্লাহ! (তারীখে বাগদাদ -১৩/৩৫৪, তাযীবুল কামাল-২৯/৪৩৪, ওয়াফিয়াতুল আ’ইয়ান-৫/৪১৩, আল বিদায়াহ ওয়ান নিহায়াহ-১০/১৩৮, সিয়ারু আলামিন নুবালা- ১১/৪৮৪, ইমাম আ’যম আবু হানীফা (রহমতুল্লাহি আলাইহি) এর জীবন ও কর্ম-৮৩৪)

সুলত্বানুল হিন্দ, কুতুবুল মাশায়িখ, মুজাদ্দিদ যামান, গরীবে নেওয়াজ, আওলাদে রসূল, হাবীবুল্লাহ সাইয়্যিদুনা হযরত খাজা মুঈনুদ্দীন হাসান চিশতী আজমিরী সাঞ্জারী রহমতুল্লাহি আলাইহি-৪৬ (বিলাদত শরীফ ৫৩৬ হিজরী, বিছাল শরীফ ৬৩৩ হিজরী)

ইমামুল মুসলিমীন, মুজাদ্দিদে মিল্লাত ওয়াদ দ্বীন, হাকিমুল হাদীছ, ইমামুল আইম্মাহ, মুহ্ইউস সুন্নাহ ইমামে আ’যম সাইয়্যিদুনা হযরত ইমাম আবূ হানীফা রহমতুল্লাহি আলাইহি-৬২ (বিলাদাত শরীফ- ৮০ হিজরী, বিছাল শরীফ- ১৫০ হিজরী)

পঞ্চদশ হিজরী শতকের মুজাদ্দিদ, মুজাদ্দিদে আ’যম, আওলাদুর রসূল, ইমাম রাজারবাগ শরীফ উনার সাইয়্যিদুনা মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম উনার মহা সম্মানিতা আম্মা, আওলাদুর রসূল, সাইয়্যিদাতুনা আমাদের- হযরত দাদী হুযূর ক্বিবলা কা’বা আলাইহাস সালাম উনার সীমাহীন ফাদ্বায়িল-ফদ্বীলত, বুযূর্গী-সম্মান, মান-শান, বৈশিষ্ট্য এবং উনার অনুপম মাক্বাম সম্পর্কে কিঞ্চিৎ আলোকপাত-৬৬ -মুহম্মদ সা’দী

ওলীয়ে মাদারজাদ, মুসতাজাবুদ্ দা’ওয়াত, আফযালুল ইবাদ, ছাহিবে কাশফ্ ওয়া কারামত, ফখরুল আউলিয়া, ছূফীয়ে বাত্বিন, ছাহিবে ইস্মে আ’যম, লিসানুল হক্ব, গরীবে নেওয়াজ, আওলাদে রসূল, আমাদের সম্মানিত দাদা হুযূর ক্বিবলা আলাইহিস সালাম উনার স্মরণে- একজন কুতুবুয্ যামান উনার দীদারে মাওলা উনার দিকে প্রস্থান-২১৬ -মুহম্মদ সা’দী

সুলত্বানুল হিন্দ, কুতুবুল মাশায়িখ, মুজাদ্দিদ যামান, গরীবে নেওয়াজ, আওলাদে রসূল, হাবীবুল্লাহ সাইয়্যিদুনা হযরত খাজা মুঈনুদ্দীন হাসান চিশতী আজমিরী সাঞ্জারী রহমতুল্লাহি আলাইহি-৪৭ (বিলাদত শরীফ ৫৩৬ হিজরী, বিছাল শরীফ ৬৩৩ হিজরী)