সম্মানিত রবীউছ ছানী শরীফ মাস ও উনার প্রাসঙ্গিক আলোচনা

সংখ্যা: ২৬৫তম সংখ্যা | বিভাগ:

সম্মানিত রবীউছ ছানী শরীফ মাস হযরত আহলে বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের ও হযরত আওলাদে রসূল ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাদের মুবারক আলোচনার বিশেষ মাস। কেননা এ মাসে অনেক হযরত আহলে বাইত শরীফ ও আওলাদে রসূল ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনারা বিলাদতী শান মুবারক প্রকাশ করেন এবং বিছালী শান মুবারক প্রকাশ করেছেন। যেমন এ মাসের ৩ তারিখ পবিত্র বিলাদতী শান মুবারক প্রকাশ করেছেন আহলে বাইতে রসূলিল্লাহ, সাইয়্যিদাতু নিসায়ি আহলিল জান্নাহ, সাইয়্যিদাতুল বানাত, বিনতু রসূল হযরত আন নূরুছ ছানিয়াহ আলাইহাস সালাম তিনি। সুবহানাল্লাহ! অতঃপর এ মাসেরই ১৯ তারিখ বিলাদতী শান মুবারক প্রকাশ করেন আহলে বাইতে রসূল, আওলাদে রসূল, নূরে মুকাররম, মুজাদ্দিদে আ’যম সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুল উমাম আলাইহিস সালাম উনার লখতে জিগার, বিনতুছ ছানিয়াহ, সাইয়্যিদাতুন নিসা হযরত নিবরাসাতুল উমাম আলাইহাস সালাম তিনি। সুবহানাল্লাহ! আবার এ মাসেরই ১১ তারিখ বিছালী শান মুবারক প্রকাশ করেন আওলাদে রসূল, মুজাদ্দিদে যামান, গউছুল আ’যম, সাইয়্যিদুল আউলিয়া হযরত বড়পীর ছাহিব রহমতুল্লাহি আলাইহি তিনি। সুবহানাল্লাহ!

উল্লেখ্য, সাইয়্যিদুল আম্বিয়া ওয়াল মুরসালীন, রহমাতুল্লিল আলামীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার পরেই মার্যাদা ও শ্রেষ্ঠত্বের অধিকারী হচ্ছেন উনার সম্মানিত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম-আলাইহিন্নাস সালাম উনারা। সুবহানাল্লাহ! আর সম্মানিত হযরত আহলু বাইত শরীফ উনারা তিন স্তর মুবারকে বিভক্ত। প্রথম স্তর হচ্ছেন: উনার সম্মানিত আব্বা-আম্মা আলাইহিমাস সালাম উনারা এবং দ্বিতীয় স্তর হচ্ছেন: হযরত উম্মাহাতুল মু’মিনীন আলাইহিন্নাস সালাম উনারা আর তৃতীয় স্তর হচ্ছেন: হযরত আবনাউ রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, বানাতু রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, আসবাতু রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এবং সিবত্বাতু রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনারা। সুবহানাল্লাহ!

পরবর্তী যুগে উক্ত হযরত আহলে বাইতে রসূল ও আওলাদে রসূল ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উভয় সিলসিলা জারি হয়ে আসছে হযরত ইমামুছ ছানী মিন আহলি বাইতি রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার এবং হযরত ইমামুছ ছালিছ মিন আহলি বাইতি রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার অর্থাৎ উনাদের অধঃস্তন পুত্র সন্তান উনাদের মাধ্যমে। তবে উনাদের অধঃস্তন একজন পুত্র সন্তান আলাইহিস সালাম উনার মাধ্যমে বংশ পরম্পরায় সম্মানিত আহলু বাইত শরীফ উনাদের সিলসিলা চলে আসে। সুবহানাল্লাহ! আর অবশিষ্ট সকল পুত্র সন্তান উনাদের বংশ পরম্পরায় সম্মানিত আওলাদে রসূল ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাদের সিলসিলা চলে আসে। সুবহানাল্লাহ!

