সুলত্বানুল হিন্দ, কুতুবুল মাশায়িখ, মুজাদ্দিদ যামান, গরীবে নেওয়াজ, আওলাদে রসূল, হাবীবুল্লাহ সাইয়্যিদুনা হযরত খাজা মুঈনুদ্দীন হাসান চিশতী আজমিরী সাঞ্জারী রহমতুল্লাহি আলাইহি-৩৬ (বিলাদত শরীফ ৫৩৬ হিজরী, বিছাল শরীফ ৬৩৩ হিজরী)

সংখ্যা: ২৬৬তম সংখ্যা | বিভাগ:

পূর্ব প্রকাশিতের পর

অতঃপর ইয়াদগারে মুহম্মদ ও তার সঙ্গীরা সকলেই বাইয়াত গ্রহন করার জন্য সাইয়্যিদুনা হযরত খাজা গরীবে নেওয়াজ রহমতুল্লাহি আলাইহি উনার দিকে হাত বাড়িয়ে দিলেন। সাইয়্যিদুনা হযরত গরীবে নেওয়াজ রহমতুল্লাহি আলাইহি তিনি উনাদেরকে বাইয়াত করিয়ে নিলেন।

ইয়াদগারে মোহাম্মদ মুরীদ হওয়ার পর তার সমুদয় সম্পদ ও আসবাবপত্রের এক বিশাল তালিকা প্রস্তুত করতঃ সাইয়্যিদুনা হযরত খাজা গরীবে নেওয়াজ রহমতুল্লাহি আলাইহি উনার খিদমত মুবারকে পেশ করলেন। তিনি তা গ্রহণে অস্বীকৃতি জানালেন। বললেন, এসমস্ত ধন-সম্পত্তির মধ্যে যেগুলো আপনি জোর-জুলুম করে, অন্যায়ভাবে মানুষের নিকট থেকে নিয়েছেন তা মালিকদের ফিরিয়ে দিন। তাহলে তারা কাল ক্বিয়ামতের দিন আপনার আচল ধরে টানাটানি করতে পারবে না। স্বীয় শায়েখ উনার নির্দেশ মুবারক অনুযায়ী তিনি তাই করলেন। আর অবশিষ্ট সম্পত্তি গরীব, মিসকীনদেরকে বিলিয়ে দিলেন। সাইয়্যিদুনা হযরত খাজা গরীবে নেওয়াজ রহমতুল্লাহি আলাইহি উনার খাদিমরূপে হেসার অঞ্চল পর্যন্ত গমন করলেন। সেখানে পৌছে সাইয়্যিদুনা হযরত খাজা গরীবে নেওয়াজ রহমতুল্লাহি আলাইহি তিনি চিন্তা করলেন যে, ইয়াদগারে মোহাম্মদ তিনি তাকমীলে পৌঁছেছেন। সুবহানাল্লাহ!

তিনি উনাকে নির্দেশ মুবারক দিলেন, আপনি এ অঞ্চলে অবস্থান করুন। মানুষকে মহান আল্লাহ পাক উনার এবং উনার হাবীব নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাদের সম্মানিত দ্বীনের দাওয়াত দিন। হিদায়েত করতে থাকুন। স্বীয় শায়েখ রহমতুল্লাহি আলাইহি উনার নির্দেশ মুবারক অনুযায়ী হযরত ইয়াদগার মোহাম্মদ রহমতুল্লাহি আলাইহি তিনি সেখানে রয়ে গেলেন। আর সাইয়্যিদুনা হযরত খাজা গরীবে নেওয়াজ রহমতুল্লাহি আলাইহি তিনি আপন পথে সামনে অগ্রসর হলেন। (তাযকিরাতুল আউলিয়া-২১২, খাজা বাবা গরীবে নেওয়াজ-৭২)

পারস্য সফর

সুলত্বানুল হিন্দ, কুতুবুল মাশায়িখ, সাইয়্যিদুনা হযরত গরীবে নেওয়াজ রহমতুল্লাহি আলাইহি তিনি বাগদাদ শরীফ থেকে রওয়ানা হয়ে পারস্য তথা ইরানে পৌঁছলেন। সে সময় অগ্নিউপাসকদের প্রধান কেন্দ্রভূমি ছিল পারস্য। তিনি চলার পথে অগ্নিউপাসকদেরকে একটি বিরাট অগ্নিকুণ্ডের পূজা করতে দেখলেন। তিনি তাদের নিকট গেলেন এবং বললেন, তোমরা খ্বালিক মালিক রব মহান আল্লাহ পাক উনাকে বাদ দিয়ে মূর্তির পূজা করছো কেন? তারা বললো, দাহিকা শক্তির কারণে তারা আগুনের উপাসনা করছে। যাতে পরকালে জাহান্নামের আগুন তাদেরকে দগ্ধ না করে।

