পঞ্চদশ হিজরী শতকের মুজাদ্দিদ, মুজাদ্দিদে আ’যম, আওলাদুর রসূল, ইমাম রাজারবাগ শরীফ উনার সাইয়্যিদুনা মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম উনার মহা সম্মানিতা আম্মা আওলাদুর রসূল, সাইয়্যিদাতুনা আমাদের- হযরত দাদী হুযূর ক্বিবলা আলাইহাস সালাম (২৯) উনার সীমাহীন ফাদ্বায়িল-ফদ্বীলত, বুযূর্গী-সম্মান, মান-শান, বৈশিষ্ট্য এবং  উনার অনুপম মাক্বাম সম্পর্কে কিঞ্চিৎ আলোকপাত

সংখ্যা: ২৩৯তম সংখ্যা | বিভাগ:

-মুহম্মদ সাদী

পূর্বপ্রকাশিতের পর

মুবারক শৈশব ও কৈশোর থেকেই সাইয়্যিদাতুনা হযরত দাদী হুযূর ক্বিবলা আলাইহাস সালাম উনার সুন্নত মুবারক ও শরয়ী পর্দা পালনের একনিষ্ঠ অভ্যস্ততা

ওলীয়ে মাদারযাদ, আওলাদে রসূল, উম্মু সাইয়্যিদে মুজাদ্দিদিল আ’যম, ক্বায়িম-মাক্বামে উম্মু রসূলিল্লাহি ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, সাইয়্যিদাতু নিসায়িল আলামীন, সাইয়্যিদাতুনা হযরত সাইয়্যিদা দাদী হুযূর ক্বিবলা কা’বা আলাইহাস সালাম তিনি সূক্ষ্মাতিসূক্ষ্ম-পুঙ্খানুপুঙ্খরূপে যাবতীয় সুন্নত পালনের দায়িমী অভ্যস্ততায় মহান আল্লাহ পাক সুবহানাহু ওয়া তায়ালা এবং রহমতুল্লিল আলামীন, রউফুর রহীম, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাদের সঙ্গে পরম নৈকট্য-সংযোগ হাছিল করেন। শীর্ষ পর্যায়ের কামিয়াবী হাছিলের কারণে সকল মহিলা উনার প্রতি অনুরক্ত হয়ে পড়েন। হাক্বীক্বী হিদায়েত প্রত্যাশী মহিলাগণ উনার পবিত্র সন্নিধানে গিয়ে সিরাতুল মুস্তাক্বীমে অধিষ্ঠিত হয়েছেন। তিনি ছিলেন সকল মহিলার অনুসরণীয়, অনুকরণীয়। সুবহানাল্লাহ!

পুরুষ ও মহিলা ওলীআল্লাহ উনারা মহান আল্লাহ পাক সুবহানাহু ওয়া তায়ালা উনার এবং উনার প্রিয়তম রসূল, নূরে মুজাসসাম, মাশুকে মাওলা, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাদের প্রতি পরিপূর্ণরূপে অনুগত হওয়ায়, অর্থাৎ উনারা তায়াল্লুক মায়াল্লাহ এবং তায়াল্লুক মা’য়ার রসূল ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাদের চূড়ান্ত সোপানে উপনীত হওয়ায় সকলেই উনাদের অনুগামী হয়ে থাকেন। আর এটিইতো নিয়ম যে, যিনি মহান আল্লাহ পাক উনার এবং উনার হাবীব সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খাতামুন নাবিয়্যীন, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাদের প্রতি পরিপূর্ণরূপে অনুগত, কুল কায়িনাত উনার প্রতি অনুগত। ওলীয়ে মাদারযাদ, আওলাদে রসূল, সাইয়্যিদাতুনা হযরত দাদী হুযূর ক্বিবলা আলাইহাস সালাম তিনি এরূপ মুবারক অবস্থার বাস্তব নমুনা ছিলেন। সুবহানাল্লাহ!

