আনজুমানে আল বাইয়্যিনাত ও মাহফিল সংবাদ

সংখ্যা: ২৮১তম সংখ্যা | বিভাগ:

আল বাইয়্যিনাত শরীফ প্রতিবেদন: ছাহিবু সাইয়্যিদিল আ’ইয়াদ শরীফ, ছাহিবে নেয়ামত, আল ওয়াসীলাতু ইলাল্লাহ, আল ওয়াসীলাতু ইলা রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, আল জাব্বারিউল আউওয়াল, আল ক্বউইউল আউওয়াল, সুলত্বানুন নাছীর, মুত্বহ্হার, মুত্বহ্হির, আছ ছমাদ, আহলু বাইতি রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, ক্বায়িম মাক্বামে হাবীবুল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, মাওলানা মামদূহ মুর্শিদ ক্বিবলা সাইয়্যিদুনা ইমাম খলীফাতুল্লাহ হযরত আস সাফফাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি বলেন, পবিত্র জুমাদাল উখরা শরীফ মাস হযরত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদেরকে ও হযরত খুলাফায়ে রাশিদ্বীন আলাইহিমুস সালাম উনাদেরকে মুহব্বত করার ও উনাদের ছানা-ছিফত মুবারক বেশি বেশি বর্ণনা করার মাস। সুবহানাল্লাহ! তাই প্রত্যেকের জন্য দায়িত্ব ও কর্তব্য হচ্ছে- পবিত্র জুমাদাল উখরা শরীফ মাসে হযরত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদেরকে ও হযরত খুলাফায়ে রাশিদ্বীন আলাইহিমুস সালাম উনাদেরকে সর্বোচ্চ মুহব্বত করে বেশি বেশি উনাদের ছানা-ছিফত মুবারক বর্ণনা করার মাধ্যমে মহান আল্লাহ পাক উনার ও উনার রসূল, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাদের খাছ রেযামন্দি মুবারক হাছিল করা।

আহলু বাইতি রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, মামদূহ মুর্শিদ ক্বিবলা সাইয়্যিদুনা ইমাম খলীফাতুল্লাহ হযরত আস সাফফাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি বলেন, হযরত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের মর্যাদা-মর্তবা সম্পর্কে পবিত্র কালামুল্লাহ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে, “মহান আল্লাহ পাক তিনি চান হযরত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদেরকে পবিত্র করার মতো পবিত্র করতে।” অর্থাৎ এ কথার অর্থ হলো- মহান আল্লাহ পাক তিনি হযরত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদেরকে পবিত্র করার মতো পবিত্র করেই সৃষ্টি করেছেন। সুবহানাল্লাহ!

আহলু বাইতি রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, মামদূহ মুর্শিদ ক্বিবলা সাইয়্যিদুনা ইমাম খলীফাতুল্লাহ হযরত আস সাফফাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ‘তাফসীরে ইবনে হাতেম, তাফসীরে ইবনে কাছির, তাফসীরে মাযহারী’ কিতাব উনাদের বরাত দিয়ে বলেন, সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খাতামুন নাবিয়্যীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার পবিত্র বংশধারা মুবারক সাইয়্যিদাতু নিসায়ি আহলিল জান্নাহ হযরত যাহরা আলাইহাস সালাম উনার ও উনার আওলাদদ্বয় হযরত ইমামুছ ছানী মিন আহলি বাইতি রসূলিল্লাহি ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ও হযরত ইমামুছ ছালিছ মিন আহলি বাইতি রসূলিল্লাহি ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাদের মাধ্যমে বিশ্বময় জারি রয়েছে। সুবহানাল্লাহ!

আহলু বাইতি রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, মামদূহ মুর্শিদ ক্বিবলা সাইয়্যিদুনা ইমাম খলীফাতুল্লাহ হযরত আস সাফফাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি এ প্রসঙ্গে ‘তাফসীরে আহমদী ও তাফসীরে ইবনে কাছির’ কিতাব উনাদের বরাত দিয়ে বলেন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “মহান আল্লাহ পাক উনার কসম! ততক্ষণ পর্যন্ত কোনো মুসলমান ব্যক্তির অন্তরে ঈমান দাখিল হবে না (হাক্বীক্বীভাবে ঈমানদার হবে না) যতক্ষণ পর্যন্ত সে ব্যক্তি মহান আল্লাহ পাক উনার সন্তুষ্টি মুবারক উনার জন্য আমার বংশধর হওয়ার কারণে কুরাঈশ অর্থাৎ হযরত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদেরকে মুহব্বত না করবে।” সুবহানাল্লাহ!

