ক্বায়িম মাক্বাম আবূ রসূলিনা ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, মালিকুদ দুনিয়া ওয়াল আখিরাহ্, মাখ্দূমুল কায়িনাত, মুত্বহ্হার, মুত্বহ্হির, আছ ছমাদ, আহলু বাইতি রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম আমাদের মহাসম্মানিত হযরত দাদা হুযূর ক্বিবলা আলাইহিস সালাম উনার দীদারে মাওলা উনার দিকে প্রস্থান-২২৩ -মুহম্মদ সা’দী

সংখ্যা: ২৮৩তম সংখ্যা | বিভাগ:

পূর্ব প্রকাশিতের পর

মুবারক জীবন সায়াহ্নে এসে সার্বিক ক্ষেত্রে ক্বায়িম মাক্বামে হাবীবুল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম উনার অতুলনীয় কামিয়াবী প্রত্যক্ষ করে সাইয়্যিদুনা হযরত দাদা হুযূর ক্বিবলা কা’বা আলাইহিস সালাম

তিনি পরম ইতমিনান:

নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক  ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক  করেন-

مَنْ تَـمَسَّكَ بِسُنَّتِـىْ عِنْدَ فَسَادِ اُمَّتِـىْ فَلَهٗ اَجْرُ مِأَةِ شَهِيْدٍ

অর্থ: “আমার যে উম্মত ফিৎনা-ফাসাদের যামানায় একটিমাত্র সম্মানিত সুন্নত মুবারক আঁকড়িয়ে ধরবেন, মহান আল্লাহ পাক উনাকে (বদর ও ওহুদের জিহাদে অংশগ্রহণকারী) একশতজন শহীদ উনাদের সমপরিমাণ ফযীলতদান করবেন।” সুবহানাল্লাহ! একটিমাত্র সম্মানিত সুন্নত মুবারক পালন করার  কারণে যদি একশত শহীদের ফযীলত হাছিল  করা যায়, তাহলে যিনি পবিত্র মাথার তালু মুবারক থেকে পবিত্র ক্বদম মুবারক উনার তলা মুবারক পর্যন্ত এবং হায়াতে ত্বয়্যিবায় আজ অবধি যাবতীয় সম্মানিত সুন্নত মুবারক দায়িমীভাবে পালন করছেন এবং উনার মুবারক উসীলায় সমগ্র পৃথিবীর কোটি কোটি জিন-ইনসান সম্মানিত সুন্নত  মুবারক পালনে অভ্যস্ত হচ্ছেন, সেই প্রাণের আক্বা, ক্বিবলা কা’বা, সাইয়্যিদে মুজাদ্দিদে আ’যম, আন নি’মাতুল উজমা আলাল আলাম, আল গাউসুল আ’যম, আছছমাদ, হাবীবুল্লাহ, আহলু বাইতি রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, সাইয়্যিদুনা মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা কা’বা আলাইহিস সালাম উনার শান-মান, মর্যাদা-মাক্বাম কায়িনাতবাসীর ধ্যান-ধারণা, চিন্তা-চেতনা, উপলব্ধি ও সমঝের সীমাহীন উর্ধ্বে। সুবহানাল্লাহ!

