সুলতানুল হিন্দ, কুতুবুল মাশায়িখ, মুজাদ্দিদ যামান, গরীবে নেওয়াজ, আওলাদে রসূল, সাইয়্যিদুনা হযরত খাজা মুঈনুদ্দীন হাসান চিশতী আজমিরী সাঞ্জারী রহমতুল্লাহি আলাইহি (বিলাদত শরীফ ৫৩৬ হিজরী, বিছাল শরীফ ৬৩৩ হিজরী)

সংখ্যা: ২৩০তম সংখ্যা | বিভাগ:

মহান আল্লাহ পাক উনার একান্ত মনোনীত আখাছছুল খাছ নিয়ামতপ্রাপ্ত মহান ব্যক্তিত্ব হচ্ছেন, হযরত নবী-রসূল আলাইহিমুস সালাম এবং হযরত আউলিয়ায়ে কিরাম রহমতুল্লাহি আলাইহিমগণ। পবিত্র সূরা নিসা শরীফ উনার ৬৯ নম্বর আয়াত শরীফ উনার মধ্যে মহান আল্লাহ পাক তিনি সে কথাই বলেছেন। সেখানে বর্ণিত আছে-

انعم الله عليهم من النبيين والصديقين والشهداء والصالـحين.

অর্থ : মহান আল্লাহ পাক তিনি হযরত নবী আলাইহিমুস সালামগণ, ছিদ্দীক্ব, শহীদ এবং ছালিহীন (রহমতুল্লাহি আলাইহিম) উনাদেরকে বিশেষ নিয়ামত হাদীয়া করেছেন।

আর সেই ছিদ্দীক্ব, শহীদ, ছালিহীন উনারা সবাই যে হযরত আউলিয়ায়ে কিরাম রহমতুল্লাহি আলাইহিম উনাদের অন্তর্ভুক্ত। হযরত আউলিয়ায়ে কিরাম রহমতুল্লাহি আলাইহিম উনাদের আগমনের ধারা ক্বিয়ামত পর্যন্ত অব্যাহত থাকবে। আর সেই হযরত আউলিয়ায়ে কিরাম রহমতুল্লাহি আলাইহিম উনাদের সাথে যারা নিছবত (সম্পর্ক) রাখবে, উনাদের ছোহবত মুবারক ইখতিয়ার করবে তারাও বিশেষ নিয়ামত প্রাপ্তগণের অন্তর্ভুক্ত হবেন। সেটা হযরত উমর ইবনুল খত্তাব আলাইহিস সালাম উনার বর্ণনা দ্বারা আরো স্পষ্ট হয়েছে। তিনি বলেন, সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খাতামুন নাবিইয়ীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন-

ان من عباد الله لاناسا ماهم بانبياء ولا شهداء يغبطهم الانبياء والشهداء يوم القيامة بـمكانـهم من الله تعالى

অর্থ: মহান আল্লাহ পাক উনার বান্দাগণের মধ্যে এমন কতিপয় খাছ লোক আছেন, যাঁরা নবীও নন এবং শহীদও নন, কিন্তু কিয়ামতের দিন মহান আল্লাহ পাক উনার কাছে উনাদের সীমাহীন মর্যাদা দেখে স্বয়ং হযরত নবী আলাইহিমুস সালাম উনারা এবং শহীদ রহমতুল্লাহি আলাইহিমগণ উনারা পর্যন্ত আশ্চর্যাম্বিত হবেন।

قالوا يا رسول الله صلى الله عليه وسلم تخبرنا من هم قال هم قوم تحابوا بروح الله على غير ارحام بينهم ولا اموال يتعاطونـها.

অর্থ: হযরত ছাহাবায়ে ক্বিরাম রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুম উনারা বিনীতভাবে আরজ করলেন- ইয়া রসুল্লাল্লাহ, ইয়া হাবীবাল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম! দয়া করে আমাদেরকে উনাদের পরিচয় দান করুন। তখন তিনি বললেন, উনারা এমন এক সম্প্রদায় যারা মহান আল্লাহ পাক উনার সন্তুষ্টি মুবারক লাভের লক্ষ্যে পরস্পর পরস্পরকে মুহব্বত করবেন। অথচ উনাদের সাথে কোন প্রকার আত্মীয়তার সম্পর্ক নেই এবং ধন সম্পদের কোন প্রকার লেন-দেন নেই।

فوالله ان وجوههم لنور وانـهم لعلى نور لايخافون اذا خاف الناس ولا يحزنون اذا حزن الناس وقرأ هذه الاية الا ان اولياء الله لا خوف عليهم ولاهم يحزنون.