মহাপবিত্র সাইয়্যিদু সাইয়্যিদিল আ’দাদ শরীফ, কোটি কোটি কন্ঠে পবিত্র মীলাদ শরীফ মাহফিল এবং সকল আইয়্যামুল্লাহ  শরীফ পালিত

খলীফাতুল্লাহ, খ¦লীফাতু রসূলিল্লাহ, মুত্বহ্হার, মুত্বহ্হির, আছ ছমাদ, আহলু বাইতি রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, ক্বায়িম মাক্বামে হাবীবুল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, মাওলানা মামদূহ মুর্শিদ ক্বিবলা সাইয়্যিদুনা ইমাম খলীফাতুল্লাহ হযরত আস সাফফাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার এবং মুতহ্হারাহ, মুতহহিরাহ সাইয়্যিদাতুন নিসা, ইমামাতুছ ছিদ্দীক্বা, কায়িম মাক্বামে উম্মাহাতুল মু’মিনীন আলাইহিন্নাস সালাম, আহলু বাইতি রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, সাইয়্যিদাতুনা হযরত উম্মুল উমাম আলাইহাস সালাম উনাদের মুবারক পৃষ্ঠপোষকতায় ও মুবারক তাশরীফে রাজারবাগ শরীফ সুন্নতি জামে মসজিদ এবং মুহম্মদিয়া জামিয়া শরীফ বালিকা মাদরাসায় মহাসমারোহে ও ব্যাপক শান শওকতের সাথে মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র সাইয়্যিদু সাইয়্যিদিল আ’দাদ শরীফ তথা ১২ই শরীফ পালিত হয়েছেন। পাশাপাশি ঢাকা মহানগরের অধিকাংশ ওয়ার্ড, দেশের অধিকাংশ জেলা এবং বহিঃবিশ্বে জাজিরাতুল আরব, দুবাই, মালয়েশিয়া, সিঙ্গাপুর, ভারতসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশেও পালিত হয়েছেন।

রাজারবাগ শরীফ সুন্নতি জামে মসজিদে আয়োজিত আজিমুশশ্বান মাহফিলে বিশেষ নছীহত মুবারক ও সারাবিশ্বের মুসলিম উম্মাহের জন্য বিশেষ দোয়া-মুনাজাত মুবারক করেন- মুত্বহ্হার, মুত্বহ্হির, আছ ছমাদ, আহলু বাইতি রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, ক্বায়িম মাক্বামে হাবীবুল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, মাওলানা মামদূহ মুর্শিদ ক্বিবলা সাইয়্যিদুনা ইমাম খলীফাতুল্লাহ হযরত আস সাফফাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি।

একইভাবে মুহম্মদিয়া জামিয়া শরীফ বালিকা মাদরাসায় আয়োজিত মাহফিলে বিশেষ নছীহত মুবারক ও সারাবিশ্বের মুসলিম উম্মাহের জন্য বিশেষ দোয়া-মোনাজাত মুবারক করেন- মুতহ্হারাহ, মুতহহিরাহ  সাইয়্যিদাতুন নিসা, আফযালুন নিসা, ফক্বীহাতুন নিসা, ইমামাতুছ ছিদ্দীক্বা, কায়িম মাক্বামে উম্মাহাতুল মু’মিনীন আলাইহিন্নাস সালাম, বাহরুল উলূম, হাবীবাতুল্লাহ, আহলু বাইতি রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, সাইয়্যিদাতুনা  হযরত উম্মুল উমাম আলাইহাস সালাম তিনি। সুবহানাল্লাহ!

