হযরত আহলে বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের মকবুলে মাসিক আল বাইয়্যিনাত শরীফ রহেন উজ্জ্বলে-১৩২

সংখ্যা: ২৪৯তম সংখ্যা | বিভাগ:

হযরত আহলে বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের মকবুলে মাসিক আল বাইয়্যিনাত শরীফ রহেন উজ্জ্বলে-১৩২


সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ,

কুল পৃথিবীর তাগুতবাদীরে করে দেন বরবাদ।

ভেঙ্গেছে কোমর তাগুতী দেহের দাঁড়াতে পারে না আর,

চিৎকার করে ফাটাচ্ছে বুক পায়নাকো নিস্তার।

 

ওই লাত মানাতের আর্তনাদ মরুতে রয় বিলীন,

নমরুদ আর সাদ্দাদী চেলা নিস্তেই চির দিন।

ওরে বিশ্বের তামাম তাগুত শুনরে কর্ণ খুলে,

সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ করেন আবাদ মুজাদ্দিদ মকবুলে।

 

ওই খলীফায়ে আস সাফফাহ তিনি অনন্তকালব্যাপী,

কায়িনাত জুড়ে করলেন জারি বেমেছাল মাশরুপী।

সাবধান ওই বেঈমান তোরা, ঝারি ঝুরি তোর শেষ,

চিরুনি কাঁচনে উপড়াবো তোরে মামদূহী উন্মেষ।

 

আজকে সকলে ধকল পোহায় খোদাদ্রোহীরা মিলে,

ইমামুল উমামী তাজদীদী জোশে তাগুতী প্রাসাদ টলে।

মোরা বিশ্বের সকল মু’মিন ইমামী মহান ডাকে,

এক ময়দানে হচ্ছি রে জমা রহিনাকো লৌকিকে।

 

আমরা উনার ফায়িয ও রো’বে পূর্ণ জজবা বান,

আমরা উনার হুকুমে রহি অনন্ত কুরবান।

চৌদ্দশত সাঁইত্রিশ হিজরী তেষট্টি দিন ধরে,

মহা জৌলুশে করছি পালন সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ ওরে।

 

যদিও আমরা প্রত্যেকদিন সানন্দে পালন করি,

গোটা আলমের বক্ষ মাঝেই দায়িমীতে রয় জারি।

ফাল ইয়াফরাহূ সাইয়্যিদুল আই’য়াদ ইহাই শ্রেষ্ঠ খুশি,

তাজদীদ করেন ইমামুল উমাম ইশকেই উচ্ছ্বাসী।

 

৩রা রবীউছ ছানী,

বানাতু রসূল হযরত ছানিয়া আলাইহাস সালাম তিনি।

বিলাদতী শান করেন প্রকাশ উজ্জ্বলে কায়িনাত,

তাগুতী রুষ্ট নষ্টামি তার হয়ে রহে কুপোকাত।

 

তিনি বেমেছাল হাবীবী ইশকে অনন্ত শামসুন,

বিদয়াতুম মিন্নী উম্মু আবীহা অনন্ত কামিলুন।

জ্ঞান প্রজ্ঞা ও তাক্বওয়ায় তিনি সাইয়্যিদাতুনা নূর,

আদি ও অন্তে রহেন যতেœ মাখলূক্বে কুহেতুর।

 

চশমে হাবীবী বাস্তব ছহীহ ছানিয়া পাক ইহসান,

দ্বীন ইসলামী শৌর্য চুমি জিয়ে রণ দোজাহান।

উনার মুবারক সাওয়ানেহ উমরী পঠন ও পালন ফরয,

ওরে দুনিয়ার মুসলমানেরা লওরে এই সমঝ।

 

১১ই রবীউছ ছানী,

বিছাল শরীফ প্রকাশ করেন কুরবতে রহমানী।

তিনি বড়পীর দস্তগীর শাহ সাইয়্যিদী শওকত,

রহে পৃথিবী জুড়ে এখনো উনার নাম ধাম নিছবত।

 