যিনি যেমন তার পরিণতিও তেমন হয়ে থাকে। সূক্ষ্মদর্শী মাহবুব ওলীআল্লাহগণ উনারা উনাদের হায়াত মুবারকে এবং উনাদের পবিত্র বিছাল শরীফ উনার পরে সকলের অনুসরণীয়-অনুকরণীয় হয়ে থাকেন। উসূল রয়েছে:

مقدمة الحرام حرام ومقدمة الحلال حلال.

অর্থ:- “যার মূল হারাম, তার সবই হারাম। আর যাঁর মূল হালাল, তার সবই হালাল।” আমরা পূর্বেই জেনেছি, সাইয়্যিদাতুনা হযরত দাদী হুযূর ক্বিবলা কা’বা আলাইহাস সালাম তিনি আখাছছুল খাছ আওলাদে রসূল। এ কারণে তিনি নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মহা-সম্মানিত হযরত আহলে বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের অন্তর্ভুক্ত। সুবহানাল্লাহ! বুযূর্গ পিতা-মাতা আলাইহিমাস সালামসহ উনার সম্মানিত বুযূর্গ পূর্বপুরুষ উনাদের পবিত্র সম্পৃক্তি ক্রমান্বয়ে গিয়ে মিলিত হয়েছে আকরামুল আউওয়ালীন ওয়াল আখিরীন, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সঙ্গে। সুবহানাল্লাহ!

উপরোক্ত উসূলের প্রেক্ষিতে অতি নিকৃষ্ট দু’টি ঘটনা উদাহরণ হিসেবে এখানে উল্লেখ করা যায়। তাহলো: ইরানের শিয়াদের তথাকথিত ধর্মীয় নেতা খোমেনীর মৃত্যুর পর অনুগত ও ভক্তরা স্মৃতি চিহ্ন হিসেবে তাদের কাছে সংরক্ষণের জন্য তার দাড়ি তুলে নিতে থাকে। এভাবে শিষ্যরা তার প্রায় সব দাড়ি উপরে ফেলে। সম্মানিত ঈমান ও ইসলাম থেকে খারিজ কুফরী আক্বীদায় আক্রান্ত তথাকথিত ধর্মীয় নেতার প্রতি তার শিষ্যরা মেকী আবেগ ও মুহব্বতের আতিশয্যে যে কাজটি করেছে, তা কতো জঘন্য! একই ঘটনা ঘটেছে কাট্টা মালউন রবী ঠগ-এর ক্ষেত্রে। এতে বুঝা গেলো, খোমেনী ও রবী ঠগ তাদের উভয়ের এবং তাদের অনুগতদের মূলে রয়েছে প্রকট হারাম ও কাট্টা কুফরী। নাউযুবিল্লাহ! তাই তাদের জীবনাবসানেও অনুগামীরা তাদের দাড়ি উপরে ফেলার ঘৃণ্য কুফরী কাজটি করেছে। অর্থাৎ যার মূলে হারাম ও কুফরী, তার বহিঃপ্রকাশ কী বীভৎস! তার কী জঘন্য পরিণতি! নাউযুবিল্লাহ!

পক্ষান্তরে পুরুষ অথবা মহিলা ওলীআল্লাহ উনাদের পবিত্র হায়াত মুবারকে এবং উনাদের পবিত্র বিছাল শরীফে উনাদের কতো উচ্চ মাক্বাম, মর্যাদা ও মহিমা! উনাদের পবিত্র জীবদ্দশায় এবং পবিত্র বিছাল শরীফে উনারা একইভাবে সম্মানিত, বরণীয়, অনুসরণীয়, অনুকরণীয়। কারণ উনাদের মূলে রয়েছে বিশুদ্ধ ঈমান ও বিশুদ্ধ আক্বীদা এবং রয়েছে মহান আল্লাহ পাক সুবহানাহূ ওয়া তায়ালা এবং নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাদের পরিপূর্ণ রিযামন্দি-সন্তুষ্টিজনিত নেক বিষয়সমূহের সম্পৃক্ততা। এ ক্ষেত্রে আমরা ওলীয়ে মাদারযাদ, আওলাদে রসূল, সাইয়্যিদাতুনা হযরত দাদী হুযূর ক্বিবলা কা’বা আলাইহাস সালাম উনার মুবারক বিষয় দৃষ্টান্ত হিসেবে উল্লেখ করতে পারি। (চলবে)