আজিমুশ্বান মাহফিলে নকশায়ে হায়দার, কুতুবুল আলম, বাহরুল উলূম, আওলাদে রসূল সাইয়্যিদুনা হযরত শাফিউল উমাম আলাইহিস সালাম তিনি এবং নকশায়ে যুন নূরাইন আলাইহিস সালাম, কুতুবুল আলম, বাহরুল উলূম, আওলাদে রসূল সাইয়্যিদুনা হযরত হাদিউল উমাম আলাইহিস সালাম উনারা মুবারক নছীহত করেন এবং সকল জেলা ও ঢাকাস্থ আনজুমানের মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র ১২টি বিষয়ের অগ্রগতি প্রতিবেদন দেখেন।

আজিমুশ্বান মাহফিলের অংশ হিসেবে বাদ ফজর ঢাকা মহানগরের ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে এবং জেলায় জেলায় পবিত্র কোটি কোটি কণ্ঠে পবিত্র মীলাদ শরীফ পাঠ করা হয়। মীলাদ শরীফ শেষে ঢাকা মহানগরের বিভিন্ন এলাকায় হাজার হাজার প্যাকেট এবং সারাদেশের জেলা, থানা আনজুমান ও সারাদেশের মসজিদ-মাদরাসার উদ্যোগে হাজার হাজার প্যাকেট বরকতময় তবারুক বিতরণ করা হয়।

বাদ যোহর নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র আক্বীকা শরীফ উপলক্ষে ৩টি গরু এবং ৪২টি খাসী মুবারক কুরবানী করা হয়। দৈনিক আল ইহসান শরীফ উনার বিশেষ সংখ্যা, বিশেষ রেসালা শরীফ প্রকাশ করা হয়।

আজিমুশশ্বান তালীমি মজলিশ মজলিশ

পবিত্র ২০শে জুমাদাল উখরা শরীফ থেকে ১০ই রজবুল হারাম শরীফ ১৪৪২ হিজরী পর্যন্ত রাজারবাগ শরীফ সিলসিলাভূক্ত সকল মসজিদ-মাদরাসার আমীল এবং দেশের সকল জেলা ও থানা আনজুমানের আজিমুশশ্বান তালীমি মজলিস চলমান রয়েছে।

মুজাদ্দিদে আ’যম, ঢাকা রাজারবাগ শরীফ উনার মহাসম্মানিত হযরত মুরশিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম উনার মুবারক পৃষ্ঠপোষকতায় পরিচালিত- সম্মানিত দ্বীন ইসলাম ও মুসলমানগণের অধিকার আদায়ের লক্ষ্যে আইনী কার্যক্রম ঐতিহাসিক এক অভূতপূর্ব আজিমুশ্বান তাজদীদ মুবারক (৪)

অপরাধের মাত্রা বাড়ার সাথে সাথে পাল্টাচ্ছে কিশোর অপরাধের ধরণ। মূল্যবোধের অবক্ষয় ও আকাশ সংস্কৃতিই মুখ্য কারণ।সরকারের উচিত- দেশের এই ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে বাঁচাতে যুগপৎ উদ্যোগ গ্রহণ করা।

এনজিওগুলোর ক্ষুদ্রঋণের ফাঁদে প্রান্তিক ও গ্রামীণ এলাকার কোটি কোটি মানুষ সর্বস্বান্ত। ঋণের কিস্তির চাপে একের পর এক ঘটছে আত্মহত্যার ঘটনা। ‘ক্ষুদ্রঋণ দারিদ্র বিমোচন নয়, বরং দারিদ্রতা লালন করছে।’ এনজিগুলোর বিরুদ্ধে শক্ত পদক্ষেপ চায় দেশের ৩০ কোটি মানুষ।

অনিয়ম, দুর্নীতি ও অব্যবস্থাপনায় খেলাপি ঋণ এখন ৩ লাখ কোটি টাকা। ইচ্ছাকৃত খেলাপিদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ না নিয়ে উল্টো তাদের দেয়া হচ্ছে সুযোগ সুবিধা। ব্যাংকের টাকা জনগণের টাকা। দেশের মালিক জনগণ। সরকার জনগণের টাকা নিয়ে ছিনিমিনি খেলতে পারেনা।

৭ বছরেও হয়নি পিতা-মাতার ভরণ-পোষণ নীতিমালা। প্রতিনিয়ত ঘটছে সন্তান কর্তৃক অসহায় পিতা-মাতাকে নির্যাতনের ঘটনা। দেশে বাড়ছে পশ্চিমা ‘ওল্ডহোম’ সংস্কৃতি।শুধু নীতিমালা বাস্তবায়নেই নয় বরং দ্বীন ইসলাম উনার আদর্শ প্রচার-প্রসারেই রয়েছে এর সুষ্ঠ সমাধান।