বিশ্ব সমাদৃত হযরত আওলিয়ায়ে কিরাম রহমতুল্লাহি আলাইহিম উনাদের অনুপম মুবারক চরিতগ্রন্থ আখবারুল আখইয়ার-১৫৭ মূল: হযরত শায়খ আব্দুল হক মুহাদ্দিছে দেহ্লবী রহমতুল্লাহি আলাইহি, ভাষান্তর: মাওলানা মুহম্মদ ফযলুল হক হযরত শায়খ হুসাইন রহমতুল্লাহি আলাইহি (৮২০-৯০১ হিজরী)

সংখ্যা: ১৯৮তম সংখ্যা | বিভাগ:

পূর্ব প্রকাশিতের পর

এজন্য যে, দুনিয়াবী ওই সকল লোক দৈনন্দিন জীবনে সামাজিকভাবে বসবাস করা ছেড়ে দিয়ে জঙ্গলে শুধুমাত্র একাকী রিয়াযত মাশাক্কাতে মশগুল থাকে। শেষ পর্যন্ত (একাকী হওয়ার কারণে বিভিন্ন সমস্যায় পড়ে) মহান আল্লাহ পাক উনাকেও অস্বীকার করে বসে।

ওই সকল লোক যারা মহান আল্লাহ পাক উনার সন্তুষ্টি হাসিল করে উনার মুবারক দীদার (মিছালী ছুরত) হাসিল করেন এবং উনারই ইবাদতে মশগুল থাকেন তিনিই মূলত মহান আল্লাহ পাক উনার একত্ববাদে হাক্বীক্বীভাবে বিশ্বাসী। তিনি উনাকে অস্বীকার ও অবিশ্বাস করা থেকেও মুক্ত। তিনিই মাখলুকাত থেকে ফায়দা হাসিল করে থাকেন।

ওহে ভাই! সমগ্র কায়িনাতকে স্বীয় কুদরত দ্বারা রক্ষাকারী ও বেষ্টনকারী মহান আল্লাহ পাক যিনি গইরে মাহদূদ ও লাইন্তিহা উনার পর্যন্ত পৌঁছা বা উনার সন্তুষ্টি হাসিল করা সকলের জন্য আবশ্যক। মূলত উনার মিছালী ছূরত মুবারক দুনিয়াতে থেকেই দেখ, তাহলে সর্বপ্রকার শিরক থেকে পবিত্র থাকতে পারবে এবং একেশ্বরবাদীদের বাতিল আক্বীদা থেকেও মুক্ত হতে পারবে। সুতরাং কোন প্রকার ইনকার ও ই’তিরাজ থাকবেনা। এভাবেই মাখলুকাতের সাথে সুসম্পর্ক ও বন্ধুত্ব করার তরীক্বা হাসিল হবে। আমার এই সকল তাকরীর কল্যাণের সাথে ফিকির ও গ্রহণ করবে। তাহলে এর প্রকৃত ফায়দা হাসিল করত আছমায়ে হাক্বীক্বী থেকে রওসনী লাভ করতে পারবে।

হযরত শায়খ শরফুদ্দীন রহমতুল্লাহি আলাইহি

(৬৫২-৭২৪ হিজরী)

 

হযরত শায়খ শরফুদ্দীন রহমতুল্লাহি আলাইহি পানিপথ নামক স্থানের বাসিন্দা ছিলেন। উনাকেই হযরত বুআলী কলন্দর বলা হতো। তিনি মাজজূব শ্রেণীর বুযূর্গ ওলীআল্লাহ হিসেবে প্রসিদ্ধ ছিলেন। জীবনের প্রথম দিকে তিনি ইলম হাছিল করার পরে উনার সমস্ত কিছুই তরীক্বতের পথে খরচ করে দেন। তিনি কার কাছে বাইয়াত ছিলেন সে বিষয়টি জানা যায়নি। কতিপয় লোকের মধ্যে একথা প্রসিদ্ধ রয়েছে যে তিনি হযরত খাজা কুতুবুদ্দীন বখতিয়ার কাকী রহমতুল্লাহি আলাইহি উনার মুরীদ ছিলেন। আবার কারো কারো মতে তিনি হযরত খাজা নিযামুদ্দীন আউলিয়া রহমতুল্লাহি আলাইহি উনার মুরীদ ছিলেন। মূলত এ উভয় মতই দলীলবিহীন। উনার কিছু মাকতুবাত মুবারক রয়েছে যাতে তিনি ইশক ও মুহব্বতের সাথে হযরত ইখতিয়ারুদ্দীন রহমতুল্লাহি আলাইহি উনার নাম মবারক বর্ণনা করেছেন।

