আর্কাইভ: ‘মতামত’ বিভাগ

বিভাগ:

মালয়েশিয়ায় সেকেন্ড হোম, হুমড়ি খেয়ে পড়ছে বাংলাদেশীরা সরকারের কাছে নেই কোনো তালিকা সেকেন্ড হোমের জন্য মালয়েশিয়াসহ অন্যান্য দেশে লাখ লাখ টাকা পাচার হচ্ছে সরকারের অবগতিও নেই, মাথাব্যথাও নেই

বিভাগ:

বাংলাদেশের ৫০ হাজার একরের বেশি জমি ভারতের দখলে সরকারের হস্তক্ষেপ দাবি

বিভাগ:

গো’আযমের রায়ে দেশবাসী স্তম্ভিত এ রায় রাষ্ট্রদ্বীন পবিত্র ইসলাম উনার উপর আঘাত এ রায় মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষ শক্তি তথা ৯৭ ভাগ মুসলমান উনাদের ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত ও চেতনার মূলে আঘাত

বিভাগ:

কুইক রেন্টালের নামে বিদ্যুৎখাতে চলছে মহা অনিয়ম আর লুটপাট টাকা পাচার হচ্ছে বিদেশেও জনগণের সচেতনতার প্রয়োজন

বিভাগ:

বাংলাদেশে ৩ কোটি লোক দিনে ৩ বেলা খেতে পারেনা পুষ্টিমান অনুযায়ী খেতে পারেনা ৮ কোটি লোক ক্ষুধাক্লিষ্ট ও পুষ্টিহীন জনগোষ্ঠীর জন্য সরকারের নেই কোনো উদ্যোগ! 

বিভাগ:

রাষ্ট্রধর্ম পবিত্র দ্বীন ইসলাম উনার দেশে ঈদের বাজারে হিন্দি সিরিয়ালের চরম প্রভাব কেন? সরকার কী করে ভারতীয় পোশাক আমদানির অনুমতি দেয়? সরকার কী নিজেই এদেশীয় পোশাক শিল্প ও পবিত্র ধর্মীয় ঐতিহ্য ধ্বংস করতে চায়?

বিভাগ:

ভারতের কাছে দেশের স্বার্থ বিলিয়ে দেবার নিকৃষ্টতম উদাহরণ রামপালে কয়লাভিত্তিক তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র। আইন ভেঙ্গে, সংবিধান ভেঙ্গে, জনগণকে ধোঁকা দিয়ে তৈরি হচ্ছে রামপাল তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র। মাত্র ১৫ ভাগ বিনিয়োগ করে ভারত মালিকানা পাবে ৫০ ভাগ। আর ধ্বংস হবে এদেশের সুন্দরবন। এদেশের অর্থনীতি। এ ঘৃণ্য ষড়যন্ত্র রুখে দেয়ার দায়িত্ব জনগণের (২)

বিভাগ:

যুগের আবূ জাহিল, মুনাফিক ও দাজ্জালে কাযযাবদের বিরোধিতাই প্রমাণ করে যে, রাজারবাগ শরীফ উনার হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম তিনি হক্ব। খারিজীপন্থী ওহাবীদের মিথ্যা অপপ্রচারের দাঁতভাঙ্গা জবাব-১০১

বিভাগ:

ভারতে মুসলমানদের জন্য নয়া আতঙ্ক গণসম্ভ্রমহরণ ভারতে রাজনীতিবিদদের জন্য মুসলমান ওদের কথিত বলির পাঁঠা। মুসলমানদের পবিত্র ঈমানী জজবা প্রয়োজন

বিভাগ:

পাঠ্যবইয়ে পবিত্র দ্বীন ইসলাম বিরোধী শিক্ষা এবং চরম দলীয়করণ কৌশলে বাদ দেয়া হয়েছে মুসলিম কবি সাহিত্যিকদের ঐতিহ্যনির্ভর লেখা

বিভাগ:

এভাবে কতদিন দেশ চলবে? দেশের উপর নাগরিকের প্রাধান্য কবে প্রতিফলিত হবে? রাজনৈতিক দলগুলোর কাছে মানুষের অসহায়ত্ব কতদিন থাকবে? মানুষ কবে আত্মঅধিকার সচেতন হবে?

