ছাহিবুর রিদ্বওয়ান, আয়ায্যু উম্মাতিন নাবিয়্যি, আ’দালু উম্মাতিন নাবিয়্যি, ছাহিবুত্ তাক্বওয়া, মাহবুবুল্লাহ, ইমামুল আইম্মাহ, মুহ্ইস সুন্নাহ, কুতুবুল আলম, মুজাদ্দিদে আ’যম, হাবীবুল্লাহ, আওলাদে রসূল, সাইয়্যিদুনা ইমাম- রাজারবাগ শরীফ-এর মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা মুদ্দা জিল্লুহুল আলী-এর নাম মুবারকের পূর্বে ব্যবহৃত লক্বব বা উপাধির তাত্ত্বিক ব্যাখ্যা বিশ্লেষণ-৮৩

সংখ্যা: ১৮৯তম সংখ্যা | বিভাগ:

-হযরত মাওলানা মুফতী সাইয়্যিদ মুহম্মদ আব্দুল হালীম

‘মুহ্ইস সুন্নাহ’ লক্বব মুবারক প্রসঙ্গে

খলীফাতুল্লাহ, খলীফাতু রসূলিল্লাহ, ইমামুল আইম্মাহ, মুহ্ইস সুন্নাহ, কুতুবুল আলম, মুজাদ্দিদে আ’যম, আওলাদে রসূল, সাইয়্যিদুনা ইমাম রাজারবাগ শরীফ-এর মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা মুদ্দা জিল্লুহুল আলী-এর জিন্দাকৃত বা পুনঃপ্রচলন করা কতিপয় সুন্নতের বিবরণ:

লুঙ্গি পরিধানের সীমা

লুঙ্গি, পাজামা, নিছফু সাক্ব (হাঁটু ও টাখনুর মাঝামাঝি স্থান) থেকে শুরু করে টাখনুর উপরিভাগ পর্যন্ত পরিধান করা খাছ সুন্নত। টাখনু স্পর্শ করতে পারবে না। টাখনুর নিচে লুঙ্গি, পাজামা কিংবা কোর্তা বা জামা পরিধান করা জায়িয নেই। আর নিছফু সাক্ব-এর উপরে পরিধান করাও যাবে না। হাদীছ শরীফ-এর কিতাব পর্যালোচনা করে দেখা গেছে আল্লাহ পাক-এর হাবীব, সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম-এর লুঙ্গি মুবারক নিছফু সাক্ব অর্থাৎ হাঁটু ও টাখনুর মাঝামাঝি স্থানে ঝুলানো ছিল। আবার কখনো কখনো তা নিছফু সাক্ব-এর নিচেও ছিল।

উনি কখনো পায়জামা পরিধান করেননি। তবে উনাকে মীনা বাজার থেকে হযরত ওমর রদ্বিয়াল্লাহু আনহু একটি পায়জামা খরিদ করে দিয়েছিলেন। কিন্তু উনি তা কখনো পরিধান করেননি। (মাদারিজুন নুবুওওয়াত)। তবে কেউ কেউ বলেছেন যে, তিনি তা পরিধান করেছিলেন। যামানার ইমাম ও মুজতাহিদ্ ইমামুল আইম্মাহ, মুহইস্ সুন্নাহ, কুতুবুল আলম, মুজাদ্দিদে আ’যম, আওলাদে রসূল, সাইয়্যিদুনা ইমাম রাজারবাগ শরীফ-এর মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা মুদ্দা জিল্লুহুল আলী বলেন যে, এ মতটি ছহীহ নয়। কিন্তু হযরত ছাহাবায়ে কিরাম রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুমগণ পরিধান করেছিলেন।

হাদীছ শরীফ-এ বর্ণিত আছে-

عن ابى العالية رضى الله تعالى عنه ان رسول الله صلى الله عليه وسلم كان ازاره الى نصف ساقيه وكان له ازار قد اسبل خيوطه فلم يجزه ولم يكفه.

অর্থ: হযরত আবুল আলীয়া রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু হতে বর্ণিত আছে যে, আল্লাহ পাক-এর হাবীব সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম-এর লুঙ্গি মুবারক নিছফু সাক্ব বা পায়ের নলা মুবারকের অর্ধাংশ পর্যন্ত ঝুলান্ত থাকতো। তাছাড়া উনার একটি লুঙ্গি মুবারক এমন ছিল যে, সেই লুঙ্গি মুবারকের সুতাগুলো ঝুলে থাকত। তিনি সেগুলো কেটেও ফেলেননি, সেলাই করে আটকিয়েও দেননি।” (আখলাকুন নবী- ১৬৯)

উল্লেখ যে, এই হাদীছ শরীফখানা দ্বারা একথা আবারো দিবালোকের মত স্পষ্ট হলো যে, আল্লাহ পাক-এর হাবীব সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম-এর ইযার বা লুঙ্গি মুবারক ছিল সিলাইবিহীন। সিলাইবিহীন লুঙ্গির দু’মাথা কাটা থাকার কারণে দু’দিকে সুতা বেশি ঝুলে যায়। কিন্তু যদি কেচি দিয়ে না কেটে বরং ছিঁড়ে নেয়া হয় তাহলে ততবেশি সুতা ঝুলানো থাকে না।