কাজেই, সম্মানিত আহলে বাইতে রসূল ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম আর সম্মানিত আওলাদে রসূল ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাদের মর্যাদা সমান নয় বরং অনেক পার্থক্য রয়েছে। যেরূপ পার্থক্য সম্মানিত রসূল আলাইহিমুস সালাম উনাদের এবং সম্মানিত নবী আলাইহিমুস সালাম উনাদের মধ্যে। সকল রসূল আলাইহিমুস সালাম উনারা সম্মানিত রসূল সেইসাথে উনারা সম্মানিত নবী আলাইহিমুস সালাম উনাদেরও অন্তর্ভুক্ত। অনুরূপভাবে হযরত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনারা সম্মানিত আহলু বাইত শরীফ এবং সেইসাথে উনারা সম্মানিত আওলাদে রসূল ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাদেরও অন্তর্ভুক্ত। উনারা গভীর নিসবত ও কুরবত প্রাপ্ত যিনি খ¦ালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক উনার এবং উনার শ্রেষ্ঠতম নবী ও রসূল নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার। সুবহানাল্লাহ!

উল্লেখ্য, সম্মানিত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের ১২ ইমাম আলাইহিমুস সালাম উনাদের বিষয়টি প্রকাশিত হয়েছে। তম্মধ্যে যিনি ১২তম ইমাম সাইয়্যিদুনা হযরত ইমাম মাহদী আলাইহিস সালাম তিনি ক্বিয়ামত সংঘটিত হওয়ার পূর্বে যমীনে আগমণ করবেন। কিন্তু উনার পূর্বে ১১তম ইমাম সাইয়্যিদুনা হযরত ইমাম হাসান আসকারী আলাইহিস সালাম উনার পর্যন্ত কারা সম্মানিত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের অন্তর্ভুক্ত তা এতদিন পর্যন্ত জানা যায়নি বা প্রকাশিত হয়নি। তা স্বয়ং নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার অপরিসীম রহম ও ইহসানে প্রকাশ করেন যামানার সুমহান মুজাদ্দিদ, মুজাদ্দিদে আ’যম, নূরে মুকাররম, আওলাদে রসূল ও আহলে বাইতে রসূল সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুল উমাম আলাইহিস সালাম তিনি। সুবহানাল্লাহ! অর্থাৎ সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুল উমাম আলাইহিস সালাম তিনি হচ্ছেন বর্তমান যামানায় সম্মানিত আহলে বাইতে রসূল ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাদের অন্তর্ভুক্ত। সুবহানাল্লাহ! সঙ্গতঃ কারণে উনার ফযীলত, বুযুর্গী, সম্মান, শ্রেষ্ঠত্ব, মর্যাদা, মর্তবা, শান-মান, ইজ্জত-ঐতিহ্য বেমেছাল, বর্ণনাতীত। সুবহানাল্লাহ!

একাধিক বর্ণনায় পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে বর্ণিত রয়েছে, নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি উম্মতের হিদায়েত ও নাজাত লাভের জন্য পবিত্র কুরআন শরীফ-পবিত্র হাদীছ শরীফ এবং উনার সম্মানিত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদেরকে রেখে গেছেন। যারা উনাদেরকে গ্রহণ করবে অর্থাৎ পবিত্র কুরআন শরীফ ও পবিত্র হাদীছ শরীফ উনাদের আদেশ-নিষেধ মেনে চলবে আর সম্মানিত আহলু বাইত শরীফ উনাদেরকে মুহব্বত, সম্মান, খিদমত ও আনুগত্য করবে তারা কখনই পথভ্রষ্ট, লা’নতগ্রস্ত ও জাহান্নামী হবে না। বরং তারা হিদায়েতপ্রাপ্ত, রহমতপ্রাপ্ত ও নিয়ামতপ্রাপ্ত ও জান্নাতী হবে। সুবহানাল্লাহ!

মাহে ছফর এবং তার প্রাসঙ্গিক আলোচনা

সাইয়্যিদুল আসইয়াদ, সাইয়্যিদুশ শুহূর, শাহরুল আ’যম মাহে রবীউল আউয়াল শরীফ ও তার প্রাসঙ্গিক আলোচনা

মাহে রবীউছ ছানী ও তার প্রাসঙ্গিক আলোচনা

মাহে জুমাদাল উখরা ও তার প্রাসঙ্গিক আলোচনা

মাহে শা’বান ও তার প্রাসঙ্গিক আলোচনা