আর্কাইভ: ‘মতামত’ বিভাগ

বিভাগ:

‘ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম’ ব্যবহার সম্পর্কে এক চরম জাহিল, গণ্ডমূর্খ, মিথ্যাবাদী, মুনাফিক্ব, ধোঁকাবাজ এবং প্রতারকের জিহালতী, মূর্খতা, মিথ্যাচার, ধোঁকা, প্রতারণা ও অপব্যাখ্যার দলীলভিত্তিক দাঁতভাঙ্গা জবাব-১

বিভাগ:

প্রসঙ্গ: গণপরিবহন ভাড়া ৬০ শতাংশ বৃদ্ধি সরকার সৃষ্ট লকডাউন পরিস্থিতিতে শ্রমিক-মালিকদের ক্ষতির দায়ভার কেন জনগনের কাধে চাপানো হবে? জনগনের উপর ভাড়ার খড়গ না চাপিয়ে পরিবহন খাতে প্রণোদনা ও বাজেট বিশেষত শৃঙ্খলা তৈরী করে এর সুফল জনগনকে দিতে হবে।

বিভাগ:

১৯৪৭ সালের বেনিয়া বৃটিশদের দেশবিভক্তির দোহাই দিয়ে এখন পার্বত্য চট্টগ্রামকে ভারতের ভূখন্ড দাবী করছে উপজাতি সন্ত্রাসীরা। নেপথ্যে, বাংলাদেশ থেকে ৩ জেলাকে আলাদা করে স্বাধীন সন্ত্রাসবাদী জুম্মল্যান্ড গঠন করা। সরকারের উচিত তড়িৎ এই ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে শক্ত পদক্ষেপ গ্রহণ করা।

বিভাগ:

বাংলাদেশের ৫০ হাজার একরের বেশি জমি ভারতের দখলে। উদ্ধারে নেই সরকারের সক্রিয়তা। এই বিপুল পরিমাণ ভূমি ভারতের হাতে দখল দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ত্বের উপর মারাত্মক হুমকি। সরকার সজাগ হবে কবে?

বিভাগ:

করোনা ভাইরাসের গুজবে দেশ ও জাতি কি করুন পরিণতির দিকে যাচ্ছে। সরকারের কর্তাব্যক্তি ও তথাকথিত বুদ্ধিজীবীরা তা উপলব্ধি করতে হঠকারিতামূলক অজ্ঞতার পরিচয় দিচ্ছে। দেশের হতদরিদ্র, দরিদ্র, নিম্নবিত্ত ও মধ্যবিত্তদের চরম দুদর্শায় ফেলে সরকার সংবিধানের খেলাপ কাজ করছে। ‘করোনা-ছোঁয়াচে নয়’- পবিত্র দ্বীন ইসলাম উনার এই তথ্যের ভিত্তিতেই করোনার সমাধান সম্ভব।

বিভাগ:

মুজাদ্দিদে আ’যম, ঢাকা রাজারবাগ শরীফ উনার মহাসম্মানিত হযরত মুরশিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম উনার মুবারক পৃষ্ঠপোষকতায় পরিচালিত- সম্মানিত দ্বীন ইসলাম ও মুসলমানগণের অধিকার আদায়ের লক্ষ্যে আইনী কার্যক্রম ঐতিহাসিক এক অভূতপূর্ব আজিমুশ্বান তাজদীদ মুবারক

বিভাগ:

মুজাদ্দিদে আ’যম, ঢাকা রাজারবাগ শরীফ উনার মহাসম্মানিত হযরত মুরশিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম উনার মুবারক পৃষ্ঠপোষকতায় পরিচালিত- সম্মানিত দ্বীন ইসলাম ও মুসলমানগণের অধিকার আদায়ের লক্ষ্যে আইনী কার্যক্রম ঐতিহাসিক এক অভূতপূর্ব আজিমুশ্বান তাজদীদ মুবারক (৩)

বিভাগ:

বাড়ছে পরকীয়া, বাড়ছে তালাক। দ্বীনী মূল্যবোধের অবক্ষয় এবং সম্মানিত ইসলাম বৈরিতাই এর মুখ্য কারণ। সরকারের উচিত- জাতীয়ভাবে পবিত্র দ্বীন ইসলাম উনার আদর্শ ও শিক্ষা চার ও প্রসার করে এই সামাজিক সমস্যাটি দূর করা।

বিভাগ:

