উম্মু মুর্শিদিনা ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, ক্বায়িম মাক্বামে উম্মু রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, মালিকুদ দুনিয়া ওয়াল আখিরাহ, মুত্বহ্হার, মুত্বহ্হির, আছ ছমাদ, আহলু বাইতি রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম সাইয়্যিদাতুনা আমাদের- হযরত দাদী হুযূর ক্বিবলা কা’বা আলাইহাস সালাম উনার সীমাহীন ফাদ্বায়িল-ফদ্বীলত, বুযূর্গী-সম্মান, মান-শান, বৈশিষ্ট্য এবং উনার অনুপম মাক্বাম সম্পর্কে কিঞ্চিৎ আলোকপাত-৭২ -মুহম্মদ সা’দী

সংখ্যা: ২৮২তম সংখ্যা | বিভাগ:

পূর্ব প্রকাশিতের পর

 

মুবারক শৈশব ও কৈশোর থেকেই সাইয়্যিদাতুনা হযরত দাদী হুযূর ক্বিবলা কা’বা আলাইহাস সালাম উনার সুন্নত মুবারক এবং শরয়ী পর্দা পালনের একনিষ্ঠ অভ্যস্ততা:

 

এ কামিয়াবী প্রসঙ্গে মালিকুত তামাম, ক্বাসিমুন নিয়াম, সাইয়্যিদুল আনাম, সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, নূরে মুজাসসাম, মাশুকে মাওলা, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন:

مَنْ حَفِظَ سُنَّتِىْ اَكْرَمَهُ اللهُ تَعَالٰى بِاَرْبَعِ خِصَالٍ اَلْمَحَبَّةُ فِىْ قُلُوْبِ الْبَرَرَةِ وَالْـهَيْبَةُ فِىْ قُلُوْبِ الْفَجَرَةِ وَالسَّعَةُ فِى الرِّزْقِ وَالثِّقَةُ فِى الدِّيْنِ

অর্থ: “যে ব্যক্তি আমার সম্মানিত সুন্নত মুবারক হিফাজত করলেন, মহান আল্লাহ পাক তিনি ওই ব্যক্তিকে চারটি নিয়ামত মুবারক দ্বারা সম্মানিত করবেন। যথা: ১. নেককার আল্লাহওয়ালাগণ ওই ব্যক্তিকে মুহব্বত করবেন। ২. ফাসিক্ব-ফুজ্জার ও গুনাহগার লোকেরা উনাকে ভয় করবেন। ৩. মহান আল্লাহ পাক তিনি উনার রিযিকে স্বচ্ছলতা দান করবেন। ৪. সম্মানিত দ্বীন ইসলাম উনার ব্যাপারে মহান আল্লাহ পাক উনাকে সকলের কাছে গ্রহণযোগ্য করে তুলবেন।” সুবহানাল্লাহ!

সাইয়্যিদাতুনা হযরত দাদী হুযূর ক্বিবলা কা’বা আলাইহাস সালাম তিনি সম্মানিত সুন্নত মুবারক পরিপূর্ণরূপে হিফাজত করেছেন। এ কারণে মহান আল্লাহ পাক এবং উনার প্রিয়তম হাবীব সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, আকরামুল আউওয়ালীন ওয়াল আখিরীন, নূরে মুজাসসাম, মাশুকে মাওলা, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাকে (মহাসম্মানিতা সাইয়্যিদাতুনা হযরত দাদী হুযূর ক্বিবলা কা’বা আলাইহাস সালাম) উপরোক্ত পবিত্র হাদীছ শরীফে বর্ণিত সকল নিয়ামত মুবারকে ধন্য করেছেন। সুবহানাল্লাহ! অর্থাৎ কুল কায়িনাতের সকল গউস, কুতুব, আবদাল, ইমাম, মুজতাহিদ, মুজাদ্দিদ, নজীব-নুক্বাবা, নক্বীব-নুক্বাবাসহ সকল জাহিরী ও বাতিনী আউলিয়ায়ে কিরাম রহমতুল্লাহি আলাইহিমগণ উনারা সাইয়্যিদাতুনা হযরত দাদী হুযূর ক্বিবলা কা’বা আলাইহাস সালাম উনার প্রতি অনুরক্ত হয়ে এবং উনাকে মুহব্বত করে যাবতীয় নিয়ামত সম্ভারে ধন্য হয়েছেন। সুবহানাল্লাহ!

