সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খতামুন নাবিয়্যীন, নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র বরকতময় নসবনামাহ্ মুবারক

সংখ্যা: ২৮৪তম সংখ্যা | বিভাগ:

যিনি খলিক মালিক রব মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন,

وَتَـقَلُّبَكَ فِـى السّٰجِدِيْنَ

অর্থ: “(আমার মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র হাবীব, নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম!) আপনার মহাসম্মানিত স্থানান্তরিত হওয়ার বিষয়টিও ছিল মহাসম্মানিত সিজদাকারীগণ উনাদের মাধ্যমে।” সুবহানাল্লাহ! (সম্মানিত ও পবিত্র সূরা শু‘আরা’ শরীফ :  সম্মানিত ও পবিত্র আয়াত শরীফ ২১৯)

নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন-

لَـمْ اَزَلْ اُنْـقَلُ مِنْ اَصْلَابِ الطَّاهِرِيْنَ اِلـٰى اَرْحَامِ الطَّاهِرَاتِ

অর্থ: “আমি সবসময় পূত-পবিত্র মহাসম্মানিত পুরুষ আলাইহিমুস সালাম উনাদের মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র পৃষ্ঠ মুবারক অর্থাৎ উনাদের থেকে পূত-পবিত্রা মহাসম্মানিতা মহিলা আলাইহিন্নাস সালাম উনাদের মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র রেহেম শরীফ-এ অর্থাৎ উনাদের নিকট স্থানান্তরিত হয়েছি।” সুবহানাল্লাহ!

মূলত, সাইয়্যিদুনা হযরত আবুল বাশার ছফিউল্লাহ আলাইহিস সালাম (সাইয়্যিদুনা হযরত আদম আলাইহিস সালাম) উনার এবং সাইয়্যিদাতুনা হযরত উম্মুল বাশার আলাইহাস সালাম (সাইয়্যিদাতুনা হযরত হাওওয়া আলাইহাস সালাম) উনার অর্থাৎ উনাদের থেকে শুরু করে নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র আব্বাজান আলাইহিস সালাম উনার এবং মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র আম্মাজান আলাইহাস সালাম উনার অর্থাৎ উনাদের পর্যন্ত নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র পূর্বপুরুষ আলাইহিমুস সালাম উনারা প্রত্যেকেই হচ্ছেন সর্বকালের সর্বযুগের সর্বশ্রেষ্ঠ ব্যক্তিত্ব মুবারক। সুবহানাল্লাহ! শুধু তাই নয়, উনারা প্রত্যেকেই হচ্ছেন মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র হযরত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের অন্তর্ভুক্ত। সুবহানাল্লাহ! উনারা শুধু মহান আল্লাহ পাক তিনি নন এবং উনার মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র হাবীব, নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি নন; এছাড়া সমস্ত শান-মান, ফাযায়িল-ফযীলত, বুযূর্গী-সম্মান মুবারক উনাদের অধিকারী হচ্ছেন উনারা। সুবহানাল্লাহ! উনারা হচ্ছেন সম্মানিত ঈমান মুবারক। সুবহানাল্লাহ! যারা উনাদের শান-মান, ফাযায়িল-ফযীলত, বুযূর্গী-সম্মান মুবারক উনাদের ব্যাপারে চূ-চেরা, ক্বীল-ক্বাল করবে, সম্মানিত শরীয়ত মুবারক উনার ফতওয়া অনুযায়ী তারা সবচেয়ে বড় কাট্টা কাফির, চিরজাহান্নামী এবং চিরমাল‘ঊন। তারা যদি মুসলমান বা ঈমানদার দাবি করে, তাহলে তাদের উপর মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র শরীয়ত মুতাবেক মুরতাদের হুকুম বর্তাবে এবং সাথে সাথে মুরতাদের শাস্তিও বর্তাবে। আর যদি কাফির হয়, তাহলে তারা তাদের কুফরীকে আরো বৃদ্ধি করলো। তাদেরও মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র শরীয়ত মুতাবেক একমাত্র শরঈ শাস্তি হচ্ছে মৃত্যুদণ্ড। তারা চির মাল‘ঊন ও চির জাহান্নামী হবে। তারা ইবলীসের চেয়েও চরম মাল‘ঊন। তাদের প্রত্যেককেই লা’নাতুল্লাহি আলাইহি বলা ফরয, ফরয এবং ফরয।

নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক করেন,

اَيُّهَا النَّاسُ مَنْ اَنَـا قَالُوْا اَنْتَ رَسُوْلُ اللهِ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ قَالَ اَنْسِبُـوْنِـىْ قَالُوْا سَيِّدُ الْـمُرْسَلِـيْـنَ اِمَامُ الْـمُرْسَلِـيْـنَ خَاتَـمُ النَّبِـيِّـيْـنَ نُوْرُ الْـمُجَسَّمِ حَبِيْبُ اللهِ سَيّـِدُنَا مَوْلَانَا مُحَمَّدُ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ بْنُ مَوْلَانَا حَضْرَتْ عَبْدِ اللهِ عَلَـيْهِ السَّلَامُ بْنِ حَضْرَتْ عَبْدِ الْـمُطَّلِبِ عَلَـيْهِ السَّلَامُ

অর্থ: “হে লোক সকল! আমি কে? সবাই বললেন, আপনি মহান আল্লাহ পাক উনার মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র রসূল ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম। নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করলেন, আপনারা আমাকে মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র বরকতময় নসবনামাহ্ মুবারক উনার সাথে সম্পৃক্ত করুন। তখন হযরত ছাহাবায়ে কিরাম রদ্বিয়াল্লাহু তা‘য়ালা আনহুম উনারা বললেন, সাইয়্যিদুনা মাওলানা হযরত মুহম্মদ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ইবনে আব্দুল্লাহ আলাইহিস সালাম ইবনে আব্দুল মুত্ত্বালিব আলাইহিস সালাম।” সুবহানাল্লাহ! (যাখায়েরুল ‘উক্ববা, শরফুল মুস্ত¡ফা, কাশফুল আসতার ইত্যাদি)

এই মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেছেন,

اَنْسِبُـوْنِـىْ

অর্থ: “আপনারা আমাকে মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র বরকতময় নসবনামাহ্ মুবারক উনার সাথে সম্পৃক্ত করুন।” সুবহানাল্লাহ!

তাই নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র বরকতময় নসবনামাহ্ মুবারক সম্পর্কে ইলিম অর্জন করা বা জানা সমস্ত উম্মত জিন-ইনসান, পুরুষ-মহিলা সকলের জন্য ফরযে আইন। সুবহানাল্লাহ!

সাইয়্যিদাতুনা হযরত উম্মু রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার এবং আবূ রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম সাইয়্যিদুনা হযরত যাবীহুল্লাহ আলাইহিস সালাম উনার অর্থাৎ উনাদের উভয়ের মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র বরকতময় নসবনামাহ্ মুবারক একত্রিত হওয়ার বিষয়টি এক নজরে ছক আকারে-

 

১. সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খতামুন নাবিয়্যীন, নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম
২. সাইয়্যিদুনা হযরত যাবীহুল্লাহ আলাইহিস সালাম (সাইয়্যিদুনা হযরত আব্দুল্লাহ)

আলাইহিস সালাম

 

২. সাইয়্যিদাতুনা হযরত উম্মু রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম (সাইয়্যিদাতুনা হযরত আমিনাহ্ আলাইহাস সালাম)
৩. সাইয়্যিদুনা হযরত আব্দুল মুত্তালিব আলাইহিস সালাম ৩. সাইয়্যিদুনা হযরত ওয়াহাব আলাইহিস সালাম
৪. সাইয়্যিদুনা হযরত হাশিম আলাইহিস সালাম ৪. সাইয়্যিদুনা হযরত ‘আবদু মানাফ আলাইহিস সালাম
৫. সাইয়্যিদুনা হযরত ‘আবদু মানাফ আলাইহিস সালাম ৫. সাইয়্যিদুনা হযরত যুহরাহ আলাইহিস সালাম
৬. সাইয়্যিদুনা হযরত কুসাই আলাইহিস সালাম  
৭+৬. সাইয়্যিদুনা হযরত কিলাব আলাইহিস সালাম। সুবহানাল্লাহ!

 

নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র বরকতময় নসবনামাহ্ মুবারক মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র হযরত আব্বাজান আলাইহিস সালাম উনার দিক থেকে

 

মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছেন,

عَنْ حَضْرَتْ عُمَرَ بْنِ عَبْدِ الْعَزِيْزِ رَحْـمَةُ اللهِ عَلَيْهِ وَحَضْرَتْ اِسْـمَاعِيْلَ بْنِ رَافِعٍ رَحْـمَةُ اللهِ عَلَيْهِ قَالَا قَالَ رَسُوْلُ اللهِ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ اَنْسِبُوْنِـىْ ثُـمَّ قَالَ اَنَا سَيِّدُ الْـمُرْسَلِـيْـنَ اِمَامُ الْـمُرْسَلِـيْـنَ خَاتَـمُ النَّبِـيِّـيْـنَ نُوْرُ الْـمُجَسَّمِ حَبِيْبُ اللهِ سَيّـِدُنَا مَوْلَانَا مُحَمَّدُ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ بْنُ حَضْرَتْ عَبْدِ اللهِ عَلَيْهِ السَّلَامُ بْنِ حَضْرَتْ عَبْدِ الْمُطَّلِبِ عَلَيْهِ السَّلَامُ بْنِ حَضْرَتْ هَاشِمِ عَلَيْهِ السَّلَامُ بْنِ حَضْرَتْ عَبْدِ مَنَافِ عَلَيْهِ السَّلَامُ بْنِ حَضْرَتْ قُصَىِّ عَلَيْهِ السَّلَامُ بْنِ حَضْرَتْ كِلَابِ عَلَيْهِ السَّلَامُ بْنِ حَضْرَتْ مُرَّةَ عَلَيْهِ السَّلَامُ بْنِ حَضْرَتْ كَعْبِ عَلَيْهِ السَّلَامُ بْنِ حَضْرَتْ لُؤَىِّ عَلَيْهِ السَّلَامُ بْنِ حَضْرَتْ غَالِبِ عَلَيْهِ السَّلَامُ بْنِ حَضْرَتْ فِهْرِ عَلَيْهِ السَّلَامُ بْنِ حَضْرَتْ مَالِكِ عَلَيْهِ السَّلَامُ بْنِ حَضْرَتْ النَّضْرِ عَلَيْهِ السَّلَامُ بْنِ حَضْرَتْ كِنَانَةَ عَلَيْهِ السَّلَامُ بْنِ حَضْرَتْ خُزَيـْمَةَ عَلَيْهِ السَّلَامُ بْنِ حَضْرَتْ مُدْرِكَةَ عَلَيْهِ السَّلَامُ بْنِ حَضْرَتْ اِلْيَاسَ عَلَيْهِ السَّلَامُ بْنِ حَضْرَتْ مُضَرَ عَلَيْهِ السَّلَامُ بْنِ حَضْرَتْ نِزَارِ عَلَيْهِ السَّلَامُ بْنِ حَضْرَتْ مَعَدِّ عَلَيْهِ السَّلَامُ بْنِ حَضْرَتْ عَدْنَانَ عَلَيْهِ السَّلَامُ

অর্থ: “হযরত উমর ইবনে আব্দুল আযীয রহমতুল্লাহি আলাইহি উনার এবং হযরত ইসমাঈল ইবনে রাফি’ রহমতুল্লাহি আলাইহি উনার অর্থাৎ উনাদের  উভয়ের থেকে বর্ণিত। উনারা বলেন, নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, আপনারা আমাকে মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র বরকতময় নসবনামাহ্ মুবারক উনার সাথে সম্পৃক্ত করুন। অতঃপর নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি (নিজেই) ইরশাদ মুবারক করেন, আমি হচ্ছি সাইয়্যিদুনা হযরত মুহম্মদ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ইবনে আব্দুল্লাহ ইবনে আব্দুল মুত্ত্বালিব ইবনে হাশিম ইবনে আবদে মানাফ ইবনে কুছাই ইবনে কিলাব ইবনে র্মুরাহ ইবনে কা’ব ইবনে লুয়াই ইবনে গালিব ইবনে ফিহ্র ইবনে মালিক ইবনে নদ্বর ইবনে কিনানাহ্ ইবনে খুযাইমাহ্ ইবনে মুদ্রিকাহ্ ইবনে ইলইয়াস ইবনে মুদ্বর ইবনে নিযার ইবনে মা‘আদ্দ ইবনে ‘আদনান আলাইহিমুস সালাম।” সুবহানাল্লাহ! (তারিখে দিমাশক্ব)

এই মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে স্বয়ং নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি নিজেই উনার ২২ তম পূর্বপুরুষ আলাইহিমুস সালাম উনার পর্যন্ত উনার মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র বরকতময় নসবনামাহ্ মুবারক বর্ণনা মুবারক করেছেন। সুবহানাল্লাহ! উনারা হচ্ছেন-

১. سَيِّدُ الْـمُرْسَلِـيْـنَ اِمَامُ الْـمُرْسَلِـيْـنَ خَاتَـمُ النَّبِـيِّـيْـنَ نُوْرُ الْـمُجَسَّمِ حَبِيْبُ اللهِ سَيّـِدُنَا مَوْلَانَا رَسُوْلُ اللهِ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খ্বতামুন নাবিয়্যীন, নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ সাইয়্যিদুনা মাওলানা রসূলুল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম।

২. سَيِّـدُنَـا حَضْرَتْ ذَبِيْحُ اللهِ (حَضْرَتْ عَبْدُ اللهِ) عَلَيْهِ السَّلَامُ সাইয়্যিদুনা হযরত যাবীহুল্লাহ (হযরত আব্দুল্লাহ) আলাইহিস সালাম।

৩. عَبْدُ الْمُطَّلِبِ عَلَيْهِ السَّلَامُ سَيِّـدُنَـا حَضْرَتْ সাইয়্যিদুনা হযরত আব্দুল মুত্তালিব আলাইহিস সালাম।

৪. هَاشِمٌ عَلَيْهِ السَّلَامُ سَيِّـدُنَـا حَضْرَتْ সাইয়্যিদুনা হযরত হাশিম আলাইহিস সালাম।

৫. سَيِّـدُنَـا حَضْرَتْ عَبْدُ مَنَافٍ عَلَيْهِ السَّلَامُ সাইয়্যিদুনা হযরত ‘আবদু মানাফ আলাইহিস সালাম।

৬. قُصَىٌّ عَلَيْهِ السَّلَامُ سَيِّـدُنَـا حَضْرَتْ সাইয়্যিদুনা হযরত কুছাই আলাইহিস সালাম।

৭. كِلَابٌ عَلَيْهِ السَّلَامُ سَيِّـدُنَـا حَضْرَتْ সাইয়্যিদুনা হযরত কিলাব আলাইহিস সালাম।

৮. مُرَّةُ عَلَيْهِ السَّلَامُ سَيِّـدُنَـا حَضْرَتْ সাইয়্যিদুনা হযরত র্মুরাহ্ আলাইহিস সালাম।

৯. كَعْبٌ عَلَيْهِ السَّلَامُ سَيِّـدُنَـا حَضْرَتْ সাইয়্যিদুনা হযরত কা’ব আলাইহিস সালাম।

১০. لُؤَىٌّ عَلَيْهِ السَّلَامُ سَيِّـدُنَـا حَضْرَتْ সাইয়্যিদুনা হযরত লুআই আলাইহিস সালাম।

১১. غَالِبٌ عَلَيْهِ السَّلَامُ سَيِّـدُنَـا حَضْرَتْ সাইয়্যিদুনা হযরত গ¦ালিব আলাইহিস সালাম।

১২. فِهْرٌ عَلَيْهِ السَّلَامُ سَيِّـدُنَـا حَضْرَتْ সাইয়্যিদুনা হযরত ফিহ্র আলাইহিস সালাম। (উনার সম্মানিত লক্বব মুবারক ছিলেন কুরাইশ। উনার দিকে নিসবত করেই উনার পরবর্তী বংশধর উনাদেরকে কুরাইশী তথা কুরাইশ বংশীয় বলা হয়। সুবহানাল্লাহ!)

১৩. مَالِكٌ عَلَيْهِ السَّلَامُ سَيِّـدُنَـا حَضْرَتْ সাইয়্যিদুনা হযরত মালিক আলাইহিস সালাম।

১৪. اَلنَّضْرُ عَلَيْهِ السَّلَامُ سَيِّـدُنَـا حَضْرَتْ সাইয়্যিদুনা হযরত নদ্ব্র আলাইহিস সালাম।

১৫. كِنَانَةُ عَلَيْهِ السَّلَامُ سَيِّـدُنَـا حَضْرَتْ সাইয়্যিদুনা হযরত কিনানাহ্ আলাইহিস সালাম।

১৬. عَلَيْهِ السَّلَامُ سَيِّـدُنَـا حَضْرَتْ خُزَيـْمَةُ সাইয়্যিদুনা হযরত খুযাইমাহ্ আলাইহিস সালাম।

১৭. مُدْرِكَةُ عَلَيْهِ السَّلَامُ سَيِّـدُنَـا حَضْرَتْ সাইয়্যিদুনা হযরত মুদ্রিকাহ্ আলাইহিস সালাম।

১৮. سَيِّـدُنَـا حَضْرَتْ اِلْيَاسُ عَلَيْهِ السَّلَامُ সাইয়্যিদুনা হযরত ইল্ইয়াস আলাইহিস সালাম।

১৯. سَيِّـدُنَـا حَضْرَتْ مُضَرُ عَلَيْهِ السَّلَامُ সাইয়্যিদুনা হযরত মুদ্বর আলাইহিস সালাম।

২০. نِزَارٌ عَلَيْهِ السَّلَامُ سَيِّـدُنَـا حَضْرَتْ সাইয়্যিদুনা হযরত নিযার আলাইহিস সালাম।

২১. مَعَدٌّ عَلَيْهِ السَّلَامُ سَيِّـدُنَـا حَضْرَتْ সাইয়্যিদুনা হযরত মা‘আদ্দ আলাইহিস সালাম।

২২.   عَدْنَانُ عَلَيْهِ السَّلَامُ سَيِّـدُنَـا حَضْرَتْ সাইয়্যিদুনা হযরত ‘আদ্নান আলাইহিস সালাম।

মহান আল্লাহ পাক তিনি আহলু বাইতি রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, ক্বায়িম মাক্বামে হাবীবুল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম মামদূহ মুর্শিদ ক্বিবলা সাইয়্যিদুনা ইমাম খলীফাতুল্লাহ হযরত আস সাফফাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সম্মানার্থে আমাদের সবাইকে এবং সমস্ত মুসলমান জিন-ইনসান, পুরুষ-মহিলা সবাইকে নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র পূর্বপুরুষ আলাইহিমুস সালাম উনাদের প্রতি এবং মহাসম্মানিতা ও মহাপবিত্রা পূর্বমহিলা আলাইহিন্নাস সালাম উনাদের প্রতি সর্বোত্তম বিশুদ্ধ আক্বীদাহ্ এবং সর্বোচ্চ হুসনে যন মুবারক পোষণ করার, উনাদেরকে যথাযথ তা’যীম-তাকরীম মুবারক করার, মুহব্বত মুবারক করার, উনাদের সম্মানিত ছানা-ছিফত মুবারক করার, উনাদের সম্মানিত খিদমত মুবারক উনার আনজাম মুবারক দেয়ার তাওফীক্ব দান করুন এবং উনাদের সম্মানার্থে হাক্বীক্বী রেযামন্দি-সন্তুষ্টি মুবারক ও ইহকাল-পরকালে হাক্বীক্বী কামিয়াবী দান করুন। আমীন!

-আল্লামা মুহম্মদ আল আমীন

 

সাইয়্যিদাতুন নিসায়ি ‘আলাল আলামীন, মালিকুদ দুনিয়া ওয়াল আখিরাহ্, মুত্বহ্হার, মুত্বহ্হির, আছ ছমাদ, আহলু বাইতি রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, উম্মুল উমাম সাইয়্যিদাতুনা হযরত আম্মা হুযূর ক্বিবলা আলাইহাস সালাম তিনি হচ্ছেন ক্বায়িম মাক্বামে সাইয়্যিদাতুন নিসায়ি ‘আলাল আলামীন, মালিকুদ দুনিয়া ওয়াল আখিরাহ্, মুত্বহ্হার, মুত্বহ্হির, আছ ছমাদ উম্মুল মু’মিনীন আল ঊলা সাইয়্যিদাতুনা হযরত কুবরা আলাইহাস সালাম

যুল ওয়াসীলাহ, খইরুল আলামীন, সাইয়্যিদুছ ছাক্বলাইন, ছাহিবুল কাওছার, যিক্রুল্লাহ, খইরু খলক্বিল্লাহ, আস সিরাজুল মুনীর, ইমামুল মুত্তাক্বীন, মালিকুল কায়িনাত, আবূ রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম সাইয়্যিদুনা হযরত যাবীহুল্লাহ আলাইহিস সালাম উনার মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র বরকতময় বিছালী শান মুবারক প্রকাশের মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র ওয়াক্বেয়াহ মুবারক

পবত্রি দ্বীন ইসলাম উনার দৃষ্টিতে ছোঁয়াচে বা সংক্রামক বলে কোন রোগ নাই “ছোঁয়াচে বা সংক্রামক বশ্বিাস করা শরিক”

সম্মানিত শরীয়ত উনার ফাতাওয়া অনুযায়ী “সুস্থ মানুষকে সুস্থ মানুষ থেকে দুরে থাকার ব্যাপারে” ইফার ফাতাওয়া ও সরকারী নির্দেশনা সম্পূর্নরূপে ভুল, মনগড়া, কুফরী ও শিরকীপূর্ণ

কতপিয় সম্মানতি সুন্নতী আমল, যা জানা থাকলে সহজইে আমল করা যায়