যামানার ইমাম ও মুজতাহিদ, খলীফাতুল্লাহ, খলীফাতু রসূলিল্লাহ, ইমামুল আইম্মাহ, মুহইস সুন্নাহ, কুতুবুল আলম, মুজাদ্দিদে আ’যম, আওলাদে রসূল সাইয়্যিদুনা ইমাম রাজারবাগ শরীফ-এর হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা মুদ্দা জিল্লুহুল আলীকে এরূপ সুতা ঝুলে থাকা লুঙ্গি মুবারক পরিহিত অবস্থায় দেখার সৌভাগ্য হয়েছে। (আলহামদুলিল্লাহ)। অর্থাৎ তিনি আল্লাহ পাক-এর হাবীব, আখিরী রসূল, সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম-এর খাছ নায়িব ও আওলাদ হওয়ার কারণে উনার এ সুন্নতটিও তিনি আদায় করেছেন। (সুবহানাল্লাহ)

হাদীছ শরীফ-এ আরো বর্ণিত আছে যে,

عن الاشعث بن سليم قال سمعت عمتى تحدث عن عمها انه راى ازار رسول الله صلى الله عليه وسلم اسفل الى نصف الساق.

অর্থ: হযরত আশয়াস ইবনে সুলাইম রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু থেকে বর্ণিত। “তিনি বলেন, আমার ফুফুকে উনার চাচার নিকট থেকে হাদীছ শরীফ বর্ণনা করতে শুনেছি। উনার চাচা দেখেছেন, আল্লাহ পাক-এর হাবীব, সাইয়্যিদুল মুরসালীন ইমামুল মুরসালীন হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম-এর পরিধানের লুঙ্গি মুবারক নিছফু সাক্ব তথা পায়ের নলা মুবারকের অর্ধেকের নিচ পর্যন্ত ঝুলানো ছিল।” (আখলাকুন্্ নবী-১৬৮)

(অসমাপ্ত)

মুত্বহ্হার, মুত্বহ্হির, আহলু বাইতি রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, ক্বায়িম মাক্বামে হাবীবুল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম মাওলানা রাজারবাগ শরীফ উনার মামদূহ মুর্শিদ ক্বিবলা সাইয়্যিদুনা হযরত সুলত্বানুন নাছীর আলাইহিস সালাম উনার মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র নাম মুবারক উনার পূর্বে ব্যবহৃত “মুহইস সুন্নাহ” লক্বব মুবারক বা উপাধির তাত্ত্বিক ব্যাখ্যা বিশ্লেষণ-১৮৯

ছাহিবুর রিদ্বওয়ান, আয়ায্যু উম্মাতিন নাবিয়্যি, আ’দালু উম্মাতিন নাবিয়্যি, ছাহিবুত্ তাক্বওয়া, মাহবুবুল্লাহ, ইমামুল আইম্মাহ, মুহ্ইস সুন্নাহ, কুতুবুল আলম, মুজাদ্দিদে আ’যম, হাবীবুল্লাহ, আওলাদে রসূল, সাইয়্যিদুনা, ইমাম- রাজারবাগ শরীফ-এর হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা মুদ্দা জিল্লুহুল আলী-এর নাম মুবারকের পূর্বে ব্যবহৃত লক্বব বা উপাধির তাত্ত্বিক ব্যাখ্যা বিশ্লেষণ-৭৪

ছাহিবুর রিদ্বওয়ান, আয়ায্যু উম্মাতিন নাবিয়্যি, আ’দালু উম্মাতিন নাবিয়্যি, ছাহিবুত্ তাক্বওয়া, মাহবুবুল্লাহ, ইমামুল আইম্মাহ, মুহ্ইস সুন্নাহ, কুতুবুল আলম, মুজাদ্দিদে আ’যম, হাবীবুল্লাহ, আওলাদে রসূল, সাইয়্যিদুনা ইমাম- রাজারবাগ শরীফ-এর মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা মুদ্দা জিল্লুহুল আলী-এর নাম মুবারকের পূর্বে ব্যবহৃত লক্বব বা উপাধির তাত্ত্বিক ব্যাখ্যা বিশ্লেষণ-৭৫

ছাহিবুর রিদ্বওয়ান, আয়ায্যু উম্মাতিন নাবিয়্যি, আ’দালু উম্মাতিন নাবিয়্যি, ছাহিবুত্ তাক্বওয়া, মাহবুবুল্লাহ, ইমামুল আইম্মাহ, মুহ্ইস সুন্নাহ, কুতুবুল আলম, মুজাদ্দিদে আ’যম, হাবীবুল্লাহ, আওলাদে রসূল, সাইয়্যিদুনা ইমাম- রাজারবাগ শরীফ-এর মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা মুদ্দা জিল্লুহুল আলী-এর নাম মুবারকের পূর্বে ব্যবহৃত লক্বব বা উপাধির তাত্ত্বিক ব্যাখ্যা বিশ্লেষণ-৭৬

ছাহিবুর রিদ্বওয়ান, আয়ায্যু উম্মাতিন নাবিয়্যি, আ’দালু উম্মাতিন নাবিয়্যি, ছাহিবুত্ তাক্বওয়া, মাহবুবুল্লাহ, ইমামুল আইম্মাহ, মুহ্ইস সুন্নাহ, কুতুবুল আলম, মুজাদ্দিদে আ’যম, হাবীবুল্লাহ, আওলাদে রসূল, সাইয়্যিদুনা ইমাম- রাজারবাগ শরীফ-এর মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা মুদ্দা জিল্লুহুল আলী-এর নাম মুবারকের পূর্বে ব্যবহৃত লক্বব বা উপাধির তাত্ত্বিক ব্যাখ্যা বিশ্লেষণ-৭৭