পবিত্র মাহে রবীউছ ছানী শরীফ ও তার প্রাসঙ্গিক আলোচনা

সংখ্যা: ২২২তম সংখ্যা | বিভাগ:

হযরত মাওলানা মুফতী সাইয়্যিদ শুয়াইব আহমদ

 

‘রবীউছ ছানী’ আরবী মাসের চতুর্থ মাস। এ মাসটি হযরত আওলিয়ায়ে কিরাম রহমতুল্লাহি আলাইহিম উনাদের সাওয়ানেহে উমরী মুবারক বর্ণনা বা আলোচনা করার খাছ মাস। কারণ, এ মাসটির ১১ই তারিখ পবিত্র সোমবার শরীফ দিনটিতে মহান আল্লাহ পাক উনার লক্ষ্যস্থল ওলী, গাউছুল আ’যম, সাইয়্যিদুল আওলিয়া, মুজাদ্দিদুয যামান, আওলাদে রসূল হযরত বড়পীর ছাহিব রহমতুল্লাহি আলাইহি তিনি বিছাল শরীফ লাভ করেন। সুবহানাল্লাহ!

আবার এ মাসেরই ১৯ তারিখ মুবারক দিনটিতে বিলাদত শরীফ লাভ করেন বর্তমান পঞ্চদশ হিজরী শতকের যিনি মুজাদ্দিদ, মুজাদ্দিদে আ’যম, আওলাদে রসূল ইমাম রাজারবাগ শরীফ উনার হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম উনার লখতে জিগার, ছানী আওলাদ, সাইয়্যিদাহ, ছিদ্দীক্বাহ, আতীক্বাহ, হুমায়রা, ত্বাহিরাহ, তইয়িবাহ, জামীলাহ, হাজীবাহ, হাবীবাতুল্লাহ, উম্মুল ওয়ারা, সাইয়্যিদাতুন নিসা হযরত নিবরাসাতুল উমাম শাহযাদী ছানী ক্বিবলা আলাইহাস সালাম। সুবহানাল্লাহ!

স্মরণীয় যে, যামানার মুজাদ্দিদগণ উনারা যেরূপভাবে মহান আল্লাহ পাক ও উনার রসূল, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাদের তরফ থেকে মনোনীত ও মকবূল তদ্রƒপ উনার যাঁরা সম্মানিত আহলে বাইত, আল-আওলাদ উনারাও মহান আল্লাহ পাক উনার ও উনার রসূল, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাদের তরফ থেকে মনোনীত ও মকবুল।

বিশেষ করে, মুজাদ্দিদ আ’যম সাইয়্যিদুনা ইমাম রাজারবাগ শরীফ উনার হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম উনার মনোনীত ও মকবুল হযরত আহলে বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনারা হচ্ছেন প্রত্যেকেই আওলাদে রসূল ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার অন্তর্ভুক্ত। উনারা এমন মর্যাদা-মর্তবার অধিকারী, যাঁদেরকে মুহব্বত ও অনুসরণ করার ব্যাপারে পবিত্র কুরআন শরীফ ও পবিত্র হাদীছ শরীফ উনাদের মধ্যে নির্দেশ করা হয়েছে। যেমন- পবিত্র কুরআন শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে, মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন-

قل لا اسئلكم عليه اجرا الا الـمودة فى القربى

অর্থ : “হে আমার হাবীব ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম! আপনি উম্মতদেরকে বলুন, আমি তোমাদের নিকট কোন প্রতিদান বা বিনিময় চাই না, আর তোমরা তা দিতেও পারবে না, তবে তোমাদের নিজেদের ফায়দা হাছিলের জন্যে আমার যাঁরা আপনজন অর্থাৎ আমার আহলে বাইত ও আওলাদ আলাইহিমুস সালাম উনাদেরকে মুহব্বত ও সম্মান করবে।” (পবিত্র সূরা শূরা শরীফ: পবিত্র আয়াত শরীফ ২৩)

পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে, নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন-

احبوا اهل بيتى

অর্থ : “তোমরা আমার আহলে বাইত, অর্থাৎ আল-আওলাদ আলাইহিমুস সালাম উনাদেরকে মুহব্বত করো।” (মিশকাত শরীফ)

মূলত নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার আহলে বাইত, আল-আওলাদ আলাইহিমুস সালাম উনাদেরকে মুহব্বতকারী এবং অনুসরণকারীগণ সকলেই জান্নাতী। সুবহানাল্লাহ!

পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে-

من مات على حب ال محمد صلى الله عليه وسلم بشره ملك الـموت بالجنة ثم منكر و نكير

অর্থ : “যে ব্যক্তি নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার আল-আওলাদ আলাইহিমুস সালাম উনাদের মুহব্বত নিয়ে ইনতিকাল করবে তাঁকে হযরত মালাকুল মউত এবং হযরত মুনকার ও হযরত নাকীর ফেরেশতা আলাইহিমুস সালাম উনারা জান্নাতের সুসংবাদ দিবেন।” (আশ্শরফুল মুয়ায়িদ)

পক্ষান্তরে যারা নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার আল-আওলাদ আলাইহিমুস সালাম উনাদের বিদ্বেষী হবে তারা জাহান্নামীদের অন্তর্ভুক্ত হবে। নাউযুবিল্লাহ! যেমন এ প্রসঙ্গে পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে-

لو ان رجلا صعد بين الركن والـمقام فصلى وصام ثم مات وهو مبغض لاهل بيت محمد صلى الله عليه وسلم دخل النار

অর্থা : “যদি কোন ব্যক্তি বাইতুল্লাহ শরীফ উনার হাজরে আসওয়াদ ও মাক্বামে ইবরাহীম উনাদের মধ্যে নামায পড়ে এবং রোযাও রাখে কিন্তু আমার আহলে বাইত, আল-আওলাদ আলাইহিমুস সালাম উনাদের প্রতি বিদ্বেষ পোষণ করে, সে জাহান্নামে প্রবেশ করবে।” নাউযুবিল্লাহ! (যাখায়িরুল উক্ববা-১৮ পৃষ্ঠা)

অতএব, মহান আল্লাহ পাক ও উনার রসূল নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাদের সন্তুষ্টি হাছিল করতে হলে এবং জাহান্নামের কঠিন আযাব থেকে পরিত্রাণ পেতে হলে নিঃসন্দেহে হযরত মুজাদ্দিদে আ’যম আলাইহিস সালাম এবং উনার সম্মানিত আহলে বাইত আলাইহিমুস সালাম উনাদের মুহব্বত ও অনুসরণ শ্রেষ্ঠতম ওসীলা।

মাহে যিলক্বদ এবং তার প্রাসঙ্গিক আলোচনা

মাহে যিলহজ্জ এবং তার প্রাসঙ্গিক আলোচনা

মাহে মুহররম এবং তার প্রাসঙ্গিক আলোচনা -হযরত মাওলানা মুফতী সাইয়্যিদ শুয়াইব আহমদ

মাহে ছফর এবং তার প্রাসঙ্গিক আলোচনা

সাইয়্যিদুল আসইয়াদ, সাইয়্যিদুশ শুহূর, শাহরুল আ’যম মাহে রবীউল আউয়াল শরীফ ও তার প্রাসঙ্গিক আলোচনা