বিশ্ব সমাদৃত, হযরত আওলিয়ায়ে কিরাম রহমতুল্লাহি আলাইহিমগণের অনুপম মুবারক চরিত গ্রন্থ আখবারুল আখইয়ার-১৪৬

সংখ্যা: ১৮৭তম সংখ্যা | বিভাগ:

মূলঃ হযরত শায়খ আব্দুল হক মুহাদ্দিছে দেহ্লবী রহমতুল্লাহি আলাইহি, ভাষান্তরঃ মাওলানা মুহম্মদ ফযলুল হক

হযরত শায়খ শরফুদ্দীন আহমদ

রহমতুল্লাহি আলাইহি ৬৮৫-৭৫৬হি:

 

পূর্ব প্রকাশিতের পর

দেখ! ফিরআউনের যাদুকর একদা সকালবেলা তার যাদুর ক্ষেত্রে ভুল পথে পরিচালিত হলো। তার যাদুর মাধ্যমে সে আল্লাহ পাক-এর নবী ও রসূল হযরত মূসা আলাইহিস্ সালামকে কষ্ট দিতে চাইলো। কিন্তু যখনই যাদুকর তার যাদুমন্ত্র নিয়ে হযরত মূসা আলাইহিস্ সালাম-এর সামনে আসল ঠিক তখনই মহান আল্লাহ পাক-এর গায়েবী মদদ উনার প্রতি বর্ষিত হলো। কিছুক্ষণের মধ্যেই মহান আল্লাহ পাক উনার মা’রিফাত ও মুহব্বতের টুপি উনার মাথা মুবারকে জড়িয়ে দিলেন এবং আল্লাহ পাক-এর তাওহীদের তখ্তে হযরত মূসা আলাইহিস্ সালামকে বসিয়ে দিলেন। আর এ সকল নিয়ামতরাজির বদৌলতে হযরত মূসা আলাইহিস্ সালাম দুনিয়ার সকল বুরায়ী এবং আখিরাতের সকল ভালাই উপলব্ধি করতে পারলেন। তৎক্ষণাৎ গায়েবী নেদা হয়েছিল والله خيرو ابقى মহান আল্লাহ পাক-এর জাতে পাকই সর্বোত্তম ও চিরস্থায়ী।

হে ভাই! আপনাকে মহান আল্লাহ পাক-এর রহমতের যে হিস্যা দান করা হয়েছে উহাকে সুদৃঢ়ভাবে আঁকড়ে ধরে রাখুন। আর ঐ নিয়ামতরাজি পাওয়ার ব্যাপারে কোনরূপ ফখর বা অহঙ্কার করবেন না।

শুনুন-

শে’র:-

ہر کسراں آفتاب ایں جابتافب +انچہ آنجا وعدہ بود ا  ینجا بتافت

কোন ব্যক্তি যেখানেই সে অবস্থান করুক সূর্য তাকে আলোকিত করবেই। এটা মহান আল্লাহ পাক-এর ঐ ওয়াদারই নামান্তর যে তিনি যাদেরকেই প্রতিপালন করেন তাদের সকলকেই রিযিক-দৌলত ইত্যাদি নিয়ামতরাজি দান করেন। সর্বদা খুশি বা আনন্দিত থাক, বরকতময় জীবন যাপন কর ও সকলকে ভালবাস।

ہست دریا ئے محبت بے کنار. لاجرم یک تشنگی شد صد ہزار.

মুহব্বতের দরিয়া কূল কিনারাহীন, কেবলমাত্র একবার মুহব্বতের সুধা পান করা হাজার বার পান করার নামান্তর। এই দুনিয়ার সমস্ত কার্যকলাপই হিম্মতের উপর নির্ভরশীল। সুতরাং যার হিম্মত যতবেশি তার পিপাসাও তত বেশি।

ہر کہ صاحب ہمت آمد مردشد. ہمچو خورشید ازبلندی فردشد

যে ব্যক্তি হিম্মতওয়ালা তিনিই প্রকৃত মানুষ, তিনি সূর্যের মত উপরে উঠেন ও নিচে নেমে যান।