তিনি বেমিছাল আল বালাগাল রব্বানী মেহমান,

তিনি হাবীবী উনার পায়রুবিতেই ইসলামী বুরহান।

তিনি সাইয়্যিদ আফরীদে পীর বরকতে মু’মিনীন,

তিনি ইজ্জত হুরমতে শির ইসলামী আমিরীন।

 

তা’রীফ উনার জগতে বিস্তার জৌলুসে পারাবার,

এই তরীক্বা উনার সালিক সকলে জান্নাতী উপহার।

এই তরীক্বা উনার খ¦ইর তাছির আবাদুল আবাদান,

সদা রহেন উজ্জ্বলে, নূরী মকবুলে গ্রহিছে মুসলমান।

 

তিনি সুন্নতী প্রীতির শিখরে, জীবন্ত মনিহার,

শ্রদ্ধার সাথে অন্তরে গেঁথে স্মরিতেছি বারবার।

উনার সাওয়ানেহ উমরী করছি পালন আশিকীন সালিকীন,

উনার তাওয়াজ্জুহ ফায়িয করছি কামনা উসীলায় মুর্শিদীন।

 

হামেশা সুওয়াল মুর্শিদী দ্বারে আদবী দস্ত তুলে,

আপনার মতে মত করে দিন আপনারী তারতিলে।

১৯শে রবীউছ ছানী,

বানাতুশ শায়িখ হযরত ছানিয়া আলাইহাস সালাম উনি।

 

বিলাদত শরীফ শান প্রকাশেন ধন্য যে ধরণী,

তিনি যে স্বয়ং রহমত আর বরকতী নূর খনি।

তিনি সাইয়িদাতু নিসায়ী জগতে উজ্জ্বলে কামরুন,

তিনি মুর্শিদী তাহমিদী ইনাম আওরতী বদরুন।

 

তিনি কুবরাহী কায়িম মাক্বাম, ইহসানে রব্বানী,

তিনি উম্মুল উমামী আকরামী নাজ সাইয়্যিদী রওশনী।

মু’মিনা কুলের দুশমনদেরে ধ্বংস করার তরে,

তাশরীফ আনেন যমীনের বুকে হাবীবী সুন্নী নূরে।

 

মানবেতরেই গুজরায় আজ মুসলিম অশ্লীলে,

ইবলীসি প্যাঁচে পচেই মরছে নারীরাই বিলকুলে।

তাই জাব্বারিউল আউওয়ালী শানে নিবরাসাতুল উমাম,

যমীনে এলেন হালটি ধরেন হয়ে খোদ ইরহাম।

 

তিনি তো কেবল নিয়ন্ত্রিত নিত্য ইলাহী জোশে,

তিনি রব্বানী ধনে মহাধ্বনি সাইয়্যিদী ইজলাসে।

তিনি আখাচ্ছুল খাছ আওলাদে রসূল বুলবুলে ছিলছিলা,

তিনি কুদওয়াতুস সালিকা মালিকা রায়হানে উজ্জ্বলা।

 

আশিক-জাকির-সালিক-সালিকা সকলে আরজু করি,

আক্বা ও আপনার আহলে বাইতী পবিত্রতাকে স্মরি।

যেভাবে চাহেন ওভাবেই যেন মুবারক গোলামীতে,

কহি থাকতেই চাহি হামেশা আমরা অনাদি অনন্তে।


-বিশ্বকবি আল্লামা মুহম্মদ মুফাজ্জলুর রহমান

আল বাইয়্যিনাত-এর দলীলের বলে, মুনাফিক গংদের হাক্বীক্বত গেল খুলে-৭৮

আল বাইয়্যিনাত-এর দলীলের বলে, মুনাফিক গংদের হাক্বীক্বত গেল খুলে-৭৯

আল বাইয়্যিনাত-এর দলীলের বলে, মুনাফিক গংদের হাক্বীক্বত গেল খুলে- ৮০

আল বাইয়্যিনাত-এর দলীলের বলে, মুনাফিক গংদের হাক্বীক্বত গেল খুলে- ৮১

আল বাইয়্যিনাত-এর দলীলের বলে, মুনাফিক গংদের হাক্বীক্বত গেল খুলে- ৮২