দ্বিতীয়ত: সকল ফাসিক্ব-ফুজ্জার, কাফির, বেদ্বীন, বদদ্বীন, মুনাফিক এবং উলামায়ে সূ’সহ সকল বাতিল গোষ্ঠীর কাছে তিনি ভীতির কারণ হয়েছেন। সুবহানাল্লাহ!

তৃতীয়ত: দুনিয়াবী ও উখরবী যাবতীয় কল্যাণসহ সকল নিয়ামতপূর্ণ রিযিকদানে মহান আল্লাহ পাক তিনি এবং নূরে মুজাসসাম, মাশুকে মাওলা, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি উনাকে ধন্য করেছেন। সুবহানাল্লাহ! (চলবে)

সুলত্বানুল হিন্দ, কুতুবুল মাশায়িখ, মুজাদ্দিদুয যামান, গরীবে নেওয়াজ, আওলাদে রসূল, হাবীবুল্লাহ সাইয়্যিদুনা হযরত খাজা মুঈনুদ্দীন হাসান চিশতী আজমিরী সাঞ্জারী রহমতুল্লাহি আলাইহি-৫০ (বিলাদত শরীফ ৫৩৬ হিজরী, বিছাল শরীফ ৬৩৩ হিজরী)

ইমামুল মুসলিমীন, মুজাদ্দিদে মিল্লাত ওয়াদ দ্বীন, হাকিমুল হাদীছ, ইমামুল আইম্মাহ, মুহ্ইউস সুন্নাহ ইমামে আ’যম সাইয়্যিদুনা হযরত ইমাম আবূ হানীফা রহমতুল্লাহি আলাইহি-৬৬ (বিলাদাত শরীফ- ৮০ হিজরী, বিছাল শরীফ- ১৫০ হিজরী)

উম্মু মুর্শিদিনা ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, ক্বায়িম মাক্বামে উম্মু রসূলিনা ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, মালিকুদ দুনিয়া ওয়াল আখিরাহ, মুত্বহ্হার, মুত্বহ্হির, আছ ছমাদ, আহলু বাইতি রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম সাইয়্যিদাতুনা আমাদের- হযরত দাদী হুযূর ক্বিবলা কা’বা আলাইহাস সালাম উনার সীমাহীন ফাদ্বায়িল-ফদ্বীলত, বুযূর্গী-সম্মান, মান-শান, বৈশিষ্ট্য এবং উনার অনুপম মাক্বাম সম্পর্কে কিঞ্চিৎ আলোকপাত-৭০ -মুহম্মদ সা’দী

সুলত্বানুল হিন্দ, কুতুবুল মাশায়িখ, মুজাদ্দিদুয যামান, গরীবে নেওয়াজ, আওলাদে রসূল, হাবীবুল্লাহ সাইয়্যিদুনা হযরত খাজা মুঈনুদ্দীন হাসান চিশতী আজমিরী সাঞ্জারী রহমতুল্লাহি আলাইহি-৫১ (বিলাদত শরীফ ৫৩৬ হিজরী, বিছাল শরীফ ৬৩৩ হিজরী)

ইমামুল মুসলিমীন, মুজাদ্দিদে মিল্লাত ওয়াদ দ্বীন, হাকিমুল হাদীছ, ইমামুল আইম্মাহ, মুহ্ইউস সুন্নাহ ইমামে আ’যম সাইয়্যিদুনা হযরত ইমাম আবূ হানীফা রহমতুল্লাহি আলাইহি-৬৭ (বিলাদাত শরীফ- ৮০ হিজরী, বিছাল শরীফ- ১৫০ হিজরী)