ক্বায়িম-মাক্বামে আবূ রসুলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, মাখদূমুল কায়িনাত, মুত্বহহার, মুত্বহহির, আছছমাদ, আওলাদে রসূল, আবূ মুর্শিদিনা ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, আখাছছুল খাছ আহলু বাইতি রসূলিল্লাহ  ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম সাইয়্যিদুনা হযরত দাদা হুযূর ক্বিবলা কা’বা আলাইহিস সালাম তিনি এবং উনার ছাহিবাতুল মুকাররামাহ উম্মু মুর্শিদিনা ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, ক্বায়িম-মাক্বামে উম্মু রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, আওলাদে রসূল, মুত্বহহির, আছছমাদ, আখাছছুল খাছ আহলু বাইতি রসূলিল্লাহ  ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, সাইয়্যিদাতুনা হযরত দাদী হুযূর ক্বিবলা, কা’বা আলাইহাস সালাম উনারা যাবতীয় সম্মানিত সুন্নত মুবারক ইত্তিবা এবং  কায়িনাতব্যাপী জারী করার কারণে নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সঙ্গে নিগূঢ় নিসবত স্থাপিত হওয়ার মাধ্যমে উনার দয়া-দান, ইহসান এবং হাক্বীক্বী দুআ’ মুবারক লাভ করার জন্যই সাইয়্যিদুনা হযরত দাদা হুযূর ক্বিবলা কা’বা আলাইহিস সালাম উনার এবং সাইয়্যিদাতুনা হযরত দাদী হুযূর ক্বিবলা কা’বা আলাইহাস সালাম উনাদের শান-মান, ইজ্জত-ঐতিহ্য ও মর্যাদা বিশ্বব্যাপী সমাদৃত। সুবহানাল্লাহ! (অসমাপ্ত)

সুলত্বানুল হিন্দ, কুতুবুল মাশায়িখ, মুজাদ্দিদ যামান, গরীবে নেওয়াজ, আওলাদে রসূল, হাবীবুল্লাহ সাইয়্যিদুনা হযরত খাজা মুঈনুদ্দীন হাসান চিশতী আজমিরী সাঞ্জারী রহমতুল্লাহি আলাইহি-৪৬ (বিলাদত শরীফ ৫৩৬ হিজরী, বিছাল শরীফ ৬৩৩ হিজরী)

ইমামুল মুসলিমীন, মুজাদ্দিদে মিল্লাত ওয়াদ দ্বীন, হাকিমুল হাদীছ, ইমামুল আইম্মাহ, মুহ্ইউস সুন্নাহ ইমামে আ’যম সাইয়্যিদুনা হযরত ইমাম আবূ হানীফা রহমতুল্লাহি আলাইহি-৬২ (বিলাদাত শরীফ- ৮০ হিজরী, বিছাল শরীফ- ১৫০ হিজরী)

পঞ্চদশ হিজরী শতকের মুজাদ্দিদ, মুজাদ্দিদে আ’যম, আওলাদুর রসূল, ইমাম রাজারবাগ শরীফ উনার সাইয়্যিদুনা মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম উনার মহা সম্মানিতা আম্মা, আওলাদুর রসূল, সাইয়্যিদাতুনা আমাদের- হযরত দাদী হুযূর ক্বিবলা কা’বা আলাইহাস সালাম উনার সীমাহীন ফাদ্বায়িল-ফদ্বীলত, বুযূর্গী-সম্মান, মান-শান, বৈশিষ্ট্য এবং উনার অনুপম মাক্বাম সম্পর্কে কিঞ্চিৎ আলোকপাত-৬৬ -মুহম্মদ সা’দী

ওলীয়ে মাদারজাদ, মুসতাজাবুদ্ দা’ওয়াত, আফযালুল ইবাদ, ছাহিবে কাশফ্ ওয়া কারামত, ফখরুল আউলিয়া, ছূফীয়ে বাত্বিন, ছাহিবে ইস্মে আ’যম, লিসানুল হক্ব, গরীবে নেওয়াজ, আওলাদে রসূল, আমাদের সম্মানিত দাদা হুযূর ক্বিবলা আলাইহিস সালাম উনার স্মরণে- একজন কুতুবুয্ যামান উনার দীদারে মাওলা উনার দিকে প্রস্থান-২১৬ -মুহম্মদ সা’দী

সুলত্বানুল হিন্দ, কুতুবুল মাশায়িখ, মুজাদ্দিদ যামান, গরীবে নেওয়াজ, আওলাদে রসূল, হাবীবুল্লাহ সাইয়্যিদুনা হযরত খাজা মুঈনুদ্দীন হাসান চিশতী আজমিরী সাঞ্জারী রহমতুল্লাহি আলাইহি-৪৭ (বিলাদত শরীফ ৫৩৬ হিজরী, বিছাল শরীফ ৬৩৩ হিজরী)