অর্থ: মহান আল্লাহ পাক উনার কসম! সেই সকল ব্যক্তিত্বগণের চেহারা মুবারক হবে সেই দিন নূরে নূরাম্বিত। আর নূরের মিম্বরের উপর সেই দিন উনারা বসবেন। উনারা সেই দিন কোন প্রকার ভীত-সন্ত্রস্ত হবেন না। অথচ সকল মানুষই সে দিন ভীত-সন্ত্রস্ত হবে। আর উনারা কোন প্রকার চিন্তাগ্রস্তও হবেন না। অথচ সেদিন সকল লোকই অত্যন্ত চিন্তাগ্রস্ত হবে। অতঃপর তিনি এই পবিত্র আয়াত শরীফ তিলাওয়াত করলেন- “জেনে রাখুন! যারা মহান আল্লাহ পাক উনার ওলী বা বন্ধু উনাদের কোন ভয় নেই এবং উনারা কোন প্রকার চিন্তাগ্রস্তও হবেন না। (আবু দাউদ শরীফ, মিশকাত শরীফ)

অর্থাৎ হযরত আউলিয়ায়ে কিরাম রহমতুল্লাহি আলাইহিমগণ উনারাই হচ্ছেন সেই সীমাহীন মর্যদা-মর্তবা ও সম্মান-মর্যাদার অধিকারী ব্যক্তিত্ব।

সুলতানুল হিন্দ, কুতুবুল মাশায়িখ, মুজাদ্দিদে যামান, আওলাদে রসূল, সাইয়্যিদুনা হযরত গরীবে নেওয়াজ রহমতুল্লাহি আলাইহি তিনি ছিলেন সেইরূপ মহান ওলীআল্লাহ উনাদের অন্তর্ভুক্ত যাঁরা মহান আল্লাহ পাক উনার এবং উনার হাবীব, সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার চরম-পরম নৈকট্য তায়াল্লুক, নিছবত, মুহব্বত, মা’রিফাত, সন্তুষ্টি রেযামন্দি মুবারক হাছিল করেছেন। যাঁরা বিছাল শরীফ গ্রহণের পর সম্মানিত আরশের অধিবাসী হয়েছেন এবং সর্বদা মহান আল্লাহ পাক উনার ও উনার হাবীব, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার দায়িমী যিয়ারত মুবারকে লিপ্ত রয়েছেন উনাদের অন্তর্ভুক্ত হয়েছেন।

ওলীয়ে মাদারজাদ, মুসতাজাবুদ্ দা’ওয়াত, আফযালুল ইবাদ, ছাহিবে কাশফ্ ওয়া কারামত, ফখরুল আওলিয়া, ছূফীয়ে বাতিন, ছাহিবে ইস্মে আ’যম, লিসানুল হক্ব, গরীবে নেওয়াজ, আওলাদে রসূল, আমাদের সম্মানিত দাদা হুযূর ক্বিবলা আলাইহিস সালাম উনার স্মরণে- একজন কুতুবুয্ যামান উনার দীদারে মাওলার দিকে প্রস্থান-১৫২

পঞ্চদশ হিজরী শতকের মুজাদ্দিদ, মুজাদ্দিদে আ’যম, আওলাদুর রসূল, ইমাম রাজারবাগ শরীফ-এর সাইয়্যিদুনা মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম উনার মহা সম্মানিতা আম্মা আওলাদুর রসূল, সাইয়্যিদাতুনা আমাদের- হযরত দাদী হুযূর ক্বিবলা আলাইহাস সালাম উনার সীমাহীন ফাদ্বায়িল-ফদ্বীলত, বুযূর্গী-সম্মান, মান-শান, বৈশিষ্ট্য এবং উনার অনুপম মাক্বাম সম্পর্কে কিঞ্চিৎ আলোকপাত

সাইয়্যিদুল আওলিয়া, মাহবূবে সুবহানী, কুতুবে রব্বানী, গওছুল আ’যম, মুজাদ্দিদুয যামান, ইমামুর রাসিখীন, সুলত্বানুল আরিফীন, মুহিউদ্দীন, আওলাদে রসূল সাইয়্যিদুনা হযরত বড়পীর ছাহিব রহমতুল্লাহি আলাইহি (৬)

ওলীয়ে মাদারজাদ, মুসতাজাবুদ্ দা’ওয়াত, আফযালুল ইবাদ, ছাহিবে কাশফ্ ওয়া কারামত, ফখরুল আওলিয়া, ছূফীয়ে বাতিন, ছাহিবে ইস্মে আ’যম, লিসানুল হক্ব, গরীবে নেওয়াজ, আওলাদে রসূল, আমাদের সম্মানিত দাদা হুযূর ক্বিবলা আলাইহিস সালাম উনার স্মরণে- একজন কুতুবুয্ যামান উনার দীদারে মাওলার দিকে প্রস্থান-১৫৩

পঞ্চদশ হিজরী শতকের মুজাদ্দিদ, মুজাদ্দিদে আ’যম, আওলাদুর রসূল, ইমাম রাজারবাগ শরীফ-এর সাইয়্যিদুনা মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম উনার মহা সম্মানিতা আম্মা আওলাদুর রসূল, সাইয়্যিদাতুনা আমাদের- হযরত দাদী হুযূর ক্বিবলা আলাইহাস সালাম উনার সীমাহীন ফাদ্বায়িল-ফদ্বীলত, বুযূর্গী-সম্মান, মান-শান, বৈশিষ্ট্য এবং উনার অনুপম মাক্বাম সম্পর্কে কিঞ্চিৎ আলোকপাত-২