মুবারক মাকতুবাত এর মধ্যে (১) توحيد كى معارف وحقائق (তাওহীদের পরিচিতি ও হাক্বীক্বত) (২)  ترك دنيا (দুনিয়া বিরাগী হওয়া) (৩) طلب اخرت (পরকাল অনুসন্ধান করা) (৪) محبت الهى (মুহব্বত ইলাহী) ইত্যাদি বিষয় বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য। সর্বসাধারণের মাঝে উনার আরো এটি রেছালা حكم نامه شيخ شريف الدين নামে প্রসিদ্ধ ছিল। কিন্তু পরবর্তীতে এ বিষয়টি প্রকাশ পেয়েছে যে উক্ত রেছালাটি উনার নয় বরং উহা সাধারণ মানুষের নিজস্ব বক্তব্য। (والله ورسوله اعلم)

বর্ণিত রয়েছে যে, একবার হযরত শায়খ শরফুদ্দীন রহমতুল্লাহি আলাইহি উনার অসতর্কতাবশত মোছ মুবারক কিছুটা বড় হয়েছিল। উনার মুরীদ মু’তাকিদগণের মধ্যে কেউই উনাকে উহা বলতে সাহস পাননি যে, হযরত আপনার মোছ মুবারক ছোট করে নিন। কিন্তু একদা হযরত জিয়াউদ্দীন সানামী রহমতুল্লাহি আলাইহি যিনি শরীয়তের লাগাম হাতে নিয়ে চলতেন তিনি সেখানে তাশরীফ নিলেন। তখন তিনি উনার মোছ মুবারকের ওই অবস্থা দেখে কেচি নিয়ে উনার কাছে এসে উনার মোছ মুবারক ঠিক করে দিলেন। তখন হযরত শায়খ শরফুদ্দীন রহমতুল্লাহি আলাইহি তিনি খুশি হয়ে হযরত জিয়াউদ্দীন রহমতুল্লাহি আলাইহি উনার দাড়ি মুবারকে চুমু খেয়ে বললেন যে, আপনি শরীয়তের পথে পূর্ণ পাবন্দ। পানিপথে এক পবিত্র স্থানেই উনার রওজা মুবারক অবস্থিত। লোকজন রহমত, বরকত, হাসিল করার জন্য উনার রওজা শরীফ-এ যিয়ারত করে থাকে। উনার পাশেই উনার খাছ মুরীদ হযরত মুবারক খান রহমতুল্লাহি আলাইহি উনারও মাযার শরীফ রয়েছে।

মাকতুব: হে ভাই! যখন আপনার উপরে মহান আল্লাহ পাক উনার দয়া বর্ষিত হয় তখন তিনি স্বয়ং নিজেই আপনার মধ্যে এমন এক জজবা তৈরি করে দেন এবং আপনাকে নফসানিয়ত থেকে হিফাযত করেন। অতঃপর আপনার মধ্যে ইশক পয়দা করে উত্তম স্বভাবের নূর দেখিয়ে দেন। যখনই আপনি ইশক-এর পূর্ণতায় পৌঁছেন তখনই আপনি খোদ মা’শুককে হাসিল করতে পারবেন। তখনই আপনি মা’শুক-এর আশিক হতে পারবেন। আর যখন আশিক ও মা’শুক একে অপরের সাথে মিলে যান তখনই আশিক ব্যক্তি মা’শুকের মতে পথে ও নকশায় পরিচালিত হন। (চলবে)

বিশ্ব সমাদৃত, হযরত আওলিয়ায়ে কিরাম রহমতুল্লাহি আলাইহিমগণের অনুপম মুবারক চরিত গ্রন্থ আখবারুল আখইয়ার-১৫৩ মূলঃ হযরত শায়খ আব্দুল হক মুহাদ্দিছে দেহ্লবী রহমতুল্লাহি আলাইহি,

বিশ্ব সমাদৃত হযরত আওলিয়ায়ে কিরাম রহমতুল্লাহি আলাইহিম উনাদের অনুপম মুবারক চরিতগ্রন্থ আখবারুল আখইয়ার-১৫৪ মূল: হযরত শায়খ আব্দুল হক মুহাদ্দিছে দেহ্লবী রহমতুল্লাহি আলাইহি,

বিশ্ব সমাদৃত হযরত আওলিয়ায়ে কিরাম রহমতুল্লাহি আলাইহিম উনাদের অনুপম মুবারক চরিতগ্রন্থ আখবারুল আখইয়ার-১৫৫- মূল: হযরত শায়খ আব্দুল হক মুহাদ্দিছে দেহলবী রহমতুল্লাহি আলাইহি,

বিশ্ব সমাদৃত হযরত আওলিয়ায়ে কিরাম রহমতুল্লাহি আলাইহিম উনাদের অনুপম মুবারক চরিতগ্রন্থ আখবারুল আখইয়ার-১৫৬

বিশ্ব সমাদৃত হযরত আওলিয়ায়ে কিরাম রহমতুল্লাহি আলাইহিম উনাদের অনুপম মুবারক চরিতগ্রন্থ আখবারুল আখইয়ার-১৫৮