ডিজিটালাইজেশনের নামে শিশু-কিশোরদের ইন্টারনেট ব্যবহারে উৎসাহিত করা হচ্ছে; দেশের ইন্টারনেট জগতে নিয়ন্ত্রণ না থাকায় শিশু-কিশোররা আক্রান্ত হচ্ছে পর্ণোগ্রাফিতে। শিখছে অনৈতিকতা, অশ্লীলতা, হিংস্রতা। সরকারের উচিত- দ্রুত দেশের ইন্টারনেট জগতে কন্টেন্ট ফিল্টারিংয়ের ব্যবস্থা করা। বিশেষ করে শিশু কিশোরদের ইন্টারনেট আগ্রাসন থেকে বাঁচাতে পবিত্র দ্বীন ইসলাম উনার অনুশাসন প্রচার প্রসার করা।

বিভাগ:

গ্রামীণ অর্থনীতিকে চাঙ্গা করার ২৪ হাজার কোটি টাকা নিয়ে অনিশ্চয়তা। অর্থনৈতিক, সামাজিক ও রাষ্ট্রীয় সুযোগ সুবিধা থেকে গ্রামীণ জনগোষ্ঠী বঞ্চিত হচ্ছে। কয়েকটি বিভাগীয় শহর নয় ৬৮ হাজার গ্রামের উন্নয়ন হলেই গোটা দেশের উন্নয়ন হবে।

বিভাগ:

মুজাদ্দিদে আ’যম, ঢাকা রাজারবাগ শরীফ উনার মহাসম্মানিত হযরত মুরশিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম উনার মুবারক পৃষ্ঠপোষকতায় পরিচালিত- সম্মানিত দ্বীন ইসলাম ও মুসলমানগণের অধিকার আদায়ের লক্ষ্যে আইনী কার্যক্রম ঐতিহাসিক এক অভূতপূর্ব আজিমুশ্বান তাজদীদ মুবারক (৪)

বিভাগ:

অপরাধের মাত্রা বাড়ার সাথে সাথে পাল্টাচ্ছে কিশোর অপরাধের ধরণ। মূল্যবোধের অবক্ষয় ও আকাশ সংস্কৃতিই মুখ্য কারণ।সরকারের উচিত- দেশের এই ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে বাঁচাতে যুগপৎ উদ্যোগ গ্রহণ করা।

বিভাগ:

এনজিওগুলোর ক্ষুদ্রঋণের ফাঁদে প্রান্তিক ও গ্রামীণ এলাকার কোটি কোটি মানুষ সর্বস্বান্ত। ঋণের কিস্তির চাপে একের পর এক ঘটছে আত্মহত্যার ঘটনা। ‘ক্ষুদ্রঋণ দারিদ্র বিমোচন নয়, বরং দারিদ্রতা লালন করছে।’ এনজিগুলোর বিরুদ্ধে শক্ত পদক্ষেপ চায় দেশের ৩০ কোটি মানুষ।

বিভাগ:

অনিয়ম, দুর্নীতি ও অব্যবস্থাপনায় খেলাপি ঋণ এখন ৩ লাখ কোটি টাকা। ইচ্ছাকৃত খেলাপিদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ না নিয়ে উল্টো তাদের দেয়া হচ্ছে সুযোগ সুবিধা। ব্যাংকের টাকা জনগণের টাকা। দেশের মালিক জনগণ। সরকার জনগণের টাকা নিয়ে ছিনিমিনি খেলতে পারেনা।

বিভাগ:

৭ বছরেও হয়নি পিতা-মাতার ভরণ-পোষণ নীতিমালা। প্রতিনিয়ত ঘটছে সন্তান কর্তৃক অসহায় পিতা-মাতাকে নির্যাতনের ঘটনা। দেশে বাড়ছে পশ্চিমা ‘ওল্ডহোম’ সংস্কৃতি।শুধু নীতিমালা বাস্তবায়নেই নয় বরং দ্বীন ইসলাম উনার আদর্শ প্রচার-প্রসারেই রয়েছে এর সুষ্ঠ সমাধান।

বিভাগ:

বছরের পর বছর ধরে ভারতীয় পঁচা-গলা গোশত ঢুকছে দেশের বাজারে। মহাক্ষতিগ্রস্ত দেশের গোশত ব্যবসায়ীরা; পাশাপাশি চরম হুমকিতে দেশের জনস্বাস্থ্য। সরকারের সংশ্লিষ্ট মহলের নীরব দর্শকের ভূমিকা সমালোচক মহলের কাছে মীর জাফরের অবস্থানের মতই প্রতিভাত হচ্ছে।

বিভাগ:

দিন দিন বাড়ছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ফায়ারপাওয়ার। উন্নত প্রশিক্ষন, যুদ্ধকৌশল, সামরিক সক্ষমতা এবং আন্তর্জাতিক র‌্যাংক বাংলাদেশ সেনাবাহিনী এখন সাফল্যের শীর্ষে। সরকারের উচিত- দেশের মর্যাদা বুলন্দ ও দেশের স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ত্বকে সমুন্নত রাখতে সেনাবাহিনীর প্রতি সকল প্রকার পৃষ্ঠপোষকতা নিশ্চিত করা।

বিভাগ:

সাম্প্রতিককালে মাদকাসক্ত সন্তান কর্তৃক হত্যার শিকার ২০০ বাবা-মা। অপরদিকে মাদকের কারণে স্ত্রী-সন্তান হত্যা থেকে বিক্রির ঘটনাও ঘটছে। দেশের শিশু-কিশোরদের টার্গেট করেই দেশে মাদকের বিস্তার ঘটানো হচ্ছে। মাদক নির্মূলে পবিত্র দ্বীন ইসলামই একমাত্র সমাধান।

বিভাগ:

প্রসঙ্গ: রিজার্ভে হাত দিতে চায় সরকার। সুযোগ নিতে চায় বিতর্কিত ওরিয়ন গ্রুপ, লোপাট হবে অর্থ। চলমান পরিস্থিতিতে রিজার্ভে হাত দেয়া অর্থনীতির জন্য শঙ্কার কারণ হবে। সরকারের উচিত অর্থ সংস্থানে রাজস্ব আয় বৃদ্ধি করা।

বিভাগ:

আনজুমানে আল বাইয়্যিনাত ও মাহফিল সংবাদ

বিভাগ:

বাংলাদেশকে অত্যাধুনিক অস্ত্র সরবরাহ করতে চায় তুরস্ক। ভারতীয় আগ্রাসন ও বার্মিজ উষ্কানির শক্ত জবাবের জন্য দেশের সামরিক খাতে শক্তিশালীকরণের বিকল্প নেই। সরকারের উচিত তুরস্কের অত্যাধুনিক অস্ত্র কেনার পাশাপাশি দেশেও স্বয়ংসম্পূর্ণ সামরিক শিল্প প্রতিষ্ঠা করা।

বিভাগ:

ডিজিটালাইজেশনের নামে শিশু-কিশোরদের ইন্টারনেট ব্যবহারে উৎসাহিত করা হচ্ছে। দেশের ইন্টারনেট জগতে নিয়ন্ত্রণ না থাকায় শিশু-কিশোররা আক্রান্ত হচ্ছে পর্ণোগ্রাফিতে। শিখছে অনৈতিকতা, অশ্লীলতা, হিংস্রতা। সরকারের উচিত- দ্রুত দেশের ইন্টারনেট জগতে কন্টেন্ট ফিল্টারিংয়ের ব্যবস্থা করা। বিশেষ করে শিশু কিশোরদের ইন্টারনেট আগ্রাসন থেকে বাঁচাতে পবিত্র দ্বীন ইসলাম উনার অনুশাসন প্রচার প্রসার করা।

বিভাগ:

ভারতীয় টিভি সিরিজ দেখে হত্যা, ব্যাংক ডাকাতি, পরকিয়ার মতো অপরাধে বুঁদ হচ্ছে এ দেশবাসী। কিন্তু নাটক-সিনেমার ভয়াবহ কুফল রাষ্ট্র স্বীকার করতে পারছে না। ‘সিনেমা-নাটক তথা বেপর্দা-বেশরা সংস্কৃতি হারাম ও কবীরা গুনাহর কাজ’- এ কথা বলতে রাষ্ট্রদ্বীন ইসলাম উনার দেশের সরকার আর কতো দেরি করবে?

বিভাগ:

প্রসঙ্গ: মাস্ক পড়া বাধ্যতামূলক করেছে সরকার। দীর্ঘসময় মাস্ক পড়লে মানুষ আক্রান্ত হবে ফুসফুস ক্যান্সার, হৃদরোগে, ক্রণিকে। মানুষের শরীরে ঢুকবে মাইক্রো-প্লাস্টিক। সরকারের উচিত জনস্বাস্থ্য সুরক্ষায় এমন আত্মঘাতি ও মহা অনৈসলামিক সিদ্ধান্ত সত্ত্বর পরিহার করা।

বিভাগ:

আহলু বাইতি রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, ক্বায়িম মাক্বামে হাবীবুল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, মাওলানা সাইয়্যিদুনা ইমাম খলীফাতুল্লাহ হযরত আস সাফফাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মুবারক পৃষ্ঠপোষকতায় পরিচালিত- সম্মানিত দ্বীন ইসলাম ও মুসলমানগণের অধিকার আদায়ের লক্ষ্যে আইনী কার্যক্রম ঐতিহাসিক এক অভূতপূর্ব আজিমুশ্বান বিশেষ শান মুবারক (৫)

বিভাগ:

বাংলাদেশে বিনিয়োগে আগ্রহী হচ্ছে মুসলিম দেশগুলো। অবকাঠামোগত উন্নয়ন ও কুটনৈতিক তৎপরতা বৃদ্ধি করলে মুসলিম দেশগুলোর বিনিয়োগে লাভবান হবে বাংলাদেশ। পবিত্র দ্বীন ইসলাম ও মুসলমান এবং বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্বেও প্রতি ষড়যন্ত্রকারী দেশগুলোর পরিবর্তে মুসলিম দেশের বিনিয়োগ গ্রহণ দেশের জন্য যুগপৎভাবে নিরাপদ ও সমৃদ্ধ।

বিভাগ:

বর্তমান বিশ্ববাজারে হালাল পণ্যের ৩ কোটি মার্কিন ডলারের বাজার হলেও ২০২৪ সালে হবে প্রায় ১২ ট্রিলিয়ন ডলার। সুবিশাল এই বাজারে প্রবেশে অনেকটাই ব্যর্থ বাংলাদেশ। অথচ মান নিয়ন্ত্রন এবং উন্নত পণ্য ব্যবস্থাপনায় বাংলাদেশও এই সুবিশাল বাজার ধরে বিশ্বের সর্বপ্রধান অর্থনৈতিক সমৃদ্ধশালী দেশ হতে পারে। সরকারের উচিত- হালাল পণ্য উৎপাদন রফতানিতে প্রয়োজনীয় পৃষ্ঠপোষকতা প্রদান করা এবং মুসলিম বিশ্বের বাজার ধরতে কুটনৈতিক তৎপরতা চালানো।

বিভাগ:

খাদ্যদ্রব্যে অতিরিক্ত ভেজাল মিশ্রণে হুমকির মুখে ৩০ কোটি মানুষ। ভেজাল খাবারে দেশব্যাপী চলছে নীরব গণহত্যা। ভেজাল দমনে সম্মানিত ইসলামী মূল্যবোধের প্রতিফলন ঘটাতে হবে।

বিভাগ:

আপনাদের মতামত: মাসিক আল বাইয়্যিনাত উনার প্রতিটি বিভাগের ন্যায় আপনাদের মতামত বিভাগও অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। নিছক আলোচনা বা সমালোচনার স্থল এটি নয়। তবে পবিত্র কুরআন শরীফ, পবিত্র হাদীছ শরীফ, পবিত্র ইজমা ও পবিত্র ক্বিয়াস উনাদের দলীল-নির্ভর আল বাইয়্যিনাত উনার ফতওয়া, সুওয়াল-জাওয়াব তথা হক্ব লিখনীর কারণে উলামায়ে ‘সূ’দের মুখোশ উন্মোচিত হয়। এতদ্বপ্রেক্ষিতে তাদের পত্র-পত্রিকায়, আল বাইয়্যিনাত উনার বিরুদ্ধে যে অন্যায়, অসত্য, ডাহা মিথ্যা বক্তব্য পত্রস্থ হয় এবং তারা যে প্রোপাগান্ডা করে তারই প্রতিক্রিয়ারূপে, আল বাইয়্যিনাত উনার সম্মানিত পাঠক সমাজ আল বাইয়্যিনাত বিরোধীদের সেসব অপবাদ ও অপপ্রচারণার দাঁতভাঙ্গা জবাব সম্বলিত দলীলভিত্তিক অনেক মতামত পাঠিয়ে থাকেন। স্থান সঙ্কুলানহেতু কেবল গুরুত্বপূর্ণ ও প্রয়োজনীয় মতামতই সংক্ষিপ্তাকারে স্থান পায়। এসব মতামত পাঠক তথা লিখকের নিজস্ব। -এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

বিভাগ:

প্রায় প্রতিবছরই ব্যর্থ হচ্ছে সরকারের খাদ্যশস্য সংগ্রহ অভিযান মূল্য নির্ধারণের ক্ষেত্রে সংরক্ষিত হচ্ছে না কৃষকস্বার্থ, সুযোগ নিচ্ছে মিলাররা সরকারের উচিত, এই সংগ্রহ অভিযান সফলে ধানের দাম নির্ধারণের ক্ষেত্রে সামঞ্জস্য আনা ও মিলারদের স্বেচ্ছাচারিতা নির্মূল করা।