ওলীয়ে মাদারজাদ, মুসতাজাবুদ্ দা’ওয়াত, আফযালুল ইবাদ, ছাহিবে কাশফ্ ওয়া কারামত, ফখরুল আওলিয়া, ছূফীয়ে বাতিন, ছাহিবে ইস্মে আ’যম, লিসানুল হক্ব, গরীবে নেওয়াজ, আওলাদে রসূল, আমাদের সম্মানিত দাদা হুযূর ক্বিবলা রহমতুল্লাহি আলাইহি-এর স্মরণে- একজন কুতুবুয্ যামান-এর দিদারে মাওলার দিকে প্রস্থান-১২৫

ওলীয়ে মাদারজাদ, মুসতাজাবুদ্ দা’ওয়াত, আফযালুল ইবাদ, ছাহিবে কাশফ্ ওয়া কারামত, ফখরুল আওলিয়া, ছূফীয়ে বাতিন, ছাহিবে ইস্মে আ’যম, লিসানুল হক্ব, গরীবে নেওয়াজ, আওলাদে রসূল, আমাদের সম্মানিত দাদা হুযূর ক্বিবলা রহমতুল্লাহি আলাইহি-এর স্মরণে- একজন কুতুবুয্ যামান-এর দিদারে মাওলার দিকে প্রস্থান-১২৬

ওলীয়ে মাদারজাদ, মুসতাজাবুদ্ দা’ওয়াত, আফযালুল ইবাদ, ছাহিবে কাশফ্ ওয়া কারামত, ফখরুল আওলিয়া, ছূফীয়ে বাতিন, ছাহিবে ইস্মে আ’যম, লিসানুল হক্ব, গরীবে নেওয়াজ, আওলাদে রসূল, আমাদের সম্মানিত দাদা হুযূর ক্বিবলা রহমতুল্লাহি আলাইহি-এর স্মরণে- একজন কুতুবুয্ যামান-এর দিদারে মাওলার দিকে প্রস্থান-১২৭

ওলীয়ে মাদারজাদ, মুসতাজাবুদ্ দা’ওয়াত, আফযালুল ইবাদ, ছাহিবে কাশফ্ ওয়া কারামত, ফখরুল আওলিয়া, ছূফীয়ে বাতিন, ছাহিবে ইস্মে আ’যম, লিসানুল হক্ব, গরীবে নেওয়াজ, আওলাদে রসূল, আমাদের সম্মানিত হযরত দাদা হুযূর ক্বিবলা রহমতুল্লাহি আলাইহি-এর স্মরণে- একজন কুতুবুয্ যামান-এর দিদারে মাওলার দিকে প্রস্থান-১২৮

ওলীয়ে মাদারজাদ, মুসতাজাবুদ্ দা’ওয়াত, আফযালুল ইবাদ, ছাহিবে কাশফ্ ওয়া কারামত, ফখরুল আওলিয়া, ছূফীয়ে বাতিন, ছাহিবে ইস্মে আ’যম, লিসানুল হক্ব, গরীবে নেওয়াজ, আওলাদে রসূল, আমাদের সম্মানিত হযরত দাদা হুযূর ক্বিবলা রহমতুল্লাহি আলাইহি-এর স্মরণে- একজন কুতুবুয্ যামান-এর দিদারে মাওলার দিকে প্রস্থান-১২৯