নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র হযরত আ’মাম (চাচা) আলাইহিমুস সালাম উনাদের এবং মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র হযরত ‘আম্মাত (ফুফু) আলাইহিন্নাস সালাম উনাদের সংক্ষিপ্ত পরিচিতি মুবারক

সংখ্যা: ২৮৪তম সংখ্যা | বিভাগ:

সাইয়্যিদুনা হযরত জাদ্দু রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম (সাইয়্যিদুনা হযরত আব্দুল মুত্ত্বালিব আলাইহিস সালাম) উনার মহাসম্মানিতা আযওয়াজুম মুত্বহ্হারাত (আহলিয়া) আলাইহিন্নাস সালাম উনারা ছিলেন সর্বমোট ৬ জন। উনাদের মাধ্যমে সাইয়্যিদুনা হযরত জাদ্দু রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মোট ১৩ জন মহাসম্মানিত ছেলে আওলাদ আলাইহিমুস সালাম উনারা এবং ৬ জন মেয়ে আওলাদ আলাইহিন্নাস সালাম উনারা মহাসম্মানিত বিলাদতী শান মুবারক প্রকাশ করেন। সুবহানাল্লাহ! নিম্নে উনাদের প্রত্যেকের তালিকা উল্লেখ করা হলো-

১. সাইয়্যিদাতুনা হযরত ফাত্বিমাহ্ বিনতে আমর ইবনে ‘আয়িয আলাইহাস সালাম :

উনার ছেলে আওলাদ ছিলেন ৪ জন এবং মেয়ে আওলাদ ছিলেন ৫ জন।

ছেলে আওলাদ উনারা হলেন-

১.আবূ রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম সাইয়্যিদুনা হযরত যাবীহুল্লাহ আলাইহিস সালাম,

২.সাইয়্যিদুনা হযরত যুবাইর আলাইহিস সালাম,

৩. সাইয়্যিদুনা হযরত আব্দুল কা’বাহ্ আলাইহিস সালাম,

৪. খাজা আবূ ত্বালিব,

মেয়ে আওলাদ উনারা হলেন-

১. সাইয়্যিদাতুনা হযরত ‘আতিকাহ্ আলাইহাস সালাম,

২. সাইয়্যিদাতুনা হযরত উমাইমাহ্ আলাইহাস সালাম,

৩. সাইয়্যিদাতুনা হযরত বাইদ্বা’ আলাইহাস সালাম,

৪. সাইয়্যিদাতুনা হযরত র্বারাহ আলাইহাস সালাম এবং

৫. সাইয়্যিদাতুনা হযরত আরওয়া আলাইহাস সালাম,

২.সাইয়্যিদাতুনা হযরত ছফিয়্যাহ বিনতে জুনদুব আলাইহাস সালাম। উনার সম্মানিত লক্বব মুবারক সাইয়্যিদাতুনা হযরত ক্বায়লা আলাইহাস সালাম:

উনার ছেলে আওলাদ ২ জন-

১ সাইয়্যিদুনা হযরত হারিছ আলাইহিস সালাম,

২. সাইয়্যিদুনা হযরত কুছাম আলাইহিস সালাম,

৩. সাইয়্যিদাতুনা হযরত হালাহ বিনতে ওয়াহাইব আলাইহাস সালাম। তিনি ছিলেন সাইয়্যিদাতুনা হযরত উম্মু রসূলিনা ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার আপন চাচাতো বোন।

উনার ছেলে আওলাদ ছিলেন ৩ জন এবং মেয়ে আওলাদ ছিলেন ১ জন।

ছেলে আওলাদ উনারা হলেন-

১.সাইয়্যিদুনা হযরত মুক্বওওইম আলাইহিস সালাম,

২.সাইয়্যিদুনা হযরত হাজ্ল আলাইহিস সালাম,

৩.সাইয়্যিদুনা হযরত সাইয়্যিদুশ্ শুহাদা আলাইহিস সালাম,

মেয়ে আওলাদ হলেন-

১. সাইয়্যিদাতুনা হযরত ছফিয়্যাহ আলাইহাস সালাম,

৪. সাইয়্যিদাতুনা হযরত নুতাইলাহ্ বিনতে জানাব আলাইহাস সালাম :

উনার ছেলে আওলাদ ২ জন-

১. সাইয়্যিদুনা হযরত দ্বিরার আলাইহিস সালাম,

২. সাইয়্যিদুনা হযরত খ্বতিমুল মুহাজিরীন আলাইহিস সালাম,

৫. সাইয়্যিদাতুনা হযরত লুব্না বিনতে হাজার আলাইহাস সালাম :

উনার ছেলে আওলাদ ১ জন-

১. আবূ লাহাব,

৬. সাইয়্যিদাতুনা হযরত মুমান্না‘আহ্ বিনতে ‘আমর আলাইহাস সালাম:

উনার ছেলে আওলাদ ১ জন-

১. সাইয়্যিদুনা হযরত গাইদাক্ব আলাইহিস সালাম।

কাজেই, নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র হযরত আ’মাম (চাচা) আলাইহিমুস সালাম উনারা ছিলেন মোট ১২ জন। অর্থাৎ আবূ রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম সাইয়্যিদুনা হযরত যাবীহুল্লাহ আলাইহিস সালাম তিনিসহ উনারা ছিলেন মোট ১৩ ভাই। নিম্নে উনাদের সংক্ষিপ্ত পরিচিতি মুবারক তুলে ধরা হলো-

১. সাইয়্যিদুনা হযরত হারিছ আলাইহিস সালাম: তিনি মহাসম্মানিত ভাই আলাইহিমুস সালাম উনাদের মধ্যে সর্বপ্রথম মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র বরকতময় বিলাদতী শান মুবারক প্রকাশ করেন। তিনি সম্মানিত যমযম কূপ মুবারক খননের সময় সাইয়্যিদুনা হযরত জাদ্দু রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাকে সহযোগিতা করেন। সাইয়্যিদুনা হযরত যাবীহুল্লাহ আলাইহিস সালাম তিনি যখন মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র নূরুল ইহ্সান মুবারক (মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র মারীদ্বী শান মুবারক) প্রকাশ করেন, তখন সাইয়্যিদুনা হযরত জাদ্দু রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি সাইয়্যিদুনা হযরত যাবীহুল্লাহ আলাইহিস সালাম উনার অবস্থা মুবারক জানার জন্য সাইয়্যিদুনা হযরত হারিছ আলাইহিস সালাম উনাকে মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র মদীনা শরীফ প্রেরণ করেন। সুবহানাল্লাহ!

সাইয়্যিদুনা হযরত হারিছ আলাইহিস সালাম তিনি সম্মানিত দ্বীন ইসলাম উনার যুগ পাননি। উনারই মহাসম্মানিত আওলাদ হচ্ছেন- বিশিষ্ট বদরী ছাহাবী সাইয়্যিদুনা হযরত ‘উবাইদাহ্ ইবনে হারিছ রদ্বিয়াল্লাহু তা‘য়ালা আনহু তিনি। সুবহানাল্লাহ! সাইয়্যিদুনা হযরত মুগীরাহ্ ইবনে নাওফেল ইবনে হারিছ রদ্বিয়াল্লাহু তা‘য়ালা আনহু  তিনি ছিলেন সাইয়্যিদুনা হযরত হারিছ আলাইহিস সালাম উনার নাতী। ইমামুল আউওয়াল সাইয়্যিদুনা হযরত কাররামাল্লাহু ওয়াজহাহূ আলাইহিস সালাম উনার পর সাইয়্যিদুনা হযরত মুগীরাহ্ ইবনে নাওফেল ইবনে হারিছ রদ্বিয়াল্লাহু তা‘য়ালা আনহু  উনার সাথেই সিবত্বতু রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম সাইয়্যিদাতুনা হযরত উমামা বিনতে যুন নূর আলাইহাস সালাম উনার মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র নিসবতে আযীম শরীফ সম্পন্ন হন। সুবহানাল্লাহ!

২. সাইয়্যিদুনা হযরত যুবাইর আলাইহিস সালাম: উনার সম্মানিত কুনিয়াত মুবারক ছিলেন সাইয়্যিদুনা হযরত আবূ ত্বাহির আলাইহিস সালাম। তিনি ‘হারবুল ফিজারে’ বনূ হাশিম গোত্রের নেতৃত্ব দেন। সুবহানাল্লাহ! তিনি ছিলেন হিলফুল ফুযূলের প্রতিষ্ঠাতা। সুবহানাল্লাহ! সাইয়্যিদুনা হযরত জাদ্দু রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার পর তিনিও নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সম্মানিত গোলামী মুবারক উনার আনজাম মুবারক দেন। তিনি নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাকে অত্যন্ত মুহব্বত মুবারক করতেন এবং তিনি উনার সম্মানিত মুহ্ববত মুবারক-এ সম্মানিত না’ত শরীফও পাঠ করেছেন। সুবহানাল্লাহ! এক বর্ণনা মতে নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মহাসম্মানিত বয়স মুবারক যখন দুনিয়াবী দৃষ্টিতে ১৪ বছর, তখন তিনি উনার মহাসম্মানিত চাচা সাইয়্যিদুনা হযরত যুবাইর আলাইহিস সালাম উনার সাথে ইয়ামেনে সফর মুবারক করেন। সুবহানাল্লাহ! উনারই মহাসম্মানিত আওলাদ হচ্ছেন- বিশিষ্ট ছাহাবী সাইয়্যিদুনা হযরত আব্দুল্লাহ ইবনে যুবাইর ইবনে আব্দুল মুত্ত্বালিব রদ্বিয়াল্লাহু তা‘য়ালা আনহু তিনি। সুবহানাল্লাহ!

৩. সাইয়্যিদুনা হযরত আব্দুল কা’বাহ্ আলাইহিস সালাম: তিনি আনুষ্ঠানিকভাবে মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র নুবুওওয়াত এবং রসালাত মুবারক প্রকাশের পূর্বেই মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র বরকতময় বিছালী শান মুবারক প্রকাশ করেন। সুবহানাল্লাহ! উনার কোনো আওলাদ ছিলেন না।

৪. সাইয়্যিদুনা হযরত মুক্বওওইম আলাইহিস সালাম: উনার সম্মানিত কুনিয়াত মুবারক ছিলেন আবূ বকর। সুবহানাল্লাহ! সাইয়্যিদুনা হযরত জাদ্দু রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি যখন মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র বরকতময় বিছালী শান মুবারক প্রকাশ করেন, তখন উনার সম্মানিত বয়স মুবারক ছিলেন ২৫ বছর। তিনি আনুষ্ঠানিকভাবে মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র নুবুওওয়াত এবং রসালাত মুবারক প্রকাশের ৬ বছর পূর্বে মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র বরকতময় বিছালী শান মুবারক প্রকাশ করেন। সুবহানাল্লাহ! উনারই মহাসম্মানিত আওলাদ হচ্ছেন- বিশিষ্ট মহিলা ছাহাবী সাইয়্যিদাতুনা হযরত হিন্দ বিনতে মুক্বওওইম রদ্বিয়াল্লাহু তা‘য়ালা আনহা তিনি। সুবহানাল্লাহ!

৫. সাইয়্যিদুনা হযরত হাজ্ল আলাইহিস সালাম: উনার সম্মানিত নাম মুবারক হচ্ছেন- ‘সাইয়্যিদুনা হযরত মুগীরাহ আলাইহিস সালাম’। ‘হাজল’ উনার সম্মানিত লক্বব মুবারক। সুবহানাল্লাহ!

৬. সাইয়্যিদুনা হযরত দ্বিরার আলাইহিস সালাম: তিনি কুরাইশদের মধ্যে অত্যন্ত সুদর্শন এবং বেমেছাল দানশীল ছিলেন। সুবহানাল্লাহ! তিনি আনুষ্ঠানিকভাবে মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র নুবুওওয়াত এবং রসালাত মুবারক প্রকাশের পূর্বেই মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র বরকতময় বিছালী শান মুবারক প্রকাশ করেন। সুবহানাল্লাহ!

৭. সাইয়্যিদুনা হযরত কুছাম আলাইহিস সালাম: তিনি দুনিয়াবী দৃষ্টিতে অল্প বয়স মুবারক-এ মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র বরকতময় বিছালী শান মুবারক প্রকাশ করেন। সুবহানাল্লাহ!

৮. সাইয়্যিদুনা হযরত গাইদাক্ব আলাইহিস সালাম: উনার সম্মানিত নাম মুবারক ‘সাইয়্যিদুনা হযরত মুছ‘আব আলাইহিস সালাম’। তিনি অধিক দান করতেন, এজন্য উনাকে ‘গাইদাক্ব’ বলা হতো। সুবহানাল্লাহ! তিনি প্রচুর সম্পদের অধিকারী এবং বেমেছাল দানশীল ছিলেন। সুবহানাল্লাহ!

৯. খাজা আবূ ত্বালিব: তিনি একাধারে প্রায় ৪২ বছর নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সল্লাম উনার বেমেছাল সম্মানিত খিদমত মুবারক উনার আনজাম মুবারক দিয়েছেন। সুবহানাল্লাহ! ক্বিয়ামতের পূর্বে শেষ যামানায় হযরত ঈসা রূহুল্লাহ আলাইহিস সালাম তিনি আসমান থেকে নাযিল হওয়ার পর তিনি যে জলীলুল ক্বদর নবী এবং রসূল এই বিষয় প্রমাণ বা তাছদীক্ব করার জন্য খাজা আবূ ত্বালিব তিনি কবর থেকে জীবিতাবস্থায় উঠবেন। তখন তিনি প্রকাশ্যে মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র কালিমা শরীফ পাঠ করতে থাকবেন এবং তা সত্যায়ন মুবারক করবেন। সুবহানাল্লাহ! অতঃপর ঈমান প্রকাশ করে হযরত ঈসা আলাইহিস সালাম উনার সহযোগী হিসেবে দ্বীনি খেদমতের আনজাম দিবেন। আনজাম দিয়ে ঈমানের সাথে বিছাল শরীফ লাভ করবেন। সুবহানাল্লাহ!

১০. আবূ রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম সাইয়্যিদুনা হযরত যাবীহুল্লাহ আলাইহিস সালাম: উনার সবচেয়ে বড় পরিচয় মুবারক হচ্ছেন- তিনি হলেন নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র হযরত আব্বাজান আলাইহিস সালাম। সুবহানাল্লাহ! তিনি শুধু মহান আল্লাহ পাক তিনি নন এবং নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি নন; এছাড়া সমস্ত শান-মান, ফাযায়িল-ফযীলত, বুযূর্গী-সম্মান মুবারক উনাদের অধিকারী হচ্ছেন তিনি। সুবহানাল্লাহ! উনার মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র বরকতময় ইসিম বা নাম মুবারক হচ্ছেন- ‘সাইয়্যিদুনা হযরত আব্দুল্লাহ আলাইহিস সালাম’। সুবহানাল্লাহ! তিনি ‘সাইয়্যিদুনা হযরত যাবীহুল্লাহ আলাইহিস সালাম’ এই মহাসম্মানিত ও মহপবিত্র লক্বব মুবারক-এ মহাসম্মানিত পরিচিতি মুবারক গ্রহণ করেছেন। সুবহানাল্লাহ!

সাইয়্যিদুনা হযরত যাবীহুল্লাহ আলাইহিস সালাম তিনি সম্মানিত হিজরত মুবারক উনার ৭৮ বছর ৮ মাস ১০ দিন পূর্বে মহাসম্মানিত ও মহপবিত্র ২রা রজবুল হারাম শরীফ লাইলাতুস সাব্ত শরীফ (শনিবার) মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র মক্কা শরীফ উনার মহাসম্মানিত ও মহপবিত্র কুরাইশ বংশে মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র বরকতময় বিলাদতী শান মুবারক প্রকাশ করেন। সুবহানাল্লাহ! সাইয়্যিদাতুনা উম্মু রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সাথে উনার মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র নিসবতে ‘আযীম শরীফ অনুষ্ঠিত হন নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মহাসম্মানিত ও মহপবিত্র বরকতময় বিলাদতী শান মুবারক প্রকাশের ৮ মাস ১২ দিন পূর্বে সম্মানিত ও পবিত্র রজবুল হারাম শরীফ মাস উনার মহাসম্মানিত ও মহপবিত্র ১লা তারীখ মহাসম্মানিত ও মহপবিত্র লাইলাতুল জুমুয়াহ শরীফ তথা ইয়াওমুল খমীস দিবাগত বা’দ মাগরিব। সুবহানাল্লাহ! তিনি নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মহাসম্মানিত ও মহপবিত্র বরকতময় বিলাদতী শান মুবারক প্রকাশ করার ২ মাস ১০ দিন পূর্বে মহাসম্মানিত ও মহপবিত্র ২রা মুহাররমুল হারাম শরীফ ইয়াওমুল জুমুয়াহ শরীফ সকালে মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র বরকতময় বিছালী শান মুবারক করেন। সুবহানাল্লাহ! তিনি দুনিয়ার যমীনে ২৫ বছর ৬ মাস অবস্থান মুবারক করেন। উনার মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র রওযা শরীফ ‘মহাসম্মানিত ও মহপবিত্র আবওয়া শরীফ’ উনার মধ্যে অবস্থিত। সুবহানাল্লাহ!

১১. আবূ লাহাব: তার অপর নাম আব্দুল উয্যা। সে বেআদবী করার কারণে তার ধ্বংস ঘোষণা করে পবিত্র সূরা মাসাদ শরীফ নাযিল হন। তারপরও নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র বরকতময় বিলাদতী শান মুবারক প্রকাশ উনার মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র সংবাদ মুবারক শুনে ঐ সময় খুশি প্রকাশ করার কারণে সে প্রতি সাইয়্যদু সাইয়্যিদিল আইয়্যাম শরীফ তথা ইয়াওমুল ইছনাইনিল আযীম শরীফ (সোমবার) কুদরতী শীতল ঠা-া পানি লাভ করে থাকে। সুবহানাল্লাহ! যা চুষে চুষে পান করার কারণে তার বিগত এক সাপ্তাহের আযব-গযব অনুভব হয় না। সুবহানাল্লাহ!

১২. আসাদুল্লাহ ওয়া আসাদু রসূলিহী ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম সাইয়্যিদুনা হযরত সাইয়্যিদুশ্ শুহাদা আলাইহিস সালাম: উনার মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র ইসিম বা নাম মুবারক হচ্ছেন- ‘সাইয়্যিদুনা হযরত হামযাহ্ আলাইহিস সালাম’। সুবহানাল্লাহ! উনার মহাসম্মানিত ও মহপবিত্র কুনিয়াত মুবারক হচ্ছেন- ‘সাইয়্যিদুনা হযরত আবূ ইয়া’লা আলাইহিস সালাম এবং সাইয়্যিদুনা হযরত আবূ ‘আম্মারাহ্ আলাইহিস সালাম’। উনাকেও সাইয়্যিদাতুনা হযরত ছুওয়াইবাহ্ আলাইহাস সালাম তিনি মহাসম্মানিত দুধ মুবারক পান করিয়েছিলেন। সেই দিক থেকে তিনি ছিলেন নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মহাসম্মানিত ও মহপবিত্র দুধ ভাই উনার অন্তর্ভুক্ত। সুবহানাল্লাহ! তিনি আনুষ্ঠানিকভাবে মহাসম্মানিত ও মহপবিত্র নুবুওওয়াত এবং রিসালাত মুবারক প্রকাশের ৫ম বছর মহাসম্মানিত দ্বীন ইসলাম গ্রহণ করেন। সুবহানাল্লাহ!  আর তিনি মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র বরকতময় শাহাদাতী শান মুবারক প্রকাশ করেন সম্মানিত উহুদ জিহাদ মুবারক-এ। উনার জন্য স্বয়ং নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি নিজেই মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র নূরুল মুহব্বত মুবারক প্রকাশ করেন (মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র কান্না মুবারক করেন)। সুবহানাল্লাহ!

১৩. সাইয়্যিদুনা হযরত খ্বতিমুল মুহাজিরীন আলাইহিস সালাম: উনার মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র ইসিম বা নাম মুবারক হচ্ছেন- ‘সাইয়্যিদুনা হযরত আব্বাস আলাইহিস সালাম’। উনার সম্মানিত কুনিয়াত মুবারক হচ্ছেন- ‘সাইয়্যিদুনা হযরত আবুল ফযল আলাইহিস সালাম’। তিনি প্রথম যামানায়ই ঈমান আনেন ও পবিত্র দ্বীন ইসলাম গ্রহন করেন। তবে প্রকাশ্যে প্রকাশ করেননি। পরবর্তীতে অর্থাৎ সম্মানিত বদর জিহাদ মুবারক উনার পর আনুষ্ঠানিকভাবে সম্মানিত ঈমান মুবারক প্রকাশ করেন। সুবহানাল্লাহ!

নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র ‘আম্মাত (ফুফু) আলাইহিন্নাস সালাম উনাদের সংক্ষিপ্ত পরিচিতি মুবারক:

নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র ‘আম্মাত (ফুফু) আলাইহিন্নাস সালাম। উনারা হলেন,

১. সাইয়্যিদাতুনা হযরত ‘আতিকাহ্ আলাইহাস সালাম: তিনি সম্মানিত হিজরত মুবারক উনার পূর্বেই সম্মানিত ঈমান মুবারক প্রকাশ করেন। তারপর সম্মানিত হিজরত মুবারক করেন। সুবহানাল্লাহ! উনার দুইজন আওলাদ সাইয়্যিদুনা হযরত আব্দুল্লাহ ইবনে আবী উমাইয়্যাহ্ রদ্বিয়াল্লাহু তা‘য়ালা আনহু তিনি এবং সাইয়্যিদাতুনা হযরত কুরাইবাহ্ কুবরা বিনতে আবী উমাইয়্যাহ্ রদ্বিয়াল্লাহু তা‘য়ালা আনহা তিনি অর্থাৎ উনারাও মহাসম্মানিত দ্বীন ইসলাম গ্রহণ করেন। সুবহানাল্লাহ! উনার মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র রওযা শরীফ জান্নাতুল বাক্বী’ শরীফ উনার মধ্যে অবস্থিত। সুবহানাল্লাহ!

২. সাইয়্যিদাতুনা হযরত উমাইমাহ্ আলাইহাস সালাম: তিনি হচ্ছেন মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র উম্মুল মু’মিনীন সাইয়্যিদাতুনা হযরত আস সাবি‘আহ্ আত্বওয়ালু ইয়াদান আলাইহাস সালাম উনার মহাসম্মানিত ও মহপবিত্র আম্মাজান আলাইহাস সালাম। সুবহানাল্লাহ! উনার মহাসম্মানিত ও মহপবিত্র নিসবতে ‘আযীম শরীফ হন সাইয়্যিদুনা হযরত জাহাশ ইবনে রিআব আসাদী আলাইহিস সালাম উনার সাথে। উনাদের মোট ৬ জন আওলাদ ছিলেন। উনাদের মধ্যে অন্যতম হচ্ছেন- বিশিষ্ট ছাহাবী সাইয়্যিদুনা হযরত আব্দুল্লাহ ইবনে জাহাশ রদ্বিয়াল্লাহু তা‘য়ালা আনহু তিনি। সাইয়্যিদাতুনা হযরত উমাইমাহ আলাইহাস সালাম তিনি সম্মানিত হিজরত মুবারক উনার পূর্বেই সম্মানিত ঈমান মুবারক প্রকাশ করেন। তারপর সম্মানিত হিজরত মুবারক করেন। সুবহানাল্লাহ!

৩. সাইয়্যিদাতুনা হযরত বাইদ্বা’ আলাইহাস সালাম: উনার মহাসম্মানিত ও মহপবিত্র কুনিয়াত মুবারক- ‘সাইয়্যিদাতুনা হযরত উম্মু হাকীম আলাইহাস সালাম’। উনার প্রথম মহাসম্মানিত ও মহপবিত্র নিসবতে আযীম শরীফ হন সাইয়্যিদুনা হযরত কুরাইয ইবনে রবী‘আহ আলাইহিস সালাম উনার সাথে। তখন সাইয়্যিদাতুনা হযরত আরওয়া বিনতে কুরাইয রদ্বিয়াল্লাহু তা‘য়ালা আনহা তিনি মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র বরকতময় বিলাদতী শান মুবারক প্রকাশ করেন। আর সাইয়্যিদাতুনা হযরত আরওয়া বিনতে কুরাইয রদ্বিয়াল্লাহু তা‘য়ালা আনহা উনারই মহাসম্মানিত আওলাদ হচ্ছেন তৃতীয় খলীফা সাইয়্যিদুনা হযরত যুন নূরাঈন আলাইহিস সালাম তিনি। সুবহানাল্লাহ!

৪. সাইয়্যিদাতুনা হযরত র্বারাহ আলাইহাস সালাম: তিনি মহাসম্মানিত দ্বীন ইসলাম উনার যুগ পাননি। উনারই মহাসম্মানিত আওলাদ হচ্ছেন- বিশিষ্ট বদরী ছাহাবী সাইয়্যিদুনা হযরত আবূ সালামাহ্ ইবনে আব্দুল আসাদ রদ্বিয়াল্লাহু তা‘য়ালা আনহু তিনি। তিনি ছিলেন নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মহাসম্মানিত ফুফাতো ভাই এবং মহাসম্মানিত দুধ ভাই উনাদের অন্তর্ভুক্ত। বিশিষ্ট বদরী ছাহাবী সাইয়্যিদুনা আবূ সাব্রাহ্ ইবনে আবূ রুহ্ম রদ্বিয়াল্লাহু তা‘য়ালা আনহু তিনিও সাইয়্যিদাতুনা হযরত র্বারাহ আলাইহাস সালাম উনার মহাসম্মানিত আওলাদ। তিনি সম্মানিত বদর জিহাদ মুবারক-এ শাহাদাতী শান মুবারক প্রকাশ করেন। সুবহানাল্লাহ!

৫. সাইয়্যিদাতুনা হযরত আরওয়া আলাইহাস সালাম: তিনি মহাসম্মানিত দ্বীন ইসলাম উনার সূচনালগ্নেই সম্মানিত ঈমান মুবারক প্রকাশ করেন এবং মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র মদীনা শরীফ হিজরত মুবারক করেন। সুবহানাল্লাহ! উনার মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র রওযা শরীফ জান্নাতুল বাক্বী’ শরীফ উনার মধ্যে অবস্থিত। সুবহানাল্লাহ! উনারই মহাসম্মানিত আওলাদ হচ্ছেন- বিশিষ্ট বদরী ছাহাবী সাইয়্যিদুনা হযরত তুলাইব ইবনে ‘উমাইর রদ্বিয়াল্লাহু তা‘য়ালা আনহু তিনি। সুবহানাল্লাহ!

৬. সাইয়্যিদাতুনা হযরত ছফিয়্যাহ আলাইহাস সালাম: তিনি মহাসম্মানিত দ্বীন ইসলাম উনার সূচনালগ্নে সম্মানিত ঈমান মুবারক প্রকাশ করেন। উনারই মহাসম্মানিত ও মহপবিত্র আওলাদ হচ্ছেন আশারায়ে মুবাশ্শারা উনাদের মধ্যে বিশেষ ব্যক্তিত্ব মুবারক সাইয়্যিদুনা হযরত যুবাইর ইবনুল ‘আওওয়াম রদ্বিয়াল্লাহু তা‘য়ালা আনহু তিনি। সুবহানাল্লাহ! সাইয়্যিদাতুনা হযরত ছফিয়্যাহ আলাইহাস সালাম তিনি সম্মানিত উহুদ জিহাদ মুবারক-এ বেমেছাল সাহসিকতার পরিচয় মুবারক উনার বহিঃপ্রকাশ মুবারক ঘটান। এছাড়াও তিনি প্রায় প্রত্যেকটি সম্মানিত জিহাদ মুবারক-এ নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সাথে উপস্থিত ছিলেন। সুবহানাল্লাহ! সম্মানিত খন্দক জিহাদ মুবারক উনার সময় মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র মদীনা শরীফ উনার অভ্যন্তরে ইহুদীরা বিদ্রোহ করার চক্রান্ত করে এবং গোপনে কিছু ইহুদীকে পাঠায়। তখন সাইয়্যিদাতুনা হযরত ছফিয়্যাহ আলাইহাস সালাম তিনি এক ইহুদীকে হত্যা করে তার গর্দান কেটে ইহুদীদের মধ্যে ছুঁড়ে মারেন। তখন ইহুদীরা ভয়ে ছত্রভঙ্গ হয়ে যায়। সুবহানাল্লাহ!

তিনি সাইয়্যিদুনা হযরত ফারূক্বে আ’যম আলাইহিস সালাম উনার মহাসম্মানিত ও মহপবিত্র খিলাফত মুবারককালে ২০ হিজরী শরীফ-এ মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র বরকতময় বিছালী শান মুবারক প্রকাশ করেন। উনার মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র রওযা শরীফ মহাসম্মানিত ও মহপবিত্র জান্নাতুল বাক্বী’ শরীফ উনার মধ্যে অবস্থিত। সুবহানাল্লাহ!

-মুহাদ্দিছ মুহম্মদ আমীন।

পবত্রি দ্বীন ইসলাম উনার দৃষ্টিতে ছোঁয়াচে বা সংক্রামক বলে কোন রোগ নাই “ছোঁয়াচে বা সংক্রামক বশ্বিাস করা শরিক”

সম্মানিত শরীয়ত উনার ফাতাওয়া অনুযায়ী “সুস্থ মানুষকে সুস্থ মানুষ থেকে দুরে থাকার ব্যাপারে” ইফার ফাতাওয়া ও সরকারী নির্দেশনা সম্পূর্নরূপে ভুল, মনগড়া, কুফরী ও শিরকীপূর্ণ

কতপিয় সম্মানতি সুন্নতী আমল, যা জানা থাকলে সহজইে আমল করা যায়

সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খ্বাতামুন নাবিয়্যীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সাথে আহলু বাইতি রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, মুত্বহ্হার, মুত্বহহির, আছ ছমাদ, মুজাদ্দিদে আ”যম মামদূহ মুর্শিদ ক্বিবলা সাইয়্যিদুনা ইমাম খলীফাতুল্লাহ হযরত আস সাফফাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার বেমেছাল মহাসম্মানিত তা“য়াল্লুক্ব-নিসবত মুবারক

মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র সুন্নত মুবারক উনার ইত্তিবা” তথা অনুসরণ-অনুকরণ করার গুরুত্ব-তাৎপর্য এবং বেমছাল ফযীলত মুবারক