বিপদাপদের মাধ্যমে জীবনের পরিবর্তনের সময় কঠিন ধৈর্যের দ্বারা ওটাকে বরদাশ্ত করা ছাড়া উপায় নেই। কঠিন পরস্থিতিতে ধৈর্য ধারণ করা শিখ। অন্যথায় তোমার মধ্যে অপরিপক্কতা থেকে যাবে। এই নছীহত শুধুমাত্র তোমার একার জন্যই নয়; বরং ইহা সমস্ত সালিক-এর জন্য।

হে ভাই! মহান আল্লাহ পাক-এর তাওহীদ বা একত্ববাদের পথ নেককার পরহিযগার আল্লাহওয়ালা লোকদের দ্বীন বা ধর্ম। ইহা এমন এক সীমাহীন মহাসমুদ্র যাতে বান্দার ইলম আকল সবই গরক হয়ে যায়। যতই লেখা হোক যতই বলা হোক ঐ সীমাহীন সমুদ্রে যে পতিত হয়েছে সে  عالم এর মধ্যে পরীক্ষিত হয়েছে। মূলতঃ একথার উদাহরণ এই যে,

قطرہ کو غرق دردر یا بود + ہر دو کونش جز خدا سوا بود.

অর্থ: যে ব্যক্তি মজ্জুব বা মস্তি হালে কোন কথা বলে হাক্বীক্বতে সে মাজ্জুব। তার জন্য সর্বোত্তম আদত এই যে,

الاستقامة على الشريعة مع كتمان السر.

শরীয়তের উপর পরিপূর্ণ ইস্তিক্বামত থাকা গুপ্তভেদ গোপন রাখার সমপর্যায়।

হে ভাই! কোন ব্যক্তি যদি এই দুনিয়াতে

افرأيت من اتخذ الهه هواه.

অর্থ: যে ব্যক্তি তার কুপ্রবৃত্তিকে অনুসরণ করে তাকে কি আপনি দেখেছেন? এ আয়াত শরীফ-এর মিছদাক হয় (নফসের পূজারী হয়) আর তার অবস্থা এমন হয় যে সে لا (লা) এর মধ্যেই আবদ্ধ থাকে। لا এর প্রতি মনোনিবেশ না করে (نفى এর মধ্যে থাকে اثبات এর মাধ্যমে না যায়) তাহলে ভালোভাবে জেনে রাখ যে, ইহা ইবলিসের মাকাম। এই ধরনের মানুষ সম্পর্কে বলা হয়েছে-

معشوقہ مرا گفت نشیں بردر من + مگزار دروں  ہر کہ ند ارد سر من

অর্থ: আমার মা’শুক আমাকে বলেছেন তুমি আমার দরজায় বসে যাও। ঐ সকল লোকদেরকে ভিতরে প্রবেশ করতে দিবে না যারা আমার গুপ্তভেদ সম্পর্কে অজ্ঞ।

(অসমাপ্ত)

বিশ্ব সমাদৃত, হযরত আওলিয়ায়ে কিরাম রহমতুল্লাহি আলাইহিমগণের অনুপম মুবারক চরিত গ্রন্থ আখবারুল আখইয়ার- ১৩৯

বিশ্ব সমাদৃত, হযরত আওলিয়ায়ে কিরাম রহমতুল্লাহি আলাইহিমগণের অনুপম মুবারক চরিত গ্রন্থ আখবারুল আখইয়ার-১৪০

বিশ্ব সমাদৃত, হযরত আওলিয়ায়ে কিরাম রহমতুল্লাহি আলাইহিমগণের অনুপম মুবারক চরিত গ্রন্থ আখবারুল আখইয়ার-১৪১

বিশ্ব সমাদৃত, হযরত আওলিয়ায়ে কিরাম রহমতুল্লাহি আলাইহিমগণের অনুপম মুবারক চরিত গ্রন্থ আখবারুল আখইয়ার-১৪২

বিশ্ব সমাদৃত, হযরত আওলিয়ায়ে কিরাম রহমতুল্লাহি আলাইহিমগণের অনুপম মুবারক চরিত গ্রন্থ আখবারুল আখইয়ার-১৪৩