সুলত্বানুল হিন্দ, কুতুবুল মাশায়িখ সাইয়্যিদুনা হযরত গরীবে নেওয়াজ রহমতুল্লাহি আলাইহি তিনি বললেন, আগুনের কি কোনো শক্তি আছে যে, মহান আল্লাহ পাক উনার আদেশ ব্যতীত দহন করতে পারে?

অগ্নিউপাসকরা বললো, আপনি তো মহান আল্লাহ পাক উনার ইবাদত করেন, আগুন কি আপনাকে পোড়াবে না?

তিনি বললেন, আগুনের কি ক্ষমতা আছে যে, গরীবে নেওয়াজ রহমতুল্লাহি আলাইহি উনাকে পোড়াতে পারে? এই বলে তিনি উনার স্যান্ডেল মুবারক গগণচুম্বি লেলিহান শিখাযুক্ত অগ্নিকুণ্ডে নিক্ষেপ করলেন। সাথে সাথে আগুন নিভে গেল। স্যান্ডেল মুবারকে একটু আঁচও লাগেনি। সুবহানাল্লাহ!

এই দৃশ্য দেখে সকল অগ্নিউপাসক উনার মুবারকে হাতে বাইয়াত গ্রহণ করে খালিছ মুসলমান হয়ে গেলেন। তিনি আরো কিছুদিন সেই স্থানে অবস্থান করলেন। উনার রূহানী শক্তি দেখে এলাকার সকল অগ্নিউপাসকই সম্মানিত দ্বীন ইসলাম কবুল করলেন। সুবহানাল্লাহ! (হযরত খাজা গরীবে নেওয়াজ-৭০)

ওলীয়ে মাদারজাদ, মুসতাজাবুদ্ দা’ওয়াত, আফযালুল ইবাদ, ছাহিবে কাশফ্ ওয়া কারামত, ফখরুল আওলিয়া, ছূফীয়ে বাতিন, ছাহিবে ইস্মে আ’যম, লিসানুল হক্ব, গরীবে নেওয়াজ, আওলাদে রসূল, আমাদের সম্মানিত দাদা হুযূর ক্বিবলা রহমতুল্লাহি আলাইহি উনার স্মরণে- একজন কুতুবুয্ যামান উনার দীদারে মাওলার দিকে প্রস্থান-১৪৯

সাইয়্যিদুল আওলিয়া, মাহবূবে সুবহানী, কুতুবে রব্বানী, গওছুল আ’যম, মুজাদ্দিদুয যামান, ইমামুর রাসিখীন, সুলত্বানুল আরিফীন, মুহিউদ্দীন, আওলাদে রসূল সাইয়্যিদুনা হযরত বড়পীর ছাহিব রহমতুল্লাহি আলাইহি (৩)

ওলীয়ে মাদারজাদ, মুসতাজাবুদ্ দা’ওয়াত, আফযালুল ইবাদ, ছাহিবে কাশফ্ ওয়া কারামত, ফখরুল আওলিয়া, ছূফীয়ে বাতিন, ছাহিবে ইস্মে আ’যম, লিসানুল হক্ব, গরীবে নেওয়াজ, আওলাদে রসূল, আমাদের সম্মানিত দাদা হুযূর ক্বিবলা রহমতুল্লাহি আলাইহি উনার স্মরণে- একজন কুতুবুয্ যামান উনার দীদারে মাওলার দিকে প্রস্থান-১৫০

সাইয়্যিদুল আওলিয়া, মাহবূবে সুবহানী, কুতুবে রব্বানী, গওছুল আ’যম, মুজাদ্দিদুয যামান, ইমামুর রাসিখীন, সুলত্বানুল আরিফীন, মুহিউদ্দীন, আওলাদে রসূল সাইয়্যিদুনা হযরত বড়পীর ছাহিব রহমতুল্লাহি আলাইহি (৪)

হানাফী মাযহাবের আক্বাইদের ইমাম, ইমামু আহলিস সুন্নাহ ওয়াল জামায়াহ হযরত ইমাম আবু মানছূর আল মাতুরীদী রহমতুল্লাহি আলাইহি বিছাল শরীফ ৩৩৩ হিজরী