ছাহিবুর রিদ্বওয়ান, আয়ায্যু উম্মাতিন নাবিয়্যি, আ’দালু উম্মাতিন নাবিয়্যি, ছাহিবুত্ তাক্বওয়া, মাহবুবুল্লাহ, ইমামুল আইম্মাহ, মুহ্ইস সুন্নাহ, কুতুবুল আলম, মুজাদ্দিদে আ’যম, হাবীবুল্লাহ, আওলাদে রসূল, সাইয়্যিদুনা ইমাম- রাজারবাগ শরীফ-উনার মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম নাম মুবারকের পূর্বে ব্যবহৃত লক্বব বা উপাধির তাত্ত্বিক ব্যাখ্যা বিশ্লেষণ-৮১

সংখ্যা: ১৮৭তম সংখ্যা | বিভাগ:

-হযরত মাওলানা মুফতী সাইয়্যিদ মুহম্মদ আব্দুল হালীম

 

‘মুহ্ইস সুন্নাহ’ লক্বব মুবারক প্রসঙ্গে:

খলীফাতুল্লাহ, খলীফাতু রসূলিল্লাহ, ইমামুল আইম্মাহ, মুহ্ইস সুন্নাহ, কুতুবুল আলম, মুজাদ্দিদে আ’যম, আওলাদে রসূল, সাইয়্যিদুনা ইমাম রাজারবাগ শরীফ-এর মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা মুদ্দা জিল্লুহুল আলী-এর জিন্দাকৃত বা পুনঃপ্রচলন করা কতিপয় সুন্নতের বিবরণ:

গুটলিযুক্ত কোর্তা পরিধান করা সুন্নতঃ

জামার গেরেবান আটকানোর গুটলি কাপড়ের তৈরি হওয়াই খাছ সুন্নত। প্লাস্টিক, স্টিল ইত্যাদি বোতাম সুন্নত নয়। গুটলিকে আরবীতে বলা হয় زر (র্যিরুন) আর তার বহুবচন হচ্ছে ازرار (আয্রারুন) ও زرور (যুরূরুন) হিন্দী ভাষায় যাকে ঘু-ী তথা গুটলী বলা হয়। (কামুছ, আল মুহীত, লিসানুল আরব, মিসবাহুল লুগাত, ফিরোজুল লুগাত, লুগাতে সাঈদী, লুগাতে হীরা, গিয়াসুল লুগাত ইত্যাদি)

তাছাড়া নিম্নলিখিত কিতাবসমূহে বিস্তারিত বর্ণনা রয়েছে যে, গুটলিযুক্ত কোর্তা বা জামা পরিধান করা খাছ সুন্নত। আবূ দাউদ শরীফ, নাসায়ী শরীফ, মিশকাত শরীফ, শরহে আবূ দাউদ লি বদরুদ্দীন আইনী, আউনুল মা’বুদ, বযলুল মাজহুদ, শরহুত ত্বীবী, মিরকাত, তালীকুছ ছবী, যখীরাতুল উকবা ফী শরহিল মুজতবা, শরহুল মুনীয়া, শামায়িলুত্ তিরমিযী, জামউল ওয়াসায়িল, মাওয়াহিবুল লাদুন্নীয়া, ওয়াফা, আল বাইয়্যিনাত-১৪০তম সংখ্যা ৫৬ পৃষ্ঠা)

ইযার বা সিলাইবিহীন লুঙ্গি পরিধান করা খাছ সুন্নত:

আল্লাহ পাক-এর হাবীব, সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম সিলাইবিহীন লুঙ্গি মুবারক পরিধান করতেন। তিনি কখনো সিলাইযুক্ত লুঙ্গি পরিধান করেননি। এমনকি সমস্ত নবী-রসূল আলাইহিমুস্ সালামই সিলাইবিহীন লুঙ্গি মুবারক পরিধান করেছেন। হযরত আবু বুরদাহ রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু বলেন-

اخرجت الينا حضرت عائشة رضى الله تعالى عنها كساء ملبدا او ازارا غليظا فقالت قبض روح النبى صلى الله عليه وسلم فى هذين.

অর্থ: একদা হযরত আয়িশা ছিদ্দীক্বা রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহা আমাদের সামনে একটি চাদর এবং একটি মোটা সিলাইবিহীন লুঙ্গি বের করে আনলেন। অতঃপর বললেন, এ দু’টি কাপড় মুবারক পরিহিত অবস্থায় আল্লাহ পাক-এর হাবীব হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বিছাল শরীফ লাভ করেন। (বুখারী শরীফ-২/২৮৫, শামায়িলুত্ তিরমিযী-৯, মুসলিম শরীফ, ইবনু মাযাহ শরীফ, আল বাইয়্যিনাত ১২৬তম সংখ্যা-৩১ পৃষ্ঠা, শরহে ইমাম আব্দুর রউফ মানাবী মিছরী-১/২১০, মাওয়াহিবুল্ লাদুন্নিয়া-১০২)

হযরত ছাহাবায়ে কিরাম রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুমগণও সিলাইবিহীন লুঙ্গি পরিধান করতেন:

আল্লাহ পাক-এর হাবীব হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামকে অনুসরণ করে হযরত ছাহাবায়ে কিরাম রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুমগণও সিলাইবিহীন লুঙ্গি মুবারক পরিধান করেছেন। এ প্রসঙ্গে হাদীছ শরীফে বর্ণিত আছে, একদা আল্লাহ পাক-এর হাবীব, সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বললেন-

من جاء ثوبه خيلاء لم ينظر الله تعالى اليه يوم القيامة فقال ابو بكر الصديق رضى الله تعالى عنه يا رسول الله صلى الله عليه وسلم ان احد شقى ازارى يسترخى الا ان اتعاهد ذلك منه فقال النبى صلى الله عليه وسلم لست ممن يصنه خيلاء.

অর্থ: যে ব্যক্তি পরিধানের কাপড় অহঙ্কারবশতঃ (গিরার নিচে) ঝুলিয়ে চলে আল্লাহ পাক কিয়ামতের দিন তার দিকে (রহমতের দৃষ্টিতে) তাকাবেন না। তখন হযরত আবু বকর ছিদ্দীক রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু আরয করলেন- ইয়া রসূলাল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম! আমার সিলাইবিহীন লুঙ্গির একপ্রান্ত ঝুলে পড়ে। যদি না আমি তাতে গিরা দেই। আল্লাহ পাক-এর হাবীব হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ইরশাদ করলেন, আপনি তাদের অন্তর্ভুক্ত নন। যারা অহঙ্কারবশতঃ কাপড় ঝুলিয়ে চলে। (বুখারী শরীফ- ২/৮৬০, জামউল ওসায়িল-১/২১৬, ফতহুল বারী-১০/২৫৫, উমদাতুল কারী-২১/২৯৫, ইরশাদুস সারী-৮/৪১৭)

উক্ত হাদীছ শরীফে বর্ণিত, “আমার লুঙ্গির একপ্রান্ত ঝুলে পড়ে” দ্বারা প্রমাণিত হলো যে, হযরত আবূ বকর ছিদ্দীক রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু-এর সিলাইবিহীন লুঙ্গি ছিল। কারণ সিলাইযুক্ত হলে এক প্রান্ত ঝুলে থাকার প্রশ্নই উঠে না। বিস্তারিত জানার জন্য আল বাইয়্যিনাত শরীফ ১২৬তম সংখ্যা ৩২ পৃষ্ঠা দ্রষ্টব্য।

ছাহিবুর রিদ্বওয়ান, আয়ায্যু উম্মাতিন নাবিয়্যি, আ’দালু উম্মাতিন নাবিয়্যি, ছাহিবুত্ তাক্বওয়া, মাহবুবুল্লাহ, ইমামুল আইম্মাহ, মুহ্ইস সুন্নাহ, কুতুবুল আলম, মুজাদ্দিদে আ’যম, হাবীবুল্লাহ, আওলাদে রসূল, সাইয়্যিদুনা ইমাম- রাজারবাগ শরীফ-এর মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা মুদ্দা জিল্লুহুল আলী-এর নাম মুবারকের পূর্বে ব্যবহৃত লক্বব বা উপাধির তাত্ত্বিক ব্যাখ্যা বিশ্লেষণ-৭৮

ছাহিবুর রিদ্বওয়ান, আয়ায্যু উম্মাতিন নাবিয়্যি, আ’দালু উম্মাতিন নাবিয়্যি, ছাহিবুত্ তাক্বওয়া, মাহবুবুল্লাহ, ইমামুল আইম্মাহ, মুহ্ইস সুন্নাহ, কুতুবুল আলম, মুজাদ্দিদে আ’যম, হাবীবুল্লাহ, আওলাদে রসূল, সাইয়্যিদুনা ইমাম- রাজারবাগ শরীফ-এর মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা মুদ্দা জিল্লুহুল আলী-এর নাম মুবারকের পূর্বে ব্যবহৃত লক্বব বা উপাধির তাত্ত্বিক ব্যাখ্যা বিশ্লেষণ-৭৯

ছাহিবুর রিদ্বওয়ান, আয়ায্যু উম্মাতিন নাবিয়্যি, আ’দালু উম্মাতিন নাবিয়্যি, ছাহিবুত্ তাক্বওয়া, মাহবুবুল্লাহ, ইমামুল আইম্মাহ, মুহ্ইস সুন্নাহ, কুতুবুল আলম, মুজাদ্দিদে আ’যম, হাবীবুল্লাহ, আওলাদে রসূল, সাইয়্যিদুনা ইমাম- রাজারবাগ শরীফ-এর মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা মুদ্দা জিল্লুহুল আলী-এর নাম মুবারকের পূর্বে ব্যবহৃত লক্বব বা উপাধির তাত্ত্বিক ব্যাখ্যা বিশ্লেষণ-৮০

ছাহিবুর রিদ্বওয়ান, আয়ায্যু উম্মাতিন নাবিয়্যি, আ’দালু উম্মাতিন নাবিয়্যি, ছাহিবুত্ তাক্বওয়া, মাহবুবুল্লাহ, ইমামুল আইম্মাহ, মুহ্ইস সুন্নাহ, কুতুবুল আলম, মুজাদ্দিদে আ’যম, হাবীবুল্লাহ, আওলাদে রসূল, সাইয়্যিদুনা ইমাম- রাজারবাগ শরীফ-এর মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা মুদ্দা জিল্লুহুল আলী-এর নাম মুবারকের পূর্বে ব্যবহৃত লক্বব বা উপাধির তাত্ত্বিক ব্যাখ্যা বিশ্লেষণ-৮২

ছাহিবুর রিদ্বওয়ান, আয়ায্যু উম্মাতিন নাবিয়্যি, আ’দালু উম্মাতিন নাবিয়্যি, ছাহিবুত্ তাক্বওয়া, মাহবুবুল্লাহ, ইমামুল আইম্মাহ, মুহ্ইস সুন্নাহ, কুতুবুল আলম, মুজাদ্দিদে আ’যম, হাবীবুল্লাহ, আওলাদে রসূল, সাইয়্যিদুনা ইমাম- রাজারবাগ শরীফ-এর মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা মুদ্দা জিল্লুহুল আলী-এর নাম মুবারকের পূর্বে ব্যবহৃত লক্বব বা উপাধির তাত্ত্বিক ব্যাখ্যা বিশ্লেষণ-৮৩