বিভাগ:

হিন্দুরা কখনোই অসাম্প্রদায়িক নয়। গান্ধী, নেহেরু, নরেন্দ্র মোদী প্রচ- মুসলিমবিদ্বেষী। তারা মুসলমান মেয়েদের সন্তানসম্ভাবা করে হিন্দু সন্তান চায়, মুসলমানদের পোড়াতে চায়। এটা ভারতে মুসলিম নির্যাতন ও গণহত্যার নির্মম ইতিহাসের সামান্য নমুনা।

বিভাগ:

জাতিসংঘ? না ইহুদীসংঘ? জাতিসংঘ কেন সব সনদ সাক্ষর করতে বাংলাদেশকে বাধ্য করে? সম্প্রতি সমকামিতা গ্রহণে বাংলাদেশকে বাধ্য করা এর প্রকৃষ্ট উদাহরণ। নারীনীতিসহ আরো অন্যান্য ঘৃণ্য ও কুফরী নীতিতে ইতোমধ্যে বাংলাদেশ সাক্ষর করে বসেছে। যা সম্মানিত পবিত্র দ্বীন ইসলাম সম্মত মোটেই নয় বরং ঘোরবিরোধী। ৯৭ ভাগ মুসলমান উনাদের দেশ বাংলাদেশ জাতিসংঘকে সীকার করতে পারেনা। এর কোনো সনদে সাক্ষরও করতে পারেনা

বিভাগ:

দারুল উলুম দেওবন্দ মুসলমান, না দারুল উলুম হিন্দু? দেওবন্দীরা হিন্দু হয়ে গেছে পাপাত্মা গান্ধীর সময়েই। আখিরী রসূল, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার গরু কুরবানী তাদেরকে অনুপ্রাণিত করেনি। তাদেরকে প্রভাবিত করেছে পাপাত্মা গান্ধীর গরু কুরবানী না করার আহ্বান। নাঊযুবিল্লাহ! তারা উম্মতে মুহম্মদী নয়; তারা উম্মতে পাপাত্মা গান্ধী। অপরদিকে এদেশীয় দেওবন্দীরা ভারতীয় দেওবন্দীদের প্রতিবাদ না করায় তারাও পাপাত্মা গান্ধীর উম্মত ও মুরীদে পরিণত হয়েছে। নাঊযুবিল্লাহ!

বিভাগ:

ভারতের কাছে দেশের স্বার্থ বিলিয়ে দেবার নিকৃষ্ঠতম উদাহরণ রামপালে কয়লাভিত্তিক তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র। আইন ভেঙ্গে, সংবিধান ভেঙ্গে জনগণকে ধোঁকা দিয়ে তৈরি হচ্ছে রামপাল তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র। মাত্র ১৫ ভাগ বিনিয়োগ করে ভারত মালিকানা পাবে ৫০ ভাগ। আর ধ্বংস হবে এদেশের সুন্দরবন। এদেশের অর্থনীতি। এ ঘৃণ্য ষড়যন্ত্র রুখে দেয়ার দায়িত্ব জনগণের (৪)

বিভাগ:

পবিত্র আল আকসা মসজিদ উনার বিরুদ্ধে ইসরাইলের নয়া ষড়যন্ত্র পবিত্র মসজিদুল আকসা উনার পুনরুদ্ধার ও ফিলিস্তিনের স্বাধীনতা

বিভাগ:

সংবিধান কি নিজেই সংবিধানবিরোধী এক বই? সংবিধানে অসাংবিধানিক কথাও অন্তর্ভুক্ত হয়? বিরোধীদল সবসময়ই সংবিধান অস্বীকার করে কেন? সংবিধানের পূর্ণতা কোন্ পথে?

বিভাগ:

পুঁজিবাদী অর্থ ব্যবস্থায় চলছে দেশ। কোটিপতির সংখ্যা এখন লাখেরও বেশি। অধিকাংশরাই কর ফাঁকি দিচ্ছে। অথচ যাকাতদানের চেতনা তৈরি করলে ধনীরা স্বতঃস্ফূর্তভাবে এগিয়ে আসতো। তাতে সম্পদ আহরণ হতো অনেক বেশি, দারিদ্রতা দূর হতো নিমিষেই।

বিভাগ:

তথাকথিত ‘জামাতে ইসলাম’ আর ‘ইসলামী ব্যাংক’ দুটোরই ‘ইসলাম’ ব্যবহার বড়ই অনৈসলামী। তথাকথিত ইসলামী ব্যাংকের অনৈসলামী বাণিজ্য চলছে ইহুদী-খ্রিস্টানদের টাকায়।

বিভাগ:

সারা বিশ্বে আজ মুসলমান অবর্ণনীয় নির্যাতিত হওয়া থেকে নির্বিচারে শহীদ হচ্ছে। কাফিররা অবাধে মুসলিম মেয়েদের সম্ভ্রম লুণ্ঠন করছে। কাফিররা মুসলমান মেয়েদের পেটে কাফিরের বাচ্চার অনুপ্রবেশ করাচ্ছে। নির্যাতিত নিপীড়িত মুসলমানের পাশে অন্য মুসলমান নেই। ধর্মনিরপেক্ষতা ও অসাম্প্রদায়িতার অপপ্রচার মুসলিম ভ্রাতৃত্ববোধকে অপসৃত করছে। মুসলমানদের জন্য সম্মানিত ইসলামী ভ্রাতৃত্ববোধের বিকল্প নেই।

বিভাগ:

গঠনতন্ত্র থেকে মহান আল্লাহ পাক উনার এবং উনার রসূল, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাদের বাদ দিয়ে মদ ও পতিতাবৃত্তি অব্যাহত রেখে জামাত প্রমাণ করেছে তারা কত নিকৃষ্ট স্তরের মুনাফিক

বিভাগ:

নারী অধিকার প্রসঙ্গে

বিভাগ:

প্রসঙ্গ: ভারতের মুসলিম নাম পরিবর্তন

বিভাগ:

ইহুদী এবং তাদের সমর্থকদের তৈরি পণ্য বর্জন করা মুসলিম উম্মাহর জন্য আবশ্যক

বিভাগ:

আনজুমানে আল বাইয়্যিনাত ও মাহফিল সংবাদ

বিভাগ:

যুগের আবূ জাহিল, মুনাফিক ও দাজ্জালে কাযযাবদের বিরোধিতাই প্রমাণ করে যে, রাজারবাগ শরীফ উনার হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম তিনি হক্ব। খারিজীপন্থী ওহাবীদের মিথ্যা অপপ্রচারের দাঁতভাঙ্গা জবাব-১০২

বিভাগ:

হরতাল, অবরোধ পবিত্র দ্বীন ইসলাম উনার দৃষ্টিতে হারাম। হরতাল, অবরোধ শুধু দুনিয়াবী ক্ষতিই নয়; ঈমানী ক্ষতিরও কারণ। ৯৭ ভাগ মুসলমান উনাদের দেশে হরতাল, অবরোধ চলতে পারে না।

বিভাগ:

মায়ানমার সীমান্তে ৩৭ ইয়াবা কারখানা, মালিকানায় নাসাকা মিয়ানমার থেকে প্রতিদিন আসছে ৩০ লাখ পিস ইয়াবা এমপি, ক্ষমতাসীন রাজনীতিক তথা প্রশাসনের সহযোগিতায় দেশব্যাপী ইয়াবা সয়লাব হচ্ছে।

বিভাগ:

সাংবিধানিকভাবে ধর্মনিরপেক্ষ বলে কথিত ভারতে ৩৭টি উগ্র হিন্দুত্ববাদী দল নির্মম মুসলিম বিদ্বেষী তৎপরতা চালাচ্ছে। বর্তমান ভারতবান্ধব সরকারের উচিত- ভারতে মুসলিম নির্যাতনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করা ও পদক্ষেপ গ্রহণ করা। সব প্রশংসা মুবারক যিনি খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক উনার জন্য। সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খাতামুন নাবিইয়ীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার প্রতি অফুরন্ত দুরূদ শরীফ ও সালাম মুবারক।

বিভাগ:

ছয় উছুলী তাবলীগের নামে প্রতারণা আর কত দিন? বদ আক্বীদা বিস্তার করে ঈমান নষ্ট করা আর কত দিন? হযরত আউলিয়ায়ে কিরাম রহমতুল্লাহি আলাইহিমগণ, পবিত্র মাযার শরীফ, পবিত্র মীলাদ শরীফ, পবিত্র ক্বিয়াম শরীফ উনাদের বিরোধী ছয় উছুলী তাবলীগে কোনো হিদায়েত ও বরকত নেই। বরং তা অপরাধীদের অভয়ারণ্য। অতএব, হে ঈমানদার মুসলমানগণ ঈমান বাঁচাতে ছয় উছুলী তাবলীগ